রবিবার ২০ জুন ২০২১
Online Edition

সিলেট ও কুষ্টিয়ায় পৃথক সড়ক দুর্ঘটনায় ৫ জন নিহত

সংগ্রাম ডেস্ক : সিলেট এবং কুষ্টিয়ায় গতকাল সোমবার পৃথক সড়ক দুর্ঘটনায় ৫ জন নিহত হয়েছে বলে আমাদের জৈন্তাপুর ও দৌলতপুর প্রতিনিধি জানিয়েছেন।
জৈন্তাপুর সংবাদদাতা জানান, সিলেটের জৈন্তাপুরে ১৯ ঘণ্টা ব্যবধানে ফের ট্রাকচাপায় পিষ্ট হয়ে ৪ জনের মৃত্যু হয়েছে।  এ নিয়ে দুটি দুর্ঘটনায় ২৪ ঘণ্টায় নিহত হয়েছেন ৯ জন।
সোমবার রাত ১টা ৩০মিনিটের সময় জৈন্তাপুর উপজেলার সিলেট-তামাবিল সড়কের দরবস্ত বাজার সংলগ্ন ফান্দু এলাকায় এই প্রাণহানির ঘটনা ঘটে। দুর্ঘটনায় ঘটনাস্থলে ৩জন ও হাসপাতালে নেয়ার পথে আরও একজনের মৃত্যু হয়েছে।
নিহতরা হলেন, সিলেটের কানাইঘাট উপজেলার গাছবাড়ি এলাকার সুলতান আহমদ, একই এলাকার আশিক আহমদ, দরবস্ত বাজারের একটি মোটরসাইকেল ওয়ার্কশপের মেকানিক গোলাপগঞ্জ উপজেলার বাসিন্দা সুহেল আহমদ। এছাড়া সুমন নামের আরো একজনের মৃত্যু হয়েছে তাৎক্ষণিকভাবে তার পরিচয় পাওয়া যায় নি।
পুলিশ ও প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, রাত দেড়টার দিকে দরবস্ত বাজারে ইট বোঝাই ট্রাক নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে একটি মোটর সাইকেল ওয়ার্কশপে ঢুকে যায়। এসময় ওয়ার্কশপের সামনে দাঁড়িয়ে থাকা দুইজন মোটরসাইকেল আরোহী ও ওয়ার্কশপের মেকানিক ঘটনাস্থলে মারা যান। গুরুতর আহতাবস্থায় দুইজনকে সিলেট এমএজি ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেয়ার পথে আরো একজনের মৃত্যু হয়ে। খবর পেয়ে জৈন্তাপুর মডেল থানার পুলিশ ও ফায়ার সার্ভিস-এর  সদস্যরা ঘটনাস্থলে পৌঁছে এলাকাবাসীর সহযোগিতায় নিহত ও আহতদের উদ্ধার করে।
জৈন্তাপুর থানার ওসি গোলাম দস্তগীর আহমদ এ তথ্য নিশ্চিত করে বলেন, রাত ১টা ৩০মিনিটের দিকে দরবস্ত বাজার এলাকায় মোটরসাইকেল ওয়ার্কশপের সামনে ইট বোঝাই ট্রাক একটি মোটরসাইকেলকে ধাক্কা দেয়। এতে ঘটনাস্থলে মোটরসাইকেলের দুই আরোহীসহ তিনজনের মৃত্যু হয়েছে। হাসপাতালে নেয়ার পথে আরও একজনের মৃত্যু হয়েছে। এ ঘটনার পর ঘাতক ট্রাক চালককে আটক করা হয়েছে। তিনি আরো বলেন, রোববার সকাল সাড়ে ৬টায় জৈন্তাপুরের ফেরিঘাট এলাকায় একটি বেপরোয়া ট্রাক সিএনজিচালিত অটোরিকশাকে চাপা দিলে একই পরিবারের চার নারী-শিশুসহ অটোরিকশাচালক মারা যান। ওই দুর্ঘটনার ১৯ ঘণ্টার মধ্যে ফের ট্রাক চাপায় আরও ৪ জনের মৃত্যু হলো। এ নিয়ে কয়েক ঘন্টার ব্যবধানে সিলেট-তামাবিল মহাসড়কের জৈন্তাপুর এলাকায়  ট্রাকচাপায় ৯জনের মর্মান্তিক মৃত্যু হলো।
দৌলতপুর (কুষ্টিয়া) সংবাদদাতা : কুষ্টিয়ার দৌলতপুরে ট্রলির চাপায় আবির (৮) নামে এক শিশু নিহত হয়েছে। গতকাল সোমবার দুপুর ১২টার দিকে দৌলতপুর উপজেলার চাবনাই নারানপুর গাইনপাড়ায় এ দুর্ঘটনা ঘটে। নিহত শিশু পার্শ্ববর্তী ভেড়ামারা উপজেলার কাজীহাটা গ্রামের মিল্টনের ছেলে।
পুলিশ ও স্থানীয়রা জানায়, উপজেলার হোগলবাড়িয়া ইউনিয়নের চাবনাই নারানপুর গাইনপাড়া এলাকায় রাস্তায় খেলা করার সময় দ্রুতগামী একটি স্যালো ইঞ্জিন চালিত অবৈধ ট্রলি (স্টিয়ারিং) শিশু আবিরকে চাপা দিলে ঘটনাস্থলেই তার মৃত্যু হয়। খবর পেয়ে দৌলতপুর থানা পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে নিহত শিশুর মরদেহ উদ্ধার করলেও ঘাতক ট্রলি ও ট্রলির চালককে আটক করতে পারেনি। নিহত শিশু আবির চাবনাই নারানপুর গাইনপাড়ায় তার নানা নকিম উদ্দিনের বাড়িতে বেড়াতে এসেছিল।
দুর্ঘটনার বিষয়ে দৌলতপুর থানার ওসি (তদন্ত) শাহাদত হোসেন জানান, স্টিয়ারিংয়ের চাপায় আবির নামে ৮ বছরের এক শিশু মারা গেছে। তার মরদেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য মর্গে প্রেরণ করা হয়েছে। শিশুটি নানার বাড়িতে বেড়াতে এসেছিল। তবে স্টিয়ারিং বা ন্টিয়ারিংয়ের চালককে আটক করা যায়নি।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ