শুক্রবার ১৮ জুন ২০২১
Online Edition

ঢাকা-জলপাইগুড়ি ট্রেনের প্রস্তাবিত নাম মিতালী এক্সপ্রেস

স্টাফ রিপোর্টার: বাংলাদেশ ও ভারতের মধ্যে আরও একটি ট্রেন সার্ভিস চালু হতে যাচ্ছে। আগামী ২৭ মার্চ ঢাকা থেকে ভারতের নিউ জলপাইগুড়ি পর্যন্ত ট্রেনের উদ্বোধন করা হবে। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ঢাকা থেকে নিউ জলপাইগুড়ি পর্যন্ত ট্রেনটির নাম দিয়েছেন মিতালী এক্সপ্রেস। ভারতের আপত্তি না থাকলে এই নামটিই চূড়ান্ত হবে বলে রেলওয়ে কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে। ট্রেনটি উভয় দেশ থেকে সপ্তাহে দুই দিন করে চলাচল করবে। বাংলাদেশ থেকে সোমবার এবং বৃহ¯পতিবার ট্রেনটি যাত্রা করবে। অন্যদিকে ভারত থেকে রোববার ও বুধবার যাত্রার প্রস্তাব করা হয়েছে। রেলওয়ে মন্ত্রণালয়ের সিনিয়র তথ্য কর্মকর্তা শরিফুল আলম গণমাধ্যমকে এ তথ্য নিশ্চিত করেন।
রেলওয়ে সূত্র বলছে, রেলওয়ের পক্ষ থেকে গত রোববার নতুন ট্রেনের প্রস্তাবিত নাম জানানো হয়। সব কিছু ঠিক থাকলে আগামী ২৭ মার্চ বাংলাদেশ-ভারত দুই দেশের প্রধানমন্ত্রীর এই ট্রেনটি উদ্বোধন করার কথা রয়েছে। জানা গেছে, ট্রেনটি উভয় দেশ থেকে সপ্তাহে দুই দিন করে চলাচল করবে। বাংলাদেশ থেকে সোমবার এবং বৃহস্পতিবার ট্রেনটি যাত্রা করবে। অন্যদিকে ভারত থেকে রোববার ও বুধবার যাত্রার প্রস্তাব করা হয়েছে। গতকাল সোমবার সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা যায়, বাংলাদেশে সুর্বণজয়ন্তীর স্বাধীনতার ৫০ বছরে আগামী ২৭ মার্চ বাংলাদেশ ও ভারতের প্রধানমন্ত্রীর উপস্থিতিতে এ ট্রেনটির আনুষ্ঠানিক উদ্ধোধনের কথা রয়েছে।
সংশ্লিষ্ট সূত্র জানায়, প্রস্তাবিত সিদ্ধান্ত অনুযায়ী ঢাকা ক্যান্টনমেন্ট থেকে ভারতের নিউ জলপাইগুড়ি রুটে নতুন আন্তঃদেশীয় "মিতালী এক্সপ্রেস" ট্রেনটি ভারতীয় রেকে নিউ জলপাইগুড়ি (এনজেপি) হতে সপ্তাহে রবি ও বুধবার ও ঢাকা ক্যান্টনমেন্ট স্টেশন হতে সোম ও বৃহ¯পতিবার চলাচল করবে।মোট যাত্রীবাহী কোচ থাকবে ৮ টি। ৪টি কেবিন কোচ ও ৪টি এসি চেয়ার কোচ। ভাড়া রাখা হয়েছে এসি চেয়ার ২২ ডলার, এসি সিট ৩৩ ডলার ও এসি কেবিন(বার্থ) ৪৪ ডলার। সূত্রমতে ট্রেনটি বাংলাদেশের নীলফামারীর চিলাহাটি ও ভারতের হলদিবাড়ি রেলপথ দিয়ে চলাচল করবে। এতে নীলফামারীর চিলাহাটি স্টেশনের জন্য দুটো পৃথক কোচ বরাদ্দ থাকবে। সমগ্র উত্তরবঙ্গের মানুষ চিলাহাটি থেকে ট্রেনে উঠে নিউজলপাইগুড়ি যেতে পারবে এবং নিউজলপাইগুড়ি থেকে চিলাহাটি এসে নামতে পারবে।
সূত্র জানায় ট্রেনটি ভারতের সময় দুপুর ১২টা ১০ মিনিটে সপ্তাহে রোববার ও বুধবার নিউজলপাইগুড়ি (এনজিপি) থেকে ছেড়ে হলদিবাড়ি ইন করবে দুপুর ১টা ১০ মিনিটে। এই ষ্টেশনে ৫ মিনিট বিরতী দিয়ে ১টা ১৫ মিনিটে ছেড়ে আসবে। এরপর বাংলাদেশ সময় দুপুর ২টায় ট্রেনটি বাংলাদেশের নীলফামারীর চিলাহাটি রেলষ্টেশনে ইন করবে। এখানে ৩০ মিনিট বিরতি দিবে ট্রেনের কোচে পানি নেয়া ও ভারতীয় ইঞ্জিনটি কেটে দিয়ে বাংলাদেশের ইঞ্জিন সংযুক্ত ও চিলাহাটির যাত্রীর জন্য দুই কোচ কেটে রাখার জন্য। এরপর দুপুর আড়াইটায় ট্রেনটি চিলাহাটি থেকে ছেড়ে ঢাকা ক্যান্টনমেন্ট রেলষ্টেশনে পৌছবে রাত সাড়ে ১০টায়। পথে আর কোথাও দাঁড়াবেনা।
ফিরতি যাত্রায় বাংলাদেশ থেকে সোমবার ও বৃহস্পতিবার ট্রেনটি ঢাকা ক্যান্টনমেন্ট রেলষ্টেশন থেকে রাত ৯টা ৫০ মিনিটে ছেড়ে যাবে। এরপর নীলফামারীর চিলাহাটি রেলষ্টেশনে ইন করবে ভোর ৫টা ৪৫ মিনিটে। এখানে চিলাহাটির যাত্রীদের জন্য রাখা দুই কোচ সংযুক্তকরণ, ট্রেনে পানি নেয়া এবং বাংলাদেশের ইঞ্জিন কেটে ভারতীয় ইঞ্জিন সংযুক্ত করে ভোর ৬টা ১৫ মিনিটে ভারতের দিকে ছেড়ে যাবে। ভারতীয় সময় ভোর ৬টায় ট্রেনটি হলদিবাড়ি ইন করবে। ৫ মিনিট বিরতি দিয়ে ট্রেনটি হলদিবাড়ি থেকে ভোর ৬টা ৫ মিনিটে ছেড়ে নিউজলপাইগুড়ি পৌঁছবে সকাল ৭টা ৫ মিনিটে।
রেলমন্ত্রী নুরুল ইসলাম সুজন গণমাধ্যমকে জানান, করোনাকালিন মৈত্রী ও বন্ধন এক্সপ্রেস ট্রেন দুইটি চলাচল বন্ধ রয়েছে। এবার ঢাকা- নিউ জলপাইগুড়ি রুটে নতুন ট্রেন চালু হতে যাচ্ছে বাংলাদেশের স্বাধীনতার ৫০ বছর পূর্তিতে। বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ও ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী আনুষ্ঠানিকভাবে বাংলাদেশের ঢাকা ক্যান্টনম্যান্ট রেলষ্টেশন থেকে ২৭ মার্চ ট্রেনটির উদ্ধোধনের কথা রয়েছে। আপাতত এই ট্রেনটি উদ্ধোধন করে রাখা হচ্ছে। করোনা পরিস্থিতি স্বাভাবিক হলে মৈত্রী,বন্ধন ও প্রস্তাবিত মিতালী এক্সপ্রেস নিয়মিতভাবে চলাচল শুরু করবে। প্রকাশ থাকে যে,২০০৮ সালের ১৪ এপ্রিল বাংলা নববর্ষের প্রথম দিনে ঢাকা-কলকাতা মৈত্রী ট্রেনের যাত্রা শুরু হয়। আর খুলনা-কলকাতা বন্ধন এক্সপ্রেস ট্রেনের যাত্রার সূচনা হয়েছিল ২০১৭ সালের ৯ নবেম্বর।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ