বৃহস্পতিবার ২৩ সেপ্টেম্বর ২০২১
Online Edition

করুনারত্নে-থিরিমান্নের জোড়া সেঞ্চুরিতে প্রথম দিনটি শ্রীলংকার

স্পোর্টস রিপোর্টার : শ্রীলংকার দুই ওপেনারের জোড়া সেঞ্চুরিতে বাংলাদেশের বিপক্ষে শেষ টেস্টের প্রথম দিনটি নিজেদের করে রাখলো শ্রীলংকা। অধিনায়ক দিমুথ করুনারতেœ ও লাহিরু থিরিমান্নের সেঞ্চুরিতে প্রথম দিন শেষে ১ উইকেটে ২৯১ রান করেছে লংকানরা। করুনারতেœ ১১৮ রান করে আউট হলেও ১৩১ রানে অপরাজিত আছেন থিরিমান্নে। আজ দ্বিতীয় দিনে হাতে ৯ উইকেট নিয়ে ব্যাট করতে নামবে শ্রীলংকা। ক্যান্ডির পাল্লেকেলে স্টেডিয়ামে ম্যাচে টস জিতে প্রথমে ব্যাট করতে নামে শ্রীলংকা। ব্যাট হাতে দলকে ভালো শুরু এনে দেন শ্রীংকার দুই ওপেনার দিমুথ করুনারত্নে ও লাহিরু থিরিমান্নে। অবশ্য এই জটি ভাঙ্গার ভালো সুযোগ পেয়েছিলো বাংলাদেশ। বাংলাদেশের পেসার তাসকিন আহমেদের করা ২০তম ওভারের শেষ বলে স্লিপে করুনারত্নের ক্যাচ ফেলেন নাজমুল হোসেন শান্ত। এতে ২৮ রানে জীবন পান করুনারত্নে। জীবন পেয়ে প্রথম সেশন বিপদ ছাড়া পার করেন করুনারত্নে ও থিরিমান্নে। এসময় শ্রীলংকার রান ছিলো বিনা উইকেটে ৬৬ রান। বিরতি থেকে হাফ- সঞ্চুরি করেন করুনারত্নে। হাফ- সেঞ্চুরির দেখা পান থিরিমান্নেও। দুই ওপেনারের জোড়া হাফ-সেঞ্চুরিতে বাংলাদেশ বোলারদের উপর আধিপত্য বিস্তার করে খেলছিলো শ্রীলংকা। দ্বিতীয় সেশনে টেস্ট ক্যারিয়ারে ১২তম সেঞ্চুরি তুলে নেন করুনারত্নে। বাংলাদেশের বিপক্ষে তৃতীয় সেঞ্চুরি করতে ১৬৫তম বল খেলেন তিনি। সিরিজের প্রথম টেস্টে ২৪৪ রান করেছিলেন লংকান অধিনায়ক। করুনারত্নের সেঞ্চুরি ও থিরিমান্নের ৮০ রানের সুবাদে প্রথম দিনের দ্বিতীয় সেশনটিও নিজেদের করে শ্রীলংকা। চা-বিরতির আগ পর্যন্ত ৫৮ ওভারে বিনা উইকেটে ১৮৮ রান করে লংকানরা। তবে তৃতীয়  সশনে ষষ্ঠ ওভারে সাফল্য পেয়ে যায় বাংলাদেশ। অভিষেক ম্যাচ খেলতে নামা শরিফুলই বাংলাদেশকে প্রথম সাফল্য এনে দেন। ইনিংসের ৬৪তম ও নিজের ১২তম ওভারের প্রথম ডেলিভারিতে শ্রীলংকার অধিনায়ককে থামান শরিফুল। উইকেটের পেছনে ক্যাচ দেন করুনারত্নে। ১৯০ বলে ১৫টি চারে ১১৮ রান করেন করুনারত্নে। এতে ২০৯ রানে প্রথম উইকেট হারায় শ্রীলংকা। এরপর ক্রিজে থিরিমান্নের সঙ্গী হন ওশাদা ফার্নান্দো। ওশাদাকে নিয়ে ৪২ ম্যাচের টেস্ট ক্যারিয়ারে তৃতীয় সেঞ্চুরির দেখা পান থিরিমান্নে। এরমধ্যে বাংলাদেশের বিপক্ষেই ২টি সেঞ্চুরি করেছেন থিরিমান্নে। ২১২ বলে সেঞ্চুরি পূর্ণ করার পর, দিনের শেষ পর্যন্ত খেলেছেন থিরিমান্নে। ওশাদার সাথে অবিচ্ছিন্ন ৮২ রান যোগ করেছেন তিনি। ২৫৩ বলে ১৪টি চারে ১৩১ রানে অপরাজিত থিরিমান্নে। ৯৮ বলে ৪টি চারে ৪০ রানে অপরাজিত ওশাদা। বাংলাদেশের শরিফুল ১৬ ওভারে ৫২ রান দিয়ে ১ উইকেট নিয়েছেন। অন্য চার বোলার আবু জায়েদ-তাসকিন-মেহেদি হাসান মিরাজ ও তাইজুল ইসলাম উইকেটের দেখা পাননি। এই ম্যাচে একাদশে একটি পরিবর্তন আনে বাংলাদেশ। পেসার এবাদত হোসেন চৌধুরির পরিবর্তে দলের সুযোগ পান বাঁ-হাতি পেসার শরিফুল ইসলাম। এ ম্যাচ দিয়ে টেস্ট ক্রিকেটে অভিষেক হচ্ছে তার।

সংক্ষিপ্ত স্কোর:

শ্রীলঙ্কা ১ম ইনিংস: ৯০ ওভারে ২৯১/১ (করুনারত্নে ১১৮, থিরিমান্নে ১৩১*, ওশাদা ৪০*; আবু জায়েদ ১৬-৩-৪৭-০, তাসকিন ১৭-৩-৬৯-০, মিরাজ ২২-৪-৬৭-০, শরিফুল ১৬-৩-৫২-১।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ