বৃহস্পতিবার ১৭ জুন ২০২১
Online Edition

সভাপতি নির্বাচন নিয়ে সুপ্রিম কোর্ট বারের সাধারণ সভা তুমুল হট্টগোলে পণ্ড

স্টাফ রিপোর্টার: সুপ্রিম কোর্ট আইনজীবী সমিতির সভাপতির শূন্য পদে নির্বাচন বিষয়ে ডাকা বিশেষ সাধারণ সভা তুমুল হট্টগোলে পণ্ড হয়ে গেছে। এ ঘটনায় পাল্টাপাল্টি বক্তব্য দিয়েছেন আওয়ামী লীগ ও বিএনপি সমর্থিত আইনজীবীরা। সুপ্রিম কোর্ট বারের সম্পাদক ব্যারিস্টার রুহুল কুদ্দুস কাজল বলেছেন, হট্টগোলের কারণে বিশেষ সাধারণ সভা মুলতবি ঘোষণা করা হয়েছে।
আর আওয়ামী লীগ সমর্থক আইনজীবীরা দাবি করেছেন, সাধারণ সভায় কণ্ঠভোটে এ এম আমিন উদ্দিন সভাপতি নির্বাচিত হয়েছেন।
গতকাল মঙ্গলবার দুপুরে সুপ্রিম কোর্ট আইনজীবী সমিতি মিলনায়তনে আওয়ামী লীগ এবং বিএনপিপন্থী আইনজীবীদের মধ্যে তুমুল হট্টগোল শুরু হয়। সাধারণ সভায় সভাপতিত্ব কে করবেন তা নিয়েই হট্টগোলের শুরু হয়।
সমিতির নবনির্বাচিত সভাপতি ও সাবেক আইনমন্ত্রী আব্দুল মতিন খসরুর মৃত্যুতে সভাপতি নির্বাচনের করণীয় ঠিক করতে বিশেষ সাধারণ সভা আহ্বান করা হয়। সভার শুরুতে সম্পাদক ব্যারিস্টার রুহুল কুদ্দুস কাজল ঘোষণা দেন যে বারের সংবিধান অনুযায়ী তিনি সভা পরিচালনা করবেন। তখন একপক্ষ বিরোধিতা শুরু করলে আওয়ামীপন্থী আইনজীবীদের সহ-সভাপতি মুহাম্মদ শফিক উল্লাহ দাঁড়িয়ে ঘোষণা দেন তিনি সভার সভাপতিত্ব করবেন।
সে সময় ব্যারিস্টার রুহুল কুদ্দুস কাজল বলেন, উনাকে সভাপতিত্ব করার কোনো কার্যবিবরণী পাস হয়নি। সিনিয়র আরেকজন সহ-সভাপতি আছেন।
তখন শফিক উল্লাহ বলেন, আমি আজকের সভার সভাপতি। এই সভা থেকে ঘোষণা করছি, আজ থেকে সুপ্রিম কোর্ট আইনজীবী সমিতির সভাপতি এ এম আমিন উদ্দিন।
তখন সরকার সমর্থক আইনজীবীরা তাকে সমর্থন দেন।
বিএনপিপন্থী আইনজীবীরা এর বিরোধিতা করতে থাকেন। তারা চিৎকার করে বলতে থাকেন, কণ্ঠভোট নয়, নির্বাচন চাই। এক পর্যায়ে মিলনায়তনের বৈদ্যুতিক সংযোগ ও মাইকের সংযোগ বিচ্ছিন্ন করে দেয়া হয়। মঞ্চের ওপর ধাক্কাধাক্কির ঘটনাও ঘটে।
তখন সম্পাদক ব্যারিস্টার রুহুল কুদ্দুস কাজল বলেন, সাধারণ সভা করার মতো পরিবেশ-পরিস্থিতি না থাকায় সভা মুলতবি করা হলো।
সাধারণ সভা পণ্ড হওয়ার পর সহ-সভাপতি শফিক উল্লাহর নেতৃত্বে কার্যনির্বাহী কমিটির আওয়ামীপন্থী সদস্যরা রেজুলেশন পাস করে এ এম আমিন উদ্দিনকে সভাপতি ঘোষণা করেছেন।
এদিকে সুপ্রিম কোর্ট আইনজীবী সমিতির সাধারণ সম্পাদক এক বিজ্ঞপ্তিতে জানিয়েছেন, উদ্ভূত পরিস্থিতিতে কোনো আলোচনা ও সিদ্ধান্ত ছাড়াই পরবর্তী নির্দেশ না দেয়া পর্যন্ত বিশেষ সাধারণ সভা মুলতবি ঘোষণা করা হয়েছে।
পরে এ বিষয়ে অ্যাটর্নি জেনারেল এ এম আমিন উদ্দিন বলেন, আমি শুনতে পেলাম আজ (৪ মে) বিশেষ সাধারণ সভায় সর্বসম্মতিক্রমে সভাপতি হিসেবে আমার নাম ঘোষণা করা হয়েছে। আমাকে যদি আবারো সভাপতি নির্বাচিত করা হয় আমি বিগত দুই বছরের মতো বারের উন্নয়ন কাজ করে যাব।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ