ঢাকা, রোববার 20 June 2021, ৬ আষাঢ় ১৪২৮, ৮ জিলক্বদ ১৪৪২ হিজরী
Online Edition

সল্টলেক স্টেডিয়াম এখন করোনা হাসপাতাল

সংগ্রাম অনলাইন ডেস্ক: পশ্চিমবঙ্গে হাসপাতালের বেডের সমস্যা মেটাতে এবার সল্টলেক স্টেডিয়ামকে করোনা হাসপাতাল হিসেবে গড়ে তুলেছে রাজ্য সরকার। প্রাথমিক ভাবে সেখানে দুইশোরও বেশি শয্যা থাকবে বলে জানা গেছে। রাজ্য সরকারের সঙ্গে এই কাজে সহযোগিতা করছে আমরি হাসপাতাল। খবর আনন্দবাজার পত্রিকার।

পশ্চিমবনে করোনা সংক্রমণ বেড়েই চলছে। এই পরিস্থিতিতে হাসপাতালগুলোতে বেড পাওয়া যাচ্ছে না। বেডের অভাবে মৃত্যু হচ্ছে অনেক রোগীর। সেই সমস্যা সমাধানের জন্যই সল্টলেকের বিবেকানন্দ যুব ভারতী ক্রীড়াঙ্গনকে করোনা হাসপাতাল রূপে তৈরি করেছে রাজ্য সরকার। আপাতত এখানে ২২৩টি বেডের বন্দোবস্ত করা হয়েছে। এর মধ্যে জেনারেল বেড করা হয়েছে ২১০টি। তবে এখানে থাকছে না কোনও ইন্টেভসিভ কেয়ার ইউনিট।

করোনা চিকিৎসার পাশাপাশি সল্টলেক স্টেডিয়ামে টিকাকরণ কর্মসূচি হবে বলেও জানা গেছে। রাজ্য সরকারের সঙ্গে ওই কাজে সহায়তা করবে কলকাতার আমরি হাসপাতাল। আমরি হাসপাতালের তরফে জানানো হয়েছে, সল্টলেক স্টেডিয়ামে করোনা রোগীর চিকিৎসার জন্য জেনারেল আইসোলেশন ওয়ার্ড তৈরি করা হয়েছে। এখন অক্সিজেনের সুবিধা থাকলেও, জরুরি পরিষেবা আপাতত পাওয়া যাবে না।

করোনার দ্বিতীয় ঢেউ আছড়ে পড়ার পর থেকে পশ্চিমবঙ্গ জুড়ে পর্যাপ্ত বেড না থাকায় চিকিৎসা সঙ্কট তৈরি হয়। এই সমস্যা থেকে কিছুটা রেহাই পেতে বেশ কয়েকটি স্টেডিয়ামকে করোনা চিকিৎসার জন্য গড়ে তোলে রাজ্য সরকার। কয়েক দিন আগে যাদবপুর স্টেডিয়ামকে করোনা হাসপাতাল হিসেবে গড়ে তোলা হয়েছিল। সেখানেও ২০০ বেড নিয়ে চিকিৎসাও শুরু হয়েছে। ওই কাজে রাজ্য সরকারের সঙ্গে সহায়তা করছে মেডিকা সুপার স্পেশালিটি হাসপাতাল। তারও আগে থেকে ইডেন গার্ডেন্সকে সেফ হাউস হিসেবে ব্যবহার করা হচ্ছিল। বর্তমানে রাজ্যের পুলিশ কর্মীদের জন্য সেটা ব্যবহার করা হচ্ছে।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ