রবিবার ১১ এপ্রিল ২০২১
Online Edition

যশোর বোর্ডে ১ লাখ ২১ হাজার পরীক্ষার্থীর অটো পাস

খুলনা অফিস : যশোর বোর্ডে এবারের এইচএসসিতে অটো পাস করেছে ১ লাখ ২১ হাজার পাঁচশ’ ২৮ জন শিক্ষার্থী। এর মধ্যে জিপিএ-৫ পেয়েছে ১২ হাজার ৮শ’ ৯২ জন। করোনা মহামারির কারণে এই প্রথমবারের মত শিক্ষার্থীরা পরীক্ষা না দিয়েই অটো পাস করেছে। শনিবার যশোর শিক্ষাবোর্ডের ঘোষিত ফলাফলে এ তথ্য জানা গেছে।

যশোর শিক্ষাবোর্ডের পরীক্ষা নিয়ন্ত্রক অধ্যাপক মাধব চন্দ্র রুদ্র জানিয়েছেন, উচ্চ মাধ্যমিকের প্রধান বিষয়গুলো মূল্যায়ন করে জাতীয় পরামর্শক কমিটির নির্দেশনা অনুযায়ী পরীক্ষা গ্রহণ ছাড়াই ফলাফল তৈরি করা হয়েছে। এক কথায় কেন্দ্রীয় সিদ্ধান্ত অনুযায়ী এবার ফল তৈরি করেছে সব শিক্ষাবোর্ড। 

ফলাফল মূল্যায়নে জেএসসিতে ২৫ ও এসএসসিতে ৭৫ নম্বর ধরা হয়েছে। গত ২০২০ সালের এইচএসসি পরীক্ষায় যশোর শিক্ষাবোর্ডের অধীনে মোট এক লাখ ২১ হাজার পাঁচশ’ ২৮ জন পরীক্ষার্থীর পরীক্ষায় অংশ গ্রহণের কথা ছিল। এরমধ্যে ছাত্র ছিল ৬১ হাজার সাতশ’ ৬১ জন ও ছাত্রী ৫৯ হাজার সাতশ’ ৬৭ জন। পরীক্ষার্থীদের মধ্যে অটো পাসে জিপিএ-৫ পেয়েছে ১২ হাজার ৮শ’ ৯২ জন। এদের মধ্যে বিজ্ঞান বিভাগে নয় হাজার নয়শ’ ২২, মানবিক বিভাগে দু’হাজার দুইশ’ ১৩ ও বাণিজ্য বিভাগে সাতশ’ ৫৭ জন রয়েছে। এছাড়া বাকি সকল পরীক্ষার্থীই অটো পাস করেছে। এসব পরীক্ষার্থীর মধ্যে ক্যাজুয়ালও রয়েছে। যারা গত বছরের পরীক্ষায় অংশ নিয়ে অকৃতকার্য হয়। এসব পরীক্ষার্থীর ভাগ্য এবার খুবই ভালো। কোনো রকম টেনশন ছাড়াই তারা পাস করেছে। একই ভাবে নিয়মিত শিক্ষার্থী অনেকের কপাল ভালো। তাদেরও পাস করতে কোন টেনশন করতে হয়নি। বোর্ডের পরীক্ষা বিভাগের কর্মকর্তারা বলেছেন, একাধিকবার পিছিয়ে এবারের এইচএসসির ফলাফল প্রকাশ করা হয়েছে। তবে এ ফল তৈরিতে তাদের বেশ বেগ পেতে হয়েছে।  উল্লেখ্য, এ বছর করোনা সংক্রমণের কারণে পরীক্ষা ছাড়াই এসএসসি, জেএসসি ও সমমানের পরীক্ষার ফলাফলের ভিত্তিতে এইচএসসি পরীক্ষার্থীদের গড় মূল্যায়ন করেছে শিক্ষাবোর্ডগুলো। ২০২০ সালের এইচএসসি ও সমমানের পরীক্ষা হওয়ার কথা ছিল গত বছরের এপ্রিল মাসে। কিন্তু করোনাভাইরাস সংক্রমণের কারণে শিক্ষা প্রতিষ্ঠান ১৭ মার্চ থেকে বন্ধ থাকায় এইচএসসি পরীক্ষা হয়নি।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ