শুক্রবার ২৪ সেপ্টেম্বর ২০২১
Online Edition

এখন থেকে সাইবার অপরাধের বিচার হবে দেশের ৮ বিভাগে

মিয়া হোসেন : ডিজিটাল নিরাপত্তা ও পর্ণোগ্রাফি আইনে অপরাধের জন্য এতদিন বিচার হতো শুধুমাত্র ঢাকায় স্থাপিত সাইবার ট্রাইব্যুনালে। সরকার গত সপ্তাহে দেশের আরো ৭টি বিভাগীয় শহরে নতুন ৭টি ট্রাইব্যুনাল গঠন করেছে এবং ওইসব ট্রাইব্যুনালের বিচারিক এখতিয়ার সম্পন্ন এলাকাও ঘোষণা করেছে সরকার। ফলে এখন থেকে দেশের ৮বিভাগে স্থাপিত ৮টি সাইবার ট্রাইব্যুনালেই বিচারিক কাজ পরিচালিত হবে। এতদিন ঢাকায় স্থাপিত ট্রাইব্যুনালে সারাদেশের বিচার কাজ পরিচালিত হতো। আগামী ৩০ কার্যদিবসের মধ্যে বিচারচলমান মামলাগুলো সংশ্লিষ্ট ট্রাইব্যুনালে বদলী হবে এবং মামলাগুলোর বিচার যে পর্যায়ে আছে সেখান থেকেই পরবর্তী বিচার শুরু হবে।
গত ৫ এপ্রিল আইন, বিচার ও সংসদ বিষয়ক মন্ত্রণালয় প্রকাশিত গেজেটে বলা হয়, তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি আইনের ক্ষমতাবলে সরকার এই আইনের অধীনে সংঘটিত অপরাধের দ্রুত ও কার্যকর বিচারের জন্য সাইবার ট্রাইব্যুনাল গঠন করেছে। ঢাকা, চট্টগ্রাম, রাজশাহী, খুলনা, বরিশাল, সিলেট, রংপুর ও ময়মনসিংহে একটি করে সাইবার ট্রাইব্যুনাল গঠন করে সেগুলোর অধিক্ষেত্র নির্ধারণ করে দেয়া হয়েছে।
ঢাকা বিভাগের সাইবার ট্রাইব্যুনালে ঢাকা, নরসিংদী, গাজীপুর, শরীয়তপুর, নারায়ণগঞ্জ, টাঙ্গাইল, কিশোরগঞ্জ, মানিকগঞ্জ, মুন্সিগঞ্জ, রাজবাড়ী, মাদারীপুর, ফরিদপুর ও গোপালগঞ্জ জেলার তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি সংক্রান্ত অপরাধের বিচার হবে।
নতুন করে সাইবার ট্রাইব্যুনাল গঠনের আগে ঢাকার সাইবার ট্রাইব্যুনালে বিচারাধীন মামলার স্থানীয় অধিক্ষেত্র যথা- ঢাকা, নরসিংদী, গাজীপুর, শরীয়তপুর, নারায়ণগঞ্জ, টাঙ্গাইল, কিশোরগঞ্জ, মানিকগঞ্জ, মুন্সিগঞ্জ, রাজবাড়ী, মাদারীপুর, ফরিদপুর ও গোপালগঞ্জ জেলার মামলা ছাড়া অন্যসব মামলা এই প্রজ্ঞাপন জারির ৩০ কার্যদিবসের মধ্যে স্থানীয় অধিক্ষেত্রসম্পন্ন সাইবার ট্রাইব্যুনালে স্থানান্তরিত হবে।
গেজেটে বলা হয়, স্থানান্তরিত কোনো মামলা বিচারের ক্ষেত্রে মামলাটি যে পর্যায় থেকে ট্রাইব্যুনালে স্থানান্তরিত হবে, ট্রাইব্যুনালে সে পর্যায় থেকেই বিচার শুরু হবে।
রাজশাহীর সাইবার ট্রাইব্যুনালের আওতায় রাখা হয়েছে রাজশাহী, সিরাজগঞ্জ, পাবনা, বগুড়া, নাটোর, জয়পুরহাট, চাঁপাইনবাবগঞ্জ ও নওগাঁ জেলাকে।
চট্টগ্রাম, কুমিল্লা, ব্রাহ্মণবাড়িয়া, চাঁদপুর, লক্ষ্মীপুর, নোয়াখালী, ফেনী, কক্সবাজার, বান্দরবান, রাঙ্গামাটি ও খাগড়াছড়ি জেলার আইসিটির অপরাধের বিচার হবে চট্টগ্রামের সাইবার ট্রাইব্যুনালে।
খুলনার সাইবার ট্রাইব্যুনালের অধীনে থাকবে খুলনা, যশোর, বাগেরহাট, সাতক্ষীরা, মেহেরপুর, নড়াইল, চুয়াডাঙ্গা, কুষ্টিয়া, মাগুরা ও ঝিনাইদহ জেলা।
বরিশাল, ঝালকাঠি, পটুয়াখালী, পিরোজপুর, বরগুনা ও ভোলা জেলা থাকবে বরিশালের সাইবার ট্রাইব্যুনালের আওতায়। আর সিলেটের সাইবার ট্রাইব্যুনালের রাখা হয়েছে সিলেট, মৌলভীবাজার, হবিগঞ্জ ও সুনামগঞ্জ জেলাকে।
রংপুর, দিনাজপুর, কুড়িগ্রাম, নীলফামারী, লালমনিরহাট, গাইবান্ধা, ঠাকুরগাঁও ও পঞ্চগড় জেলাকে রংপুরের সাইবার ট্রাইব্যুনালের অধীনে রাখা রয়েছে।
আর ময়মনসিংহ, শেরপুর, জামালপুর ও নেত্রকোণা জেলার তথ্যপ্রযুক্তি সংক্রান্ত অপরাধের বিচার হবে ময়মনসিংহের সাইবার ট্রাইব্যুনালে।
তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি আইনের অধীনে ২০১৩ সালের ২৮ জানুয়ারি ঢাকায় সাইবার ট্রাইব্যুনাল গঠন করা হয়। এখন নতুন করে সব বিভাগে এই ট্রাইব্যুনাল গঠন করায় সেই প্রজ্ঞাপন বাতিল করা হয়েছে।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ