শনিবার ১৮ সেপ্টেম্বর ২০২১
Online Edition

মুফতি হারুন ইজহারের মুক্তির দাবি জানিয়েছে জমিয়াতুল উলুম

হেফাজতে ইসলাম বাংলাদেশ এর নেতা, বিশিষ্ট লেখক-সম্পাদক, ইসলামী স্কলার ও তরুণ আলেম মুফতি হারুন ইজহারকে অবিলম্বে নিঃশর্ত মুক্তির দাবি জানিয়েছেন জামিয়াতুল উলুম আল-ইসলামিয়া কর্তৃপক্ষ। মাদরাসা কর্তৃপক্ষ জানান, পবিত্র রমজান মাসে আলেম-ওলামাদের অযথা হয়রানি, গ্রেফতার ও নির্যাতন করা থেকে বিরত থাকতে সরকারের প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন। মাদরাসা কর্তৃপক্ষ বলেছেন, আলেম-ওলামাদের নির্যাতন-নিপীড়নের পরিণাম শুভ হবে না।

তারা বলেন, মিথ্যা ও হয়রানিমূলক সাজানো মামলায় পবিত্র রমজান মাসে অসংখ্য নিরীহ নিরপরাধ আলেম-ওলামা ও মুসলিমদের গ্রেফতার করে হয়রানি ও নির্যাতন করা হচ্ছে। এভাবে আলেমদের হয়রানি করলে দেশের সাধারণ ধর্মপ্রাণ তৌহিদী জনতা লকডাউন উপেক্ষা করে আলেমদের মুক্তি ও মিথ্যা মামলা এবং হয়রানির বিরুদ্ধে রাজপথে নামতে বাধ্য হবে।

গত বৃহস্পতিবার এক বিবৃতিতে মাদরাসা কর্তৃপক্ষ আরো জানান, দেশের আলেম-ওলামাদের বিরুদ্ধে যেভাবে মিথ্যাচার ও মানহানিকর আচরণ করা হচ্ছে, এতে মনে হচ্ছে আলেম-ওলামারা কোনো ভিন্ন দেশের নাগরিক। বর্তমান একদলীয় সরকার আইন-শৃঙ্খলাবাহিনী ও সিভিল প্রশাসনকে নগ্ন ভাবে ব্যবহার করে বিরোধী মত ও পথের নেতা-কর্মীদের ফ্যাসীবাদী কায়দায় ঘায়েল করতে গিয়ে দেশটাকে একটি মৃত্যুপুরীতে পরিণত করছে।’ একটি মিথ্যা মামলায় জড়িয়ে মুফতি হারুনকে সরকার অন্যায়ভাবে আটক করেছে। মুফতি হারুন ইজহার জ¦ালাও পোড়াও আন্দোলনে ছিল না। তিনি বুদ্ধিভিত্তিক একজন আলোচক, গবেষক লেখক ও ইসলামী স্কলার। অবিলম্বে তার মুক্তির দাবী জানান। 

শুধুমাত্র মানবিক কারণে মুফতি হারুন ইজহার চট্টগ্রাম মেডিকেলে কলেজ হাসপাতালে আহত চিকিৎসারত ছাত্রদের দেখতে যান। একজন ইসলামী স্কলার ও ভারত বিরোধী আলেমকে দমানোর জন্য ষড়যন্ত্র ছাড়া আর কিছু নয়। তাকে গ্রেফতার করে বিভিন্ন ধরনের গায়েবী মামলা দিয়ে হয়রানি শুভ হবে না। আমরা-এর তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানাচ্ছি এবং অবিলম্বে হারুন ইজহারের মুক্তি দাবী জানাচ্ছি। তাকে আটকের সময় তাঁর অবুঝ শিশু-সন্তানদের লাথি-কিল-ঘুষি মেরেছে।

তারা হেফাজতে ইসলামের নেতা মুফতি হারুন ইজহারসহ সারাদেশের বিভিন্ন অঞ্চল থেকে গ্রেফতারকৃত আলেম-ওলামা ও নেতাকর্মীদের অবিলম্বে নিঃশর্ত মুক্তির দাবি জানান। অন্যথায় দেশের নবীপ্রেমিক জনতাকে সাথে নিয়ে ইসলামবিদ্বেষী জালিমদের বিরুদ্ধে দুর্বার আন্দোলন গড়ে তুলতে আলেম সমাজ প্রস্তুত রয়েছে। প্রেসবিজ্ঞপ্তি।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ