সোমবার ২৭ সেপ্টেম্বর ২০২১
Online Edition

সিরিজ হারলেও অনেক ইতিবাচক দিক আছে -মুমিনুল

স্পোর্টস রিপোর্টার : শ্রীলংকার বিপক্ষে দুই ম্যাচ সিরিজের প্রথমটি ড্র করে দারুণ এক সম্ভবনা সৃষ্টি করেছিল বাংলাদেশ। দ্বিতীয় ম্যাচটা জিততে পারলে বিদেশের মাটিতে টেস্ট সিরিজ জেতা হতো টাইগারদের। কিন্তু শ্রীলংকার স্পিনে ২০৯ রানে দ্বিতীয় ম্যাচ হেরে সিরিজ খোয়ায় বাংলাদেশ। দ্বিতীয় টেস্টে টস জিতে প্রথমে ব্যাটিং করতে নেমে ৭ উইকেটে ৪৯৩ রান তুলে প্রথম ইনিংস ঘোষণা করেছিল শ্রীলংকা। পরে বাংলাদেশের প্রথম ইনিংস থামে ২৫১ রানে। শ্রীলংকা ১৯৪ রানে তুলে দ্বিতীয় ইনিংস ঘোষণা করলে ৪৩৭ রানের বড় টার্গেট দাঁড়ায় বাংলাদেশের সামনে। পরে ২২৭ রানে দ্বিতীয় ইনিংসে গুটিয়ে গিয়ে ২০৯ রানে ম্যাচ হেরেছে বাংলাদেশ। তবে সিরিজ হারলেও অতৃপ্ত নন অধিনায়ক মুমিনুল। ম্যাচ শেষে জানালেন, এই সফর থেকে অনেক ইতিবাচক দিক খুঁজে পেয়েছেন তিনি। মুমিনুল বলেন, ‘অবশ্যই প্রাপ্তির কিছু না কিছু আছে। আমরা সিরিজ হেরেছি এর মানে এই না যে সব কিছু হেরে গিয়েছি। হয়তো একটু সমালোচনা হবে, অনেকেই অনেক কথা বলবে। এর ভেতরেও অনেক ইতিবাচক দিক আছে আমার কাছে মনে হয়।’ ইতিবাচক বিষয়গুলোকে নিয়ে মুমিনুল বলেন, ‘প্রথম টেস্টে আমি যেটা সব সময় চাচ্ছিলাম যে দলগতভাবে খেলব, যেটা আমরা শেষ ২-১টি টেস্ট ম্যাচে খেলতে পারিনি। আমার কাছে মনে হয় প্রথম টেস্টে আমরা দল হিসেবে খেলতে পেরেছি। আমরা তখনই ভালো খেলি যখন আমরা দলগতভাবে খেলতে পারি। দলের সবাই যখন অবদান রাখে তখন আমরা দল হিসেবে ভালো করতে পারি।’ সিরিজ হারলেও ব্যক্তিগতভাবে ভালো করে অধিনায়কের প্রশংসা পাচ্ছেন নাজমুল হোসেন শান্ত, তামিম ইকবাল, তাইজুল ইসলাম, মুশফিকুর রহিম, লিটন কুমার দাসরা। মুমিনুল জানান,‘তামিম ভাইয়ের দুটি ৯০ আছে, একটি ৭০ আছে। শান্তর একটি ১৬৩ আছে, মুশফিক ভাই ও লিটনের হাফ সেঞ্চুরি আছে। তাইজুলের ৫ উইকেট আছে। আমার কাছে মনে হয় যেটা সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ, আপনারাও হয়তো অপেক্ষায় ছিলেন এটার কোন পেসার কি কিছু করতে পারছে কিনা, সেই হিসেবে তাসকিনকে দেখেছেন। আগের চেয়ে অনেক ভালো এখন। অনেক উন্নতি করেছে। আমার কাছে মনে হয় অনেক ইতিবাচক দিক আছে এই টেস্ট সিরিজে।’ প্রথম টেস্টের পিচ ব্যাটিং সহায়ক থাকলেও দ্বিতীয় টেস্টের উইকেট ছিল অন্য রকম। তৃতীয় দিন থেকে দারুণ টার্ন পেয়েছেন স্পিনাররা। তবে প্রথম দুই দিনের উইকেট ছিল ব্যাটিং সহায়ক। এই সুযোগ কাজে লাগিয়ে টস জিতে প্রথমে ব্যাটিং করতে নামা শ্রীলংকা প্রথম ইনিংসে রানের পাহাড় গড়ে। সেখানেই পিছিয়ে পড়েছিল বাংলাদেশ বলে মনে করেন মুমিমুল। আধিনায়ক বলেন, ‘আমার মনে হয় এই টেস্ট ম্যাচে সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ বিষয় ছিল টস। দেখুন, প্রথম ২ দিনে কিন্তু উইকেটে বোলারদের জন্য কোনো সুবিধা ছিল না। আমার মনে হয়েছে, এই ম্যাচটার ৫০ শতাংশ ফলাফল টসের সময়েই নির্ধারণ হয়ে গিয়েছিল। কন্ডিশন অনেকটা একই। পার্থক্য শুধু এখানে আর্দ্রতা একটু বেশি। দেখতে অনেকটা একই রকম ছিল (উইকেট প্রথম টেস্টের মত)। আপনি যেটা বললেন একজন বাড়তি স্পিনার কম খেলিয়েছে কিনা... আমি যদি আগে ব্যাটিং করতাম তখন দেখতেন যে গল্পটা ভিন্নরকম হত। ওরা হয়তো আমাদের জায়গায় থাকতো। আমরা ওদের জায়গায় থাকতাম। আর এসব উইকেটে খুব বেশি স্পিনারও লাগেনা যেটা আমার কাছে মনে হয়েছে। তো আমাদের তো দুজন খুব ভালো মানের স্পিনার ছিল, আমার মনে হয়না আরেকটা স্পিনার লাগতো। দুই স্পিনারই আমার মনে হয় যথেষ্ট।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ