শুক্রবার ১৮ জুন ২০২১
Online Edition

হেফাজত নেতা মুফতি শরিফউল্লাহ কারাগারে

স্টাফ রিপোর্টার: রাজধানীর যাত্রাবাড়ী থানায় ২০১৩ সালের এক মামলায় হেফাজতে ইসলামের কেন্দ্রীয় সহ-প্রচার সম্পাদক মুফতি শরিফউল্লাহর জামিন নামঞ্জুর করে কারাগারে পাঠানোর আদেশ দিয়েছেন আদালত। গতকাল শুক্রবার এক দিনের রিমান্ড শেষে তাকে আদালতে হাজির করে পুলিশ। এ সময় মামলার তদন্ত শেষ না হওয়া পর্যন্ত তাকে কারাগারে আটক রাখার আবেদন করেন মামলার তদন্ত কর্মকর্তা। অপরদিকে তার আইনজীবী জামিনের আবেদন করেন। উভয়পক্ষের শুনানি শেষে ঢাকা মহানগর হাকিম বেগম ইয়াসমিন আরা তার জামিন না মঞ্জুর করে কারাগারে পাঠানোর আদেশ দেন।
এর আগে গত বুধবার তাকে ঢাকা মহানগর হাকিম আদালতে হাজির করা হয়। এ সময় পুলিশকে হত্যার উদ্দেশ্যে করা বিশেষ ক্ষমতা আইনের মামলায় সুষ্ঠু তদন্তের জন্য তাকে সাত দিনের রিমান্ডে নিতে আবেদন করেন যাত্রাবাড়ী থানার পরিদর্শক আয়ান মাহমুদ। শুনানি শেষে ঢাকা মহানগর হাকিম আবু সাঈদ তার এক দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেন। গত মঙ্গলবার সন্ধ্যায় যাত্রাবাড়ীর মীর হাজিরবাগ এলাকা থেকে তাকে গ্রেফতার করে ডিএমপির গোয়েন্দা (ডিবি) ওয়ারী বিভাগ।
উল্লেখ্য, ২০১৩ সালের ৫ মে ঢাকা অবরোধ করে হেফাজতে ইসলামের নেতাকর্মীরা। পুলিশ জানায়, পরের দিন ৬ মে ভোর ৫টা ৫ মিনিটের দিকে হেফাজত নেতাকর্মীরা যাত্রাবাড়ী থানার ডব্লিউ জেট ফিলিং স্টেশনের বিপরীত দিকে রাস্তার ওপর কদমতলী থানার কাজে ব্যবহৃত ঢাকা মেট্র-ঠ- ১৪-১৭০৫ পুলিশ পিকাপে অগ্নিসংযোগ করে পুলিশের ওপর ইট পাটকেল নিক্ষেপ করে পালিয়ে যায়। পরে ওই দিন সকাল ৯ টার দিকে যাত্রাবাড়ী থানার রায়েরবাগস্থ ইউনাইটেড পেট্রোল পাম্পের সামনে পৌঁছা মাত্রই আসামি শরীফুল্লাহসহ অন্য আরও ৪০০/৫০০ জন দুষ্কৃতকারী হঠাৎ করে ট্রাকটির ওপর বেআইনিভাবে মারমুখী হয়ে গাড়ির ওপর হামলা চালিয়ে ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতি করে এবং গাড়িতে অবস্থানকারী ফোর্সদের হত্যার উদ্দেশ্যে ইট-পাথর, লোহার রড, পাইপ ইত্যাদি দিয়ে আঘাতের চেষ্টা করে। এ সময় পুলিশ সদস্যরা পালিয়ে প্রাণ রক্ষা করেন। এ ঘটনায় বিশেষ ক্ষমতা আইনে যাত্রাবাড়ী থানায় একটি মামলা হয়। মামলায় এজাহারনামীয় আসামি মুফতি শরিফউল্লাহ।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ