রবিবার ২৬ সেপ্টেম্বর ২০২১
Online Edition

খুলনা বিএনপির মহাসমাবেশ বাধাগ্রস্ত করতেই পুলিশী হয়রানির অভিযোগ

খুলনা অফিস : আগামীকাল ২৭ ফেব্রুয়ারি অনুষ্ঠিতব্য খুলনার মহাসমাবেশ ব্যর্থ করতে নানা ষড়যন্ত্র চলছে বলে অভিযোগ করা হয়েছে। সরকারের দমননীতির অংশ হিসেবে গত ২৪ ফেব্রুয়ারি দুপুর থেকে এ পর্যন্ত খুলনা মহানগরীর বিভিন্ন এলাকা থেকে অন্তত ২৫ জন নেতাকর্মীকে গ্রেফতারি পরোয়ানা ছাড়াই আটক করা হয়েছে। গ্রেফতার অভিযান অব্যাহত রয়েছে, সংখ্যা আরও বাড়বে। দলের সকল নেতাকর্মীদের সতর্ক থেকে যে কোনো মূল্যে মহাসমাবেশ সফলের আহবান জানানো হয়েছে। এ সমাবেশের ৮০ শতাংশ প্রস্তুতি সম্পন্ন হয়েছে। কিন্তু হঠাৎ করেই পুলিশ বাড়িতে বাড়িতে অভিযান এবং নেতা-কর্মীদের আটক করছে। বৃহস্পতিবার দুপুরে নগরীর কেডি ঘোষ রোড এলাকার দলীয় কার্যালয়ে প্রেস ব্রিফিংয়ে বিএনপির কেন্দ্রীয় সাংগঠনিক সম্পাদক ও মহানগরী সভাপতি সাবেক এমপি নজরুল ইসলাম মঞ্জু এ সব অভিযোগ করেন।

তিনি বলেন, সমাবেশের অনুমতি চেয়ে গত ১৭ ও ২৩ ফেব্রুয়ারি দু’দফায় আবেদন করা হয়েছে। চারটি স্থানের মধ্যে রয়েছে শহিদ হাদিস পার্ক, মহারাজ চত্বর, শিববাড়ি মোড় বাবরী চত্বর ও সোনালী ব্যাংকের সামনে। যে সব স্থানে সমাবেশ আগে হয়েছে সেখানেই অনুমতি চাওয়া হয়েছে। সিটি মেয়র আশ্বস্ত করেছিলেন অনুমতি দেয়া হবে। অথচ এখনো পর্যন্ত অনুমতি দেয়া হয়নি। বিএনপি আশাবাদি অচিরেই অনুমতি দেওয়া হবে। শেষ মুহূর্তে সমাবেশের প্রস্তুতি চলছে, সেই সময় হঠাৎ পুলিশ ঝাপিয়ে পড়ার কারণ কি এটি আমাদের বোধগম্য নয়। বুধবার দুপুর থেকে এ পর্যন্ত খুলনা মহানগরীর বিভিন্ন এলাকা থেকে সাবেক কাউন্সিলর জাহিদুল ইসলামসহ অন্তত ২৫ নেতা-কর্মীকে গ্রেফতারি পরোয়ানা ছাড়াই আটক করা হয়েছে। একজন অসুস্থ থাকায় তাকে ছেড়ে দেয়া হয়েছে। বাকীদের একটি থানার গারদে পুরে রাখা হয়েছে। এখন হয়তো কোন গায়েবী মামলা দেওয়া হবে। আমি অনুরোধ করে এসেছি তাদের ছেড়ে দেয়ার জন্য। পুলিশের এই আচরণ প্রত্যাহার করতে হবে।

তিনি অভিযোগ করে বলেন, পরিবহণ শ্রমিকদের সাথে বৈঠক করে সমাবেশের আগে খুলনা বিভাগে পরিবহন চলাচলে নিষেধ করা হচ্ছে। এই নীতি পরিহার করে নেতাকর্মীদের নির্বিঘেœ সমাবেশে আসতে দেয়ার আহ্বান জানান তিনি। একই সাথে আটক নেতাকর্মীদের মুক্তি, পুলিশের আচরণ পরিহারের দাবি জানান তিনি। প্রেস ব্রিফিং শেষে দলীয় কার্যালয়ের সামনে থেকে সমাবেশের প্রচারপত্র বিলি করা হয়।

প্রেস ব্রিফিংয়ে উপস্থিত ছিলেন খুলনা জেলা বিএনপি’র সভাপতি এডভোকেট এসএম শফিকুল আলম মনা, মহানগর বিএনপি’র সাধারণ সম্পাদক মোহাম্মদ মনিরুজ্জামান মনি, বিএনপি নেতা জাফরউল্লাহ খান সাচ্চু, মীর কায়সেদ আলী, স ম আব্দুর রহমান, মনিরুজ্জামান মন্টু, শেখ আব্দুর রশিদ, অধ্যক্ষ তারিকুল ইসলাম, মোল্লা খায়রুল ইসলাম, শেখ আবু হোসেন বাবু, সিরাজুল হক নান্নু, আসাদুজ্জামান মুরাদ ও শেখ সাদী প্রমুখ।

আগামী ২৭ ফেব্রুয়ারি সুষ্ঠু ও গ্রহণযোগ্য নির্বাচনের দাবিতে, শহীদ রাষ্ট্রপতি জিয়াউর রহমানের বীর উত্তম খেতাম বাতিলের ষড়যন্ত্রের প্রতিবাদে ও বেগম খালেদা জিয়ার মুক্তির দাবিতে দেশের ছয় সিটিতে মেয়র প্রার্থীদের নেতৃত্বে খুলনাতে মহাসমাবেশের পূর্ব ঘোষিত কর্মসূচি রয়েছে। এ মহাসমাবেশে প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তৃতা করবেন বিএনপির ভাইস-চেয়ারম্যান ব্যারিষ্টার শাহজাহান ওমর বীর উত্তম। বিশেষ অতিথি থাকবেন বিএনপির সিনিয়র ভাইস চেয়ারম্যান শামসুজ্জামান দুদু, ভাইস চেয়ারম্যান নিতাই রায় চোধুরী ও যুগ্ম মহাসচিব মোয়াজ্জেম হোসেন আলাল। এছাড়া প্রধান বক্তা ছয় সিটির মেয়র প্রার্থীরা।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ