শনিবার ০৮ মে ২০২১
Online Edition

করোনায় একরাতে রাজশাহী মেডিকেলে ৯ ও চট্টগ্রামে ৫ জনের মৃত্যু

রাজশাহী অফিস: রাজশাহী মেডিকেল কলেজ (রামেক) হাসপাতালের করোনা ওয়ার্ডে এক রাতে নয়জনের মৃত্যু হয়েছে। এদের মধ্যে ছয়জনের করোনা পজেটিভ ছিল। বাকি তিনজন মারা গেছেন করোনা উপসর্গ নিয়ে। তাদের নমুনা সংগ্রহ করে পরীক্ষার জন্য পাঠানো হয়েছে। অন্যদিকে রাজশাহী বিভাগের ৮ জেলায় নতুন রোগী শনাক্ত হয়েছেন ১০২ জন।
সোমবার দিবাগত রাতের বিভিন্ন সময় তাদের মৃত্যু হয় জানান রামেক হাসপাতালের উপ-পরিচালক ডা. সাইফুল ফেরদৌস। তিনি জানান, বর্তমানে করোনা ওয়ার্ডে ৯৭ জন ভর্তি রয়েছেন। এর মধ্যে ৪৩ জনের করোনা শনাক্ত হয়েছে। বাকি ৫৪ জন করোনা উপসর্গ রয়েছে। তাদের নমুনা সংগ্রহ করে পরীক্ষার জন্য পাঠানো হয়েছে। করোনা আক্রান্তদের মধ্যে আইউসিইউতে ভর্তি রয়েছেন নয়জন। এদিকে, রাজশাহী বিভাগের আট জেলার মধ্যে চার জেলায় করোনাভাইরাসে আরও সাতজনের মৃত্যু হয়েছে। মঙ্গলবার সকাল পর্যন্ত গত ২৪ ঘন্টায় তাদের মৃত্যু হয়। এর মধ্যে রাজশাহীতে ১ জন, চাঁপাইনবাবগঞ্জে ২ জন, বগুড়ায় ৩ জন ও পাবনায় ১ জন। মঙ্গলবার দুপুরে রাজশাহী বিভাগীয় স্বাস্থ্য পরিচালকের কার্যালয়ের এক প্রতিবেদনে বলা হয়, বিভাগের ৮ জেলায় এ পর্যন্ত ৪৯০ জনের মৃত্যু হলো করোনায়। এর মধ্যে সর্বোচ্চ ২৯৭ জনের মৃত্যু হয়েছে বগুড়ায়। দ্বিতীয় সর্বোচ্চ ৭০ জন মারা গেছেন রাজশাহীতে। এছাড়া চাঁপাইনবাবগঞ্জে ২০ জন, নওগাঁয় ৩৪ জন, নাটোরে ১৭ জন, জয়পুরহাটে ১১ জন, সিরাজগঞ্জে ২৩ জন এবং পাবনায় ১৮ জনের মৃত্যু হয়েছে। সোমবার এ বিভাগের আট জেলায় নতুন ১০২ জন করোনা রোগী শনাক্ত হয়েছেন। এর মধ্যে রাজশাহীতে ১৫ জন, চাঁপাইনবাবগঞ্জ ৪০ জন, নওগাঁয় চারজন, নাটোর ছয়জন, জয়পুরহাট দুইজন, বগুড়ায় ১৫ জন, সিরাজগঞ্জ ১২ জন ও পাবনায় আটজন। এ দিন সুস্থ হয়েছেন ১৬০ জন। এ বিভাগের আট জেলায় এখন মোট আক্রান্তের সংখ্যা ৩৬ হাজার ৬২৬ জন। এদের মধ্যে ২৮ হাজার ৪১৩ জন সুস্থ হয়েছেন।
চট্টগ্রামে করোনায় আরো ৫ জনের মৃত্যু
চট্টগ্রাম ব্যুরো: গত ২৪ ঘন্টায় চট্টগ্রামে করোনায় ৫ জনের মৃত্যু হয়েছে।এ সময় আরও নতুন ১৯৮ জন করোনা রোগী সনাক্ত হয়েছে।  এ নিয়ে চট্টগ্রামে মোট আক্রান্তের সংখ্যা দাঁড়ালো ৫০ হাজার ৪৭৮ জন।
মঙ্গলবার ( ৪ মে ) সকালে সিভিল সার্জন কার্যালয় থেকে প্রকাশিত প্রতিবেদনে এসব তথ্য জানা যায়। গত ২৪ ঘণ্টায় কক্সবাজার মেডিক্যাল কলেজ ল্যাব ও চট্টগ্রামের ৯টি ল্যাবে ১ হাজার ৩০৭টি নমুনা পরীক্ষা করা হয়।এর মধ্যে চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় ল্যাবে ২৪১টি, বাংলাদেশ ইনস্টিটিউট অব ট্রপিক্যাল অ্যান্ড ইনফেকশাস ডিজিজেস (বিআইটিআইডি) ল্যাবে ৩০৪টি, চট্টগ্রাম মেডিক্যাল কলেজ (চমেক) ল্যাবে ৪২টি এবং চট্টগ্রাম ভেটেরিনারি অ্যান্ড অ্যানিম্যাল সায়েন্সেস বিশ্ববিদ্যালয় (সিভাসু) ল্যাবে ২০৮টি নমুনা পরীক্ষা করা হয়।চবি ল্যাবে ৫৩ জন, বিআইটিআইডি ল্যাবে ৩১ জন, চমেক ল্যাবে ১৬ জন এবং সিভাসু ল্যাবে ৩২ জনের করোনা পজেটিভ রিপোর্ট এসেছে।  বেসরকারি ইম্পেরিয়াল হাসপাতাল ল্যাবে ১২৪টি নমুনা পরীক্ষা করে ১৩ জন, শেভরন ক্লিনিক্যাল ল্যাবরেটরিতে ২৬৭টি নমুনা পরীক্ষা করে ১৫ জন, চট্টগ্রাম মা ও শিশু হাসপাতাল ল্যাবে ৩৮টি নমুনা পরীক্ষা করে ৮ জন, জেনারেল হাসপাতালের রিজিওনাল টিবি রেফারেল ল্যাবরেটরিতে (আরটিআরএল) ৫৮টি নমুনা পরীক্ষা করে ২৬ জন এবং মেডিক্যাল সেন্টার হাসপাতালে ৯টি নমুনা পরীক্ষা করে ৪ জনের করোনা ভাইরাস শনাক্ত হয়েছে।এদিন কক্সবাজার মেডিক্যাল কলেজ ল্যাবে চট্টগ্রামের ১৬টি নমুনা পরীক্ষা করে করোনা ভাইরাসের অস্তিত্ব মেলেনি। চট্টগ্রামের সিভিল সার্জন ডা. সেখ ফজলে রাব্বি জানান, গত ২৪ ঘণ্টার নমুনা পরীক্ষায় ১৯৮ জনের করোনা শনাক্ত হয়েছে। নমুনা পরীক্ষা করা হয়েছে ১ হাজার ৩০৭ জন। নতুন আক্রান্তদের মধ্যে নগরে ১৩৭ জন এবং উপজেলায় ৬১ জন। 

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ