রবিবার ২০ জুন ২০২১
Online Edition

শিবির করার অযুহাতে যুবককে মারধরের ঘটনার নিন্দা জামায়াতের

পটুুয়াখালীতে মাহমুদ হাসান রায়হান নামে একজন স্বেচ্ছাসেবক যুবককে শিবির করার অযুহাতে মারধরের ঘটনার নিন্দা জানিয়ে বাংলাদেশ জামায়াতে ইসলামীর কেন্দ্রীয় নির্বাহী পরিষদ সদস্য ও কেন্দ্রীয় প্রচার সেক্রেটারি মতিউর রহমান আকন্দ গতকাল বুধবার প্রদত্ত এক বিবৃতিতে বলেন, ২০ এপ্রিল পটুয়াখালী সার্কিট হাউজ এলাকায় লকডাউনের এই করোনাকালীন শ্রমজীবী মানুষের মাঝে ইফতার সামগ্রী বিতরণ করছিলেন মাহমুদ হাসান রায়হানসহ কয়েকজন স্বেচ্ছাসেবী। এ সময় কোনো কারণ ছাড়াই তাদের উপর চড়াও হয় স্থানীয় আওয়ামী লীগের দলীয় নেতা-কর্মীরা এবং মাহমুদ হাসান রায়হানকে ব্যাপক মারধর করা হয়। আমরা এ ন্যক্কারজনক ঘটনার নিন্দা জানাচ্ছি।
তিনি বলেন, করোনার এই দুঃসময়ে অসহায় মানুষের পাশে দাঁড়ানো প্রত্যেকের নৈতিক দায়িত্ব। আর সে দৃষ্টিকোণ থেকেই এ সকল যুবক সাধারণ মানুষের পাশে দাঁড়ানোর চেষ্টা করেছে। নিঃসন্দেহে এটি একটি ভালো উদ্যোগ। এ সকল ভালো কাজের বিরুদ্ধে যারা প্রতিবন্ধকতা সৃষ্টি করে তারা আসলে কারা এবং তারা কি চায়?
তিনি আরো বলেন, আমরা দেখতে পাচ্ছি যখনই কেউ কোনো ভালো কাজের উদ্যোগ নিয়ে অসহায় মানুষের পাশে দাঁড়ানোর চেষ্টা করছে, তখনই একশ্রেণীর লোকজন তাদেরকে বাধা দিচ্ছে। এমনকি আইন নিজের হাতে তুলে নিয়ে তাদেরকে মারধর করে পুলিশের নিকট তুলে দিচ্ছে। কাউকে শিবির আখ্যা দিয়ে তার উপর হামলা করা ছাত্রলীগ-যুবলীগের বদ অভ্যাসে পরিণত হয়েছে। কোনো ব্যক্তি শিবির করলেই তার উপর হামলা চালাতে হবে কেন? এটি একটি স্বাধীন দেশের নাগরিক হিসেবে আমাদের জন্য অত্যন্ত লজ্জাজনক।
তিনি আরো বলেন, ইসলামী ছাত্রশিবির এদেশের একটি বৈধ ছাত্র সংগঠন। ছাত্রশিবির করলেই সে কোনো জনকল্যাণমূলক কাজ করতে পারবে না এটি কোনো সুস্থ মস্তিষ্কের চিন্তা হতে পারে না। এটি দেশের প্রচলিত আইন ও সংবিধান বিরোধী। ইসলামী ছাত্রশিবির এদেশের ছাত্র সমাজের নৈতিক চরিত্র গঠনে নিরলসভাবে কাজ করে যাচ্ছে। ছাত্র সমাজের সমস্যা সমাধানে এবং মানুষের কল্যাণে ঐতিহাসিক ভূমিকা পালন করে আসছে ছাত্রশিবির। আর এই ভূমিকা পালনের কারণেই ছাত্রশিবির সাধারণ মানুষের প্রিয় সংগঠনে পরিণত হয়েছে। ছাত্রশিবিরের জনপ্রিয়তায় ঈর্ষান্বিত হয়েই একশ্রেণীর লোকজন ছাত্রশিবিরের বিরোধিতা করছে এবং শিবিরের বিরুদ্ধে প্রচার-প্রোপাগান্ডা চালাচ্ছে। তাদের এ প্রচেষ্টা কখনো সফল হবে না। তারা ক্রমেই জনবিচ্ছিন্ন হয়ে পড়ছে। পটুয়াখালীতে যুবককে মারধরের ঘটনার সুষ্ঠু ও নিরপেক্ষ তদন্ত করে দোষী ব্যক্তিদের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করার জন্য আমি সংশ্লিষ্ট মহলের প্রতি আহ্বান জানাচ্ছি। প্রেস বিজ্ঞপ্তি।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ