ঢাকা, মঙ্গলবার 26 January 2021, ১২ মাঘ ১৪২৭, ১২ জমাদিউস সানি ১৪৪২ হিজরী
Online Edition

প্রোটিনের কাজ ও গুরুত্ব

সংগ্রাম অনলাইন ডেস্ক: দেহের জন্য সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ উপাদানের কথা বলতে গেলে প্রোটিনের কথা বলতে হবে। প্রতিদিন আমাদের খাবারের সঙ্গে প্রোটিন প্রয়োজন হয়। প্রোটিনের চাহিদা মেটাতে না পারলে দেহে প্রোটিনের ঘাটতি তৈরি হয়। 

খাদ্যের ছয়টি উপাদানের মধ্যে প্রোটিন খুবই গুরুত্বপূর্ণ। সব প্রোটিনই কার্বন, হাইড্রোজেন, অক্সিজেন ও নাইট্রোজেন দিয়ে গঠিত। প্রোটিনকে ক্ষুদ্র ক্ষুদ্র অংশে ভাঙলে প্রথমে এমাইনো এসিড পরে কার্বন, হাইড্রোজেন ইত্যাদি মৌলিক পদার্থ পাওয়া যায়। অর্থাৎ অনেক এমাইনো এসিড পাশাপাশি যুক্ত হয়ে একটি প্রোটিন অণু তৈরী করে।

দেহের বৃদ্ধি, কোষ গঠন ও ক্ষয়পুরন  হল প্রোটিনের প্রধান কাজ।এটি কোষের “বিল্ডিং ব্লকস” হিসাবে কাজ করে।

প্রোটিন সুস্বাস্থ্যের জন্য অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ।এক গ্রাম অনু প্রোটিন দহনে 4.1 kcal তাপ শক্তি উৎপন্ন হয়। 

একজন পুরুষ কিংবা নারীর দৈনিক কতখানি প্রোটিন প্রয়োজন তার একটি নির্দিষ্ট গাইডলাইন রয়েছে। এটি একজন মানুষের সুস্থ থাকার জন্য চাহিদার ভিত্তিতে তৈরি করা।

সাধারণত একজন প্রাপ্তবয়স্ক লোকের প্রত্যেকদিন প্রায় একশো থেকে দেড়শো গ্রাম প্রোটিন জাতীয় খাদ্যের প্রয়োজন।তবে কারো দেহের ওজন, উচ্চতা ও শারীরিক কর্মকাণ্ডের ওপরও এ প্রোটিনের চাহিদা কমবেশি হয়ে থাকে।

কারো দেহের ওজন যদি হয় ৯০ কেজি তাহলে স্বাভাবিকভাবেই ৭০ কেজি ওজনের ব্যক্তির তুলনায় তার প্রোটিনের চাহিদা বেশি থাকবে। এ ছাড়া যারা সারাক্ষণ বসে কাজ করেন তাদের তুলনায় দাঁড়িয়ে কিংবা পরিশ্রমের কাজ যারা করেন তাদের প্রোটিনের চাহিদা বেশি থাকে।

বিশেষজ্ঞরা বলছেন, প্রত্যেকের দেহের প্রতিকেজি ওজনের জন্য ০.৮ থেকে এক গ্রাম করে প্রোটিন খাওয়া প্রয়োজন। একজনের দৈনিক ক্যালরি চাহিদার ৩০ শতাংশ প্রোটিন থেকে মেটানো যায়।

অপরিহার্য অ্যামাইনো অ্যাসিডের চাহিদা পূরণ করা প্রোটিনের কাজ।

দেহস্থ উৎসেচক, হরমোন ইত্যাদি সৃষ্টি করা প্রোটিনের কাজ।

প্রোটিনের প্রধান উৎস মাংস, মাছ, ডিম, দুধ ইত্যাদি। এ ছাড়া রয়েছে বিভিন্ন উদ্ভিজ্জ প্রোটিন। এসবের মধ্যে ডাল, বাদাম, সয়াবিন, শিমের বিচি ইত্যাদি। উদ্ভিজ্জ প্রোটিনকে দ্বিতীয় শ্রেণির প্রোটিন বলে। এগুলো স্বাস্থ্যের জন্যও ভালো।

ডিএস/এএইচ

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ