রবিবার ২০ জুন ২০২১
Online Edition

হেফাজত নেতা জুনায়েদ আল হাবিব জালাল উদ্দিন ও আজিজুল রিমান্ডে

স্টাফ রিপোর্টার: হেফাজতে ইসলামের কেন্দ্রীয় তিন নেতাকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য রিমান্ডে নিয়েছে পুলিশ। গতকাল রোববার পৃথকভাবে রিমান্ডে নেয়া তিনজন হলেন- মাওলানা জুনায়েদ আল হাবিব, মাওলানা জালাল উদ্দিন ও মাওলানা আজিজুল হক ইসলামাবাদী।
জুনায়েদ আল হাবিব সাত দিনের রিমান্ড: পুলিশ ও আদালত সূত্রে জানা গেছে, ২০১৩ সালে হেফাজতে ইসলামের সাথে সংঘর্ষের ঘটনায় করা মামলায় সংগঠনটির কেন্দ্রীয় যুগ্ম-মহাসচিব ও ঢাকা মহানগরের সভাপতি আল্লামা জুনায়েদ আল হাবিবের সাত দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেছেন আদালত। গতকাল তাকে ঢাকা মহানগর হাকিম আদালতে হাজির করে পুলিশ। ২০১৩ সালে পল্টন থানায় হেফাজতের তাণ্ডবের ঘটনায় করা মামলার সুষ্ঠু তদন্তের জন্য তাকে ১০ দিনের রিমান্ডে নিতে আবেদন করে পুলিশ। শুনানি শেষে ঢাকা মহানগর হাকিম শাহিনুর রহমান তার সাত দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেন। শনিবার জুনায়েদ আল হাবিবকে রাজধানীর বারিধারা থেকে গ্রেফতার করা হয়।
জালাল উদ্দিন সাত দিনের রিমান্ডে: ২০১৩ সালে হেফাজতের তাণ্ডবের ঘটনায় করা মামলায় হেফাজতে ইসলামের কেন্দ্রীয় কমিটির সহকারী মহাসচিব ও বাংলাদেশ খেলাফত মজলিসের যুগ্ম মহাসচিব মাওলানা জালাল উদ্দিনের সাত দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেছেন আদালত। গতকাল রোববার তাকে ঢাকা মহানগর হাকিম আদালতে হাজির করে পুলিশ। ২০১৩ সালে পল্টন থানায় হেফাজতের তাণ্ডবের ঘটনায় করা মামলার সুষ্ঠু তদন্তের জন্য তাকে ১০ দিনের রিমান্ডে নিতে আবেদন করে পুলিশ। শুনানি শেষে ঢাকা মহানগর হাকিম শাহিনুর রহমান তার সাত দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেন। এরআগে শনিবার মাওলানা জালাল উদ্দিনকে ডিবির একটি টিম রাজধানীর মোহাম্মদপুর থেকে গ্রেফতার করে।
আজিজুল হক ফের সাত দিনের রিমান্ডে: ২০১৩ সালে হেফাজতের সঙ্গে সংঘর্ষের ঘটনায় মতিঝিল থানায় করা মামলায় হেফাজতে ইসলামের কেন্দ্রীয় সাংগঠনিক সম্পাদক আজিজুল হক ইসলামাবাদীর আবারও সাত দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেছেন আদালত। গতকাল ঢাকা মহানগর হাকিম শাহিনুর রহমান শুনানি শেষে এ রিমান্ড মঞ্জুর করেন। এদিন পল্টন থানায় করা মামলায় সাত দিনের রিমান্ড শেষে তাকে আদালতে হাজির করে পুলিশ। এ সময় মামলার তদন্ত শেষ না হওয়া পর্যন্ত তাকে কারাগারে আটক রাখার আবেদন করেন মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা। অন্যদিকে তার আইনজীবী জামিনের আবেদন করেন। উভয়পক্ষের শুনানি শেষে ঢাকা মহানগর হাকিম শাহিনুর রহমান তার জামিন নামঞ্জুর করে কারাগারে পাঠানোর আদেশ দেন। এদিকে ২০১৩ সালে হেফাজতের তাণ্ডবে ঘটনায় মতিঝিল থানায় করা মামলায় তাকে গ্রেফতার দেখানোর পূর্বক ১০ দিনের রিমান্ড আবেদন করেন পুলিশ। শুনানি শেষে ঢাকা মহানগর হাকিম শাহিনুর রহমান তার সাত দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেন।
এর আগে ১২ এপ্রিল তাকে ঢাকা মহানগর হাকিম আদালতে হাজির করে পুলিশ। এ সময় ২০১৩ সালে পল্টন থানায় করা মামলার সুষ্ঠু তদন্তের জন্য তাকে ১০ দিনের রিমান্ডে নিতে আবেদন করে পুলিশ। শুনানি শেষে ঢাকা মহানগর হাকিম দেবদাস চন্দ্র অধিকারী সাত দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেন। ১১ এপ্রিল ঢাকা মহানগর পুলিশের (ডিএমপি) গোয়েন্দা বিভাগ (ডিবি) ও র‌্যাপিড অ্যাকশন ব্যাটালিয়নের (র‌্যাব) যৌথ অভিযানে তাকে গ্রেফতার করা হয়।
উল্লেখ্য, ২০১৩ সালের ৫ মে ঢাকা অবরোধ করে হেফাজতে ইসলামের নেতাকর্মীরা। এ অবরোধ কর্মসূচির নামে লাঠিসোটা, ধারালো অস্ত্র ও আগ্নেয়াস্ত্র নিয়ে রাজধানীর মতিঝিল, পল্টন ও আরামবাগসহ আশপাশের এলাকায় যানবাহন ও সরকারি-বেসরকারি স্থাপনায় ব্যাপক ভাঙচুর ও অগ্নিসংযোগ করে হেফাজতের কর্মীরা। এ ঘটনায় পল্টন ও মতিঝিল থানায় পৃথক মামলা করা হয়।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ