রবিবার ২০ জুন ২০২১
Online Edition

খুলনায় ব্যবসায়ীকে পেটানো মামলায় ওয়ার্ড মেম্বরসহ ৭ জনের কারাদণ্ড

খুলনা অফিস : খুলনা জেলার  ফুলতলায় মো. হিরন শেখ (৩৫) নামের এক ব্যবসায়ীকে মারধরের মামলায় আটরা গিলাতলা ইউনিয়ন পরিষদের ৩নং ওয়ার্ডের মেম্বর হুমায়ুন কবিরসহ ৭ জনকে ১৪ মাসের কারাদন্ড দিয়েছে আদালত। বৃহস্পতিবার মহানগর হাকিম আদালত-৪ এর বিচারক ড. আতিকুস সামাদ এ রায় প্রদান করেন।
সূত্রে জানা গেছে, গত ২৭ নভেম্বর ইউপি মেম্বার হুমায়ুন কবির পাওনাদার মো. হিরণকে পাওনা টাকা দেবে বলে অফিসে ডেকে নিয়ে যায়। যাওয়ার সাথে সাথে, আগে থেকে অবস্থান করা ইউপি মেম্বার হুমায়ুন কবিরের সন্ত্রাসীরা লাঠি এবং দেশী অস্ত্র দিয়ে পাওনাদার মো. হিরন শেখকে পিটিয়ে মারাত্মক জখম করে। এ সময় তার গলায় স্বর্ণের চেইন ও নগদ ৫ হাজার টাকা ছিনিয়ে নেয়। এ ঘটনায় ১ ডিসেম্বর খানজাহান আলী থানায় বাদী হয়ে মো. হিরন শেখের স্ত্রী সাবিনা খাতুন, ইউপি মেম্বার হুমায়ুন কবিরকে প্রধান আসামী করে ৭ জনের নাম উল্লেখ করে মামলা করেন। মামলা নং-১। এ মামলার আসামিরা হলেন মো. হুমায়ুন কবির, মো. মাসুদ রানা, আবু জাফর খাঁন, মো. ছত্তার মোল্লা, মো. নুরুল ইসলাম, মো. হেদায়েত, শেখ তপন।
রায় ঘোষণা কালে মো. মাসুদ রানা ও মো. ছত্তার মোল্লা আদালতের কাঠগড়ায় উপস্থিত ছিলেন। অভিযুক্ত মেম্বর হুমায়ুন কবিরসহ বাকি ৫ আসামি বর্তমানে পলাতক আছেন। বাদির পক্ষে আদালতে মামলাটি পরিচালনা করেন এডভোকেট মো. খুরশীদ আলম রাজু।
জানা গেছে, ৪নং ওয়ার্ডের কয়েকজন অভিযোগ করেন, ইউপি সদস্য হুমায়ুন কবির ভিজিডি কার্ড, বয়স্ক ভাতা ও সরকারি ঘর দেওয়ার নাম করে তাদের কাছ থেকে টাকা নিয়েছে। এছাড়াও কেএলপি নামের সরকারি একটি প্রতিষ্ঠানে চাকুরি দেয়ার নাম করে সাধারণ মানুষের কাছে লক্ষ লক্ষ টাকা হাতিয়ে নিয়েছে ইউপি মেম্বর হুমায়ুন কবির। এলাকার কেউ ভয়ে তার বিরুদ্ধে কোন কথা বলে না। তার বিরুদ্ধে থানায় একাধিক মামলা রয়েছে।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ