ঢাকা, শনিবার 8 May 2021, ২৫ বৈশাখ ১৪২৮, ২৫ রমযান ১৪৪২ হিজরী
Online Edition

৩০ ঘণ্টা পর নিভল সুন্দরবনের আগুন 

সংগ্রাম অনলাইন ডেস্ক: সুন্দরবন পূর্ব বিভাগের শরণখোলা রেঞ্জের দাসের ভারানি টহল ফাঁড়ি এলাকা জঙ্গলে লাগা আগুন মঙ্গলবার দুপুরে নেভাতে ব্যস্ত ফায়ার সার্ভিসের কর্মীরা। ৩০ ঘণ্টা পর এই আগুন নিয়ন্ত্রণে আসে।

সুন্দরবন পূর্ব বিভাগের শরণখোলা রেঞ্জের দাসের ভারানি টহল ফাঁড়ি এলাকা জঙ্গলে লাগা আগুন মঙ্গলবার দুপুরে নেভাতে ব্যস্ত ফায়ার সার্ভিসের কর্মীরা। ৩০ ঘণ্টা পর এই আগুন নিয়ন্ত্রণে আসে।

সুন্দরবন পূর্ব বিভাগের শরণখোলা রেঞ্জের দাসের ভারানি টহল ফাঁড়ি এলাকা জঙ্গলে লাগা আগুন মঙ্গলবার দুপুরে নেভাতে ব্যস্ত ফায়ার সার্ভিসের কর্মীরা। ৩০ ঘণ্টা পর এই আগুন নিয়ন্ত্রণে আসে।

সুন্দরবন পূর্ব বিভাগের শরণখোলা রেঞ্জের দাসের ভারানি টহল ফাঁড়ি এলাকা জঙ্গলে লাগা আগুন মঙ্গলবার দুপুরে নেভাতে ব্যস্ত ফায়ার সার্ভিসের কর্মীরা। ৩০ ঘণ্টা পর এই আগুন নিয়ন্ত্রণে আসে।

মঙ্গলবার বিকালে আগুন পুরোপুরি নিভে যায় বলে সুন্দরবন পূর্ব বিভাগের বিভাগীয় বন কর্মকর্তা (ডিএফও) মোহাম্মদ বেলায়েত হোসেন জানান।

তবে আগুর লাগার কারণ সম্পর্কে এখনও কিছু জানা যায়নি।

ডিএফও বেলায়েত হোসেন বলেন, “আগুন নিভে গেছে। বিকালের পর পানি ছিটানো এলাকায় আগুনের ধোঁয়ার কোনো কুণ্ডলি দেখতে পাইনি। বিকাল ৪টায় আগুন নেভানোর কাজে অংশ নেওয়া ফায়ার সার্ভিস ও স্থানীয় গ্রামবাসীরা ফিরে গেছে।”

সবাই আগুন নেভানোর কাজে সহযোগিতায় করায় দ্রুত সময়ে আগুন নেভাতে পেরে তিনি সবাইকে ধন্যবাদ জানান।

“সোমবার গভীর রাত ও মঙ্গলবার দুপুরের বৃষ্টি আগুন নেভানোর কাজে দারুণ উপকার দিয়েছে। তবে আমরা আগুনের এলাকা পর্যবেক্ষণে রেখেছি। নতুন কোনো এলাকায় আগুনের ধোঁয়া দেখতে পেলে বনকর্মীরা তা নেভাতে পারবে।”

আগুনে বনের ‘এক দশমিক ৩১ একর’ বনভূমি পুড়ে গেছে জানিয়ে তিনি বলেন, এই এলাকায় মূল্যবান কোনো গাছপালা ছিল না। যা পুড়েছে বলা, গেওয়া ও লতাগুল্ম জাতীয় গাছপালা।

সোমবার বেলা ১১টার দিকে সুন্দরবন পূর্ব বিভাগের শরণখোলা রেঞ্জের দাসের ভারানি টহল ফাঁড়ি এলাকার ২৪ নম্বর কম্পার্টমেন্টে আগুন লাগে। 

বাগেরহাট ফায়ার সার্ভিসের উপ-সহকারী পরিচালক মো. গোলাম ছরোয়ার বলেন, “মঙ্গলবার বিকাল ৪টার দিকে আগুন নেভানোর কাজ সমাপ্ত ঘোষণা করেছি। বনের কোথাও আগুন নেই। বনের প্রায় তিন একর এলাকায় গতকাল থেকে পানি ছিটানো হচ্ছিল। আজ মঙ্গলবার সকাল সাড়ে ৮টা থেকে একটানা বিকাল ৪টা পর্যন্ত পানি ছিটিয়ে সম্পূর্ণ আগুন নিভিয়ে ফেলি।”

সুন্দরবন পূর্ব বিভাগের শরণখোলা রেঞ্জের দাসের ভারানি টহল ফাঁড়ি এলাকা জঙ্গলে লাগা আগুন মঙ্গলবার দুপুরে নেভাতে ব্যস্ত ফায়ার সার্ভিসের কর্মীরা। ৩০ ঘণ্টা পর এই আগুন নিয়ন্ত্রণে আসে।যে স্থানে আগুন লেগেছে সেই স্থান থেকে জলাশয় প্রায় তিন থেকে চার কিলোমিটার দূরে জানিয়ে তিনি বলেন, পানি সংকটের কারণে আগুন নেভাতে বেগ পেতে হয়েছে। পানির উৎসব ভালো হলে আরও আগেই আগুন নেভানো সম্ভব হত।

তদন্ত কমিটির প্রধান সুন্দরবন পূর্ব বিভাগের শরণখোলা রেঞ্জের সহকারী বন সংরক্ষক (এসিএফ) জয়নাল আবেদিন বলেন, “আগুনে বনের ক্ষয়ক্ষতি নিরুপণে কাজ শুরু করেছি। নির্ধারিত সময়ের মধ্যে আমরা কাজ শেষ করে তদন্ত প্রতিবেদন জমা দিব।”

ডিএস/এএইচ

 

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ