রবিবার ২৬ সেপ্টেম্বর ২০২১
Online Edition

বিডিআর বিদ্রোহে নিহত সেনা সদস্যদের স্মরণে চট্টগ্রাম মহানগর কল্যাণ পার্টির দোয়া মাহফিল

গতকাল বৃহস্পতিবার বনানীস্থ সামরিক কবরস্থানে পিলখানা হত্যাকা-ে সেনা সদস্যদের ১২তম শাহাদাতবার্ষিকী উপলক্ষে মাগফিরাত কামনা করে মোনাজাত করেন কল্যাণ পার্টির চেয়ারম্যান মেজর জেনারেল (অব.) সৈয়দ মোহাম্মদ ইব্রাহীম বীরপ্রতীক-সংগ্রাম

বাংলাদেশ কল্যাণ পার্টি চট্টগ্রাম মহানগর সভাপতি মুক্তিযোদ্ধা মোহাম্মদ ইলিয়াস বলেছেন, ২০০৯ সালের ২৫ ও ২৬ ফেব্রুয়ারি পিলখানায় ৫৭ জন সেনা কর্মকর্তাসহ ৭৪ জন নিহত হন। অবিলম্বে পিলখানা হত্যাকা-ের সুষ্ঠু তদন্ত ও বিচার করুন। ২৫ ফেব্রুয়ারিকে রাষ্ট্রীয় শোক দিবস ঘোষণা করুন। তিনি গতকাল  বৃহস্পতিবার বাংলাদেশ কল্যাণ পার্টি চট্টগ্রাম মহানগর দলীয় কার্যালয়ে ঢাকার পিলখানায় বিডিআর বিদ্রোহে নিহত সেনা সদস্যদের স্মরণে আলোচনা সভা ও দোয়া মাহফিলে সভাপতির বক্তব্যে এসব কথা বলেন। তিনি আরো বলেন, এত বড় একটা ঘটনার সুষ্ঠু বিচারের সূচনা আমরা এখনো করতে পারিনি। শহীদ পরিবারের সদস্যদের প্রশ্ন কেন এই বর্বরোচিত হত্যাকা- হলো, নিহত সেনাসদস্যদের কী অপরাধ ছিল? তাঁদের কী অপরাধ ছিল? কারাইবা এই নৃশংসতার পরকিল্পনা করেছিল?

ঢাকার পিলখানায় বিডিআর বিদ্রোহে নিহত সেনা সদস্যদের স্বরণে আলোচনা সভা ও দোয়া মাহফিল চট্টগ্রাম মহানগর সাধারণ সম্পাদক মুহাম্মদ মহিউদ্দিন’র সঞ্চলনায় আরো বক্তব্য রাখেন চট্টগ্রাম মহানগর সহ সভাপতি এড. জহুরুল হক আনসারী, সহ সভাপতি এড. জাহাঙ্গীর আলম, সহ সভাপতি মুসলিম সিকদার, সাংগঠনিক সম্পাদক এরফানুল হায়দার, আইন বিষয়ক সম্পাদক এড. আসিফ ইকবাল, অর্থ সম্পাদক সাদ্দাম হোসেন সায়মন, প্রচার সম্পাদক আবদুল মজিদ, সমাজ কল্যাণ সম্পাদক নজরুল ইসলাম। উপস্থিত ছিলেন, ইকবাল হোসেন, নিজাম উদ্দিন, নাছির উদ্দীন, জোসেফ, আজহার, আরো অনেকে।পরে শহীদদের আত্মার মাগফিরাত কামনা করে মিলাদ মাহফিল ও বিশেষ মোনাজাতের আয়োজন করা হয়। বাংলাদেশ কল্যাণ পার্টি চট্টগ্রাম মহানগর’র সকল স্তরের সদস্যগণ এ সময় উপস্থিত ছিলেন। প্রেস বিজ্ঞপ্তি।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ