বৃহস্পতিবার ১৭ জুন ২০২১
Online Edition

শ্রমজীবী মানুষের প্রতি রাষ্ট্রীয় বাহিনীর জুলুম নিপীড়ন অবিলম্বে বন্ধ করতে হবে -শ্রমিক কল্যাণ ফেডারেশন

আন্তর্জাতিক শ্রমিক দিবস উপলক্ষে গত রোববার বাংলাদেশ শ্রমিক কল্যণ ফেডারেশন ঢাকা মহানগরীর উত্তরের উদ্যোগে শ্রমিকদের মাঝে খাবার বিতরণ করেন ফেডারেশনের কেন্দ্রীয় সভাপতি ও সাবেক এমপি আ ন ম শামসুল ইসলাম -সংগ্রাম

বাংলাদেশ শ্রমিক কল্যাণ ফেডারেশনের কেন্দ্রীয় সভাপতি সাবেক এমপি আ ন ম শামসুল ইসলাম ও সাধারণ সম্পাদক আতিকুর রহমান গতকাল সোমবার দেয়া এক যৌথ বিবৃতিতে পহেলা মে সিরাজগঞ্জের সদর উপজেলার বহুলী ইউনিয়নের খাগা গ্রামে ফেডারেশনের সদর উপজেলা শাখা কর্তৃক মহান মে দিবস উপলক্ষে আয়োজিত আলোচনা সভা চলাকালীন সময় পুলিশ অন্যায়ভাবে ৫ জন শ্রমিককে গ্রেফতারের তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়েছেন।
নেতৃবৃন্দ বলেন, মহান মে দিবস শ্রমিকের ন্যায্য অধিকার আন্দোলনের স্মারক। সারাবিশ্বে এইদিনটি যথাযথ মর্যাদায় উদযাপিত হয়ে থাকে। সেই মহান দিন উদযাপনে শ্রমিক সংগঠনের আলোচনা সভা থেকে ৫জন সাধারণ শ্রমিককে গ্রেফতার করে পুলিশ মহান দিনটিকে অবমাননা করেছে। পবিত্র মাহে রামাদান মাসে শ্রমিকদের গ্রেফতার করে সরকার অমানবিক ও অন্যায় আচরণ করেছে। আমরা প্রতিনিয়ত লক্ষ্য করছি শ্রমিদের যেকোন ন্যায্য অধিকারের আন্দোলন সরকার রাষ্ট্রীয় বাহিনীকে ব্যবহার করে স্তিমিত করে দেওয়ার চেষ্টা করছে। শ্রমজীবী মানুষের প্রতি রাষ্ট্রীয় বাহিনীর জুলুম-নিপীড়ন ক্রমাগতভাবে বেড়েই চলছে। অবিলম্বে শ্রমজীবী মানুষের প্রতি রাষ্ট্রীয় বাহিনীর জুলুম-নিপীড়ন বন্ধ করতে হবে।
 নেতৃবৃন্দ বলেন, মহামারি করোনার এই সময়ে সরকারের ব্যর্থতার কারণে দেশের প্রায় সাড়ে সাত কোটি শ্রমজীবী মানুষের জীবন জীবিকা নির্বাহ দুঃসাধ্য হয়ে পড়েছে। সরকারের উচিত ছিল প্রতিটি শ্রমজীবী মানুষের ঘরে নিত্য প্রয়োজনীয় খাদ্য সামগ্রী পৌঁছে দেওয়া। কিন্তু সরকারের পক্ষ থেকে শ্রমিকদের সমস্যা সমাধানে কার্যকর কোন পদক্ষেপ নিতে দেখা যায়নি। অন্যদিকে শ্রমিকের ওপর অব্যাহত ভাবে নির্যাতন নিপীড়ন চালাচ্ছে। কিছুদিন আগে সরকারের নির্দেশনায় চট্টগ্রামের বাঁশখালীর কয়লা ভিত্তিক বিদ্যুৎ কেন্দ্রে রাষ্ট্রীয় বাহিনী গুলী চালিয়ে অন্তত ৭জন রোযাদার শ্রমিককে নির্মমভাবে হত্যা করেছে।
 নেতৃবৃন্দ বলেন, পুলিশ শ্রমিক নেতাকর্মীদের শুধু গ্রেফতার করে ক্ষান্ত হয়নি। মেহনতি শ্রমিকদের রুটি রোজগারের আয়ের উৎসগুলো নিয়ে গিয়েছে। আমরা জানতে পেরেছি শ্রমিকদের ৫টি ব্যাটারী চালিত ভ্যান, ১টি অটোরিক্সা, ৩টি ইজিবাইক, ১টি সিএনজি, ৫টি মোটরসাইকেল ও ২টি বাইসাইকেল জব্দ করেছে। শ্রমিকের কষ্টার্জিত উপার্জন দিয়ে কেনা এসব বাহন অতি দ্রুত সময়ের মধ্যে শ্রমিকদের ফেরত দেওয়ার আহবান জানাচ্ছি।
আমরা অবিলম্বে শ্রমিকদের ওপর সকল ধরণের নির্যাতন নিপীড়ন ও গ্রেফতার বন্ধের দাবি জানাচ্ছি। গ্রেফতারকৃত সকল শ্রমিকদের দ্রুততম সময়ের মধ্যে মুক্তি দিতে হবে।
ঢাকা মহানগরী উত্তর : শ্রমিক কল্যাণ ফেডারেশন ঢাকা মহানগরী উত্তর কর্তৃক আয়োজিত ১লা মে আন্তর্জাতিক শ্রমিক দিবস উপলক্ষ্যে কর্মসূচির অংশ হিসেবে শ্রমিকদের নিয়ে ইফতার মাহফিল অনুষ্ঠিত হয়। কেন্দ্রীয় সহ সাধারণ সম্পাদক ও মহানগরীর সভাপতি মোঃ মহিববুল্লাহ সভাপতিত্বে ও কেন্দ্রীয় কার্যকরী কমিটির সদস্য  মহানগরীর সাধারণ সম্পাদক এইচ এম আতিকুর রহমানের পরিচালনায় অনুষ্ঠিত ইফতার মাহফিলে প্রধান অতিথি ছিলেন ফেডারেশনের কেন্দ্রীয় সভাপতি আ ন ম শামসুল ইসলাম এম পি। উপস্থিত ছিলেন মহানগরীর সহ- সাধারণ সম্পাদক ডা. সুলতান মাহমুদ। কার্যকরী কমিটির সদস্য মোঃ মনিরুজ্জামান ও ওমর ফারুক  প্রমুখ। প্রেসবিজ্ঞপ্তি।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ