রবিবার ২০ জুন ২০২১
Online Edition

ঢাকা দক্ষিণ সিটির প্রথমবারের ঘুড়ি উৎসব ১৪ জানুয়ারি

স্টাফ রিপোর্টার: প্রথমবারের মতো সাকরাইন তথা ঘুড়ি উৎসব আয়োজনের প্রস্তুতি নিচ্ছে ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশন (ডিএসসিসি)। সংস্থাটির ৭৫টি ওয়ার্ডে আগামী ১৪ জানুয়ারি একসঙ্গে এই উৎসব করা হবে। এ উপলক্ষ্যে ডিএসসিসির পক্ষ থেকে ১০ হাজার ঘুড়ি সরবরাহ করা হবে। ওই দিন দুপুর দুইটা থেকে শুরু হয়ে রাত আটটা পর্যন্ত উৎসব চলবে।
এসো ওড়াই ঘুড়ি, ঐতিহ্য লালন করি স্লোগানে এই উৎসবের আয়োজন করেছে ডিএসসিসির ক্রীড়া ও সাংস্কৃতিক বিষয়ক স্থায়ী কমিটি। ইতোমধ্যে প্রাথমিক প্রস্তুতি সম্পন্ন করা হয়েছে। এই কমিটির পক্ষ থেকে ৭৫টি ওয়ার্ডের সাধারণ আসনের ৭৫ জন কাউন্সিলর এবং সংরক্ষিত আসনের ২৫ জন নারী কাউন্সিলরকে ১০০টি করে ঘুড়ি সরবরাহ করা হবে। পরে কাউন্সিলররা সেসব ঘুড়ি সংশ্লিষ্ট ওয়ার্ডের জনসাধারণের মাঝে বিলি করবেন।
উৎসব আয়োজনের বিষয়ে ক্রীড়া ও সংস্কৃতি বিষয়ক স্থায়ী কমিটির সভাপতি ও ২৪ নম্বর ওয়ার্ড কাউন্সিলর মো. মোকাদ্দেস হোসেন জাহিদ বলেন, সাকরাইন উৎসব পুরান ঢাকার ঐতিহ্য। কালের পরিক্রমায় এই ঐতিহ্য পুরান ঢাকার গণ্ডি ছাড়িয়ে দেশব্যাপী ছড়িয়ে পড়েছে। কিন্তু যান্ত্রিক জীবনের বাস্তবতায় আমরা অনেকেই ভুলতে বসেছি। তাই ঢাকার ঐতিহ্য লালন, সংরক্ষণ এবং প্রসারে প্রথমবারের মতো এই ঘুড়ি উৎসবের আয়োজন করা হচ্ছে।
তিনি বলেন, ডিএসসিসির পক্ষ থেকে ১০ হাজার ঘুড়ি সরবরাহ করা হবে। সেসব ঘুড়ি আগ্রহী লোকজনের মাঝে বিতরণ করা হবে। তারপরও কেউ বাদ পড়লে সংশ্লিষ্ট আগ্রহী ব্যক্তি বা ব্যক্তিবর্গ নিজ বাড়ির ছাদ থেকে নিজের ঘুড়ি নিয়ে এই উৎসবে অংশ নিতে পারবেন। এই উৎসব সকলের জন্য উন্মুক্ত, সার্বজনীন। সাকরাইন উৎসব আয়োজন প্রসঙ্গে ডিএসসিসির প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা এ বি এম আমিন উল্লাহ নুরী বলেন, ঐতিহ্যের সুন্দর, সচল, সুশাসিত ও উন্নত ঢাকা গড়ে তোলার যে রূপরেখা মেয়র শেখ ফজলে নূর তাপস ঘোষণা করেছেন, তারই আলোকে এবার পৌষ সংক্রান্তিতে ৭৫টি ওয়ার্ডে সমন্বিতভাবে পৌষ সাকরাইন তথা ঘুড়ি উৎসব আয়োজন করতে যাচ্ছে। এই আয়োজন পুরান ঢাকার ঐতিহ্য সংরক্ষণ ও ফিরিয়ে আনতে একটি মাইলফলক হিসেবে ভূমিকা রাখবে।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ