রবিবার ২০ জুন ২০২১
Online Edition

ডিএসসিসির সাবেক প্রধান রাজস্ব কর্মকর্তা ইউসুফের সম্পদের হিসাব চায় দুদক

স্টাফ রিপোর্টার : ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের (ডিএসসিসি) সাবেক প্রধান রাজস্ব কর্মকর্তা ইউসুফ আলী সরদারকে সম্পদের হিসাব জমা দিতে নোটিস দিয়েছে দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক)।

দুদকের অনুসন্ধানে তার বিরুদ্ধে প্রায় এক কোটি ৬০ লাখ টাকার ‘অবৈধ সম্পদ’ থাকার প্রাথমিক প্রমাণ পেয়ে বুধবার এ নোটিস পাঠানো হয়েছে বলে কমিশনের পরিচালক (জনসংযোগ কর্মকর্তা) প্রনব কুমার ভট্টাচার্য্য জানিয়েছেন।

দুদকের প্রধান কার্যালয় থেকে অনুসন্ধান কর্মকর্তা দুদক পরিচালক মো. আকতার হোসেন আজাদের স্বাক্ষরে পাঠানো নোটিসে ইউসুফ আলী ও তার ওপর নির্ভরশীল ব্যক্তিদের সম্পদের হিসাব ২১ কার্যদিবসের মধ্যে নির্ধারিত ছকে জমা দিতে বলা হয়েছে।

নোটিসে বলা হয়, “আপনার (ইউসুফ আলী) নিজের এবং তার উপর নির্ভরশীল ব্যক্তিবর্গের স্বনামে/বেনামে অর্জিত যাবতীয় স্থাবর/অস্থাবর সম্পত্তি, দায়-দেনা, আয়ের উৎস ও উহা অর্জনের বিস্তারিত বিবরণী এই আদেশ পাওয়ার ২১ কার্যদিবসের মধ্যে নির্ধারিত ছকে দাখিল করতে হবে।” নির্ধারিত সময়ের মধ্যে সম্পদ বিবরণী দাখিল করতে ব্যর্থ হলে অথবা মিথ্যা বিবরণী দাখিল করলে দুদক আইনে তার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়ার কথাও উল্লেখ করা হয় নোটিসে।

এর আগে গত বছরের ১ সেপ্টেম্বর দুর্নীতির মাধ্যমে অবৈধ সম্পদ অর্জনের অভিযোগে ইউসুফ আলী সরদারকে দুদকের সহকারী পরিচালক সৈয়দ নজরুল ইসলাম জিজ্ঞাসাবাদ করেন।

তার বিরুদ্ধে দুদকে আসা অভিযোগে বলা হয়, ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের সাবেক প্রধান রাজস্ব কর্মকর্তা ইউসুফ আলী সরকার (বর্তমানে চাকরিচ্যুত) ক্ষমতার অপব্যবহার, বিভিন্ন অনিয়ম ও দুর্নীতির মাধ্যমে ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের কোটি কোটি টাকা আত্মসাৎ করে শত কোটি টাকার সম্পদ অর্জন করেছেন।

গত বছরের ১৭ মে শেখ ফজলে নূর তাপস মেয়র পদে দায়িত্ব গ্রহণের প্রথম দিনেই দুর্নীতির বিভিন্ন অভিযোগে ইউসুফ আলী সরদারসহ দুইজনকে চাকরিচ্যুত করেন।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ