শুক্রবার ০৭ মে ২০২১
Online Edition

‘গোড়ায় গলদে’ উপড়ে গেলো সোয়া  ৫ কোটি টাকার ‘প্রজাপতি বাতি’

রাজশাহী অফিস: মওসুমের প্রথম কালবৈশাখী ঝড়ে রাজশাহী মহানগরীর বাইপাস সড়কের ডিভাইডারে বসানো শখের ‘প্রজাপতি বাতি’ অন্তত ৮৬টি খুঁটি ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। এর মধ্যে ৪০টি খুঁটি মাটি স্পর্শ করে। আর ৪৬টি খুঁটি হেলে পড়ে। একে অনেকেই ‘গোড়ায় গলদ’ বলে আখ্যা দেন।

রোববার বিকেলে এই ঝড়ের সময় বাতাসের গতিবেগ ছিল ৬৫ কিলোমিটার। এতে নগরীর বিলশিমলা-কাশিয়াডাঙ্গা সড়কে এ ঘটনা ঘটে। মাত্র তিন মাস আগেই বাতিগুলো বসানো হয়। খুঁটিগুলোর উপরের অংশে প্রজাপতির মতো ডানা মেলে থাকা দুইপাশে দুটি করে এলইডি বাতি লাগানো হয়। এ কারণে সড়কটি রাজশাহীর ‘প্রজাপতি সড়ক’ নামে পরিচিতি পায়। রাজশাহী সিটি কর্পোরেশনের (রাসিক) বিদ্যুৎ বিভাগ ‘হ্যারো ইঞ্জিনিয়ারিং’ নামে একটি ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠানের মাধ্যমে এই প্রকল্পটি বাস্তবায়ন করে। এতে ব্যয় হয় ৫ কোটি ২২ লাখ টাকা। সড়কবাতির খুঁটি ও বাতি চীন থেকে আনা হয়। গত ২৭ জানুয়ারি সড়কবাতিগুলোর আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন করেন রাসিক মেয়র এএইচএম খায়রুজ্জামান লিটন। উদ্বোধনের তিন মাস পরই প্রথম ঝড়ে সড়কবাতিগুলো এভাবে পড়ে যাওয়ায় ক্ষোভ প্রকাশ করেন নগরবাসী। তারা বলছেন, ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠানের দুর্নীতি এবং গাফিলতির কারণে এমন ঘটনা ঘটলো। স্থানীয়রা জানান, রোববার বিকেল ৪টার দিকে হড়মড় শব্দ করে খুঁটিগুলো সড়কের আইল্যান্ডের ওপর পড়তে থাকে। সড়কের আইল্যান্ডে না পড়ে সড়কে পড়লে অনেক মানুষের হতাহতের ঘটনা ঘটতো।

এদিন রোববার বিকাল ৩টা ৫৫ মিনিটে ধুলিঝড় শুরু হয়। স্থায়ী হয় ৪টা ২৫ মিনিট পর্যন্ত। তবে নগরীর অন্যান্য এলাকায় বিকাল সাড়ে ৫টা পর্যন্ত দমকা হাওয়া বইতে থাকে। ঝড়ের সময় বাতাসের গতিবেগ ছিল ঘণ্টায় ৬৫ কিলোমিটার। ঝড়ে নগরীর অনেক বাড়ির টিনের চালা উড়ে যায়। আমের কড়ালি প্রচুর পরিমাণে ঝরে পড়ে। তবে হতাহতের কোনো খবর পাওয়া যায়নি।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ