ঢাকা, শনিবার 23 January 2021, ৯ মাঘ ১৪২৭, ৯ জমাদিউস সানি ১৪৪২ হিজরী
Online Edition

ইয়েমেনের হোদেইদাহ বন্দরে গোলাবর্ষণে নিহত ৮

সংগ্রাম অনলাইন ডেস্ক: ইয়েমেনের কৌশলগত বন্দর হোদেইদাহ’র একটি ভবনে গোলাবর্ষণে অন্তত আটজন নিহত হয়েছে। এই হামলার জন্য হুথি বিদ্রোহীদের ওপর দায় চাপিয়েছে ইয়েমেনের সরকার। ইয়েমেনের সরকারি সংবাদ সংস্থা সাবা এ খবর প্রকাশ করেছে।

ইয়েমেনের তথ্যমন্ত্রী মোয়াম্মার আল-ইরইয়ানি সাবিত ব্রাদার্স শিল্প ভবনে এই ‘কুৎসিত সন্ত্রাসী হামলার’ নিন্দা জানিয়েছেন। বৃহস্পতিবার ওই হামলার ঘটনা ঘটেছে বলে জানিয়ে তিনি বলেন, আটজন কর্মী নিহত ও ১৩ জন আহত হয়েছে। যদিও বার্তা সংস্থা এএফপি জানিয়েছে, ১০ জনের মৃত্যু হয়েছে।

খাদ্য সংকটের মাঝে থাকা হোদেইদাহ নগরের বাসিন্দার সংখ্যা প্রায় ৬ লাখ। এই বন্দরনগরে লড়াই শুরু হলে অন্তত আড়াই লাখ মানুষের জীবন হুমকিতে পড়তে পারে। সেই সঙ্গে ইয়েমেনে চরম ক্ষুধা ও নানা রোগব্যাধিতে আক্রান্ত লাখ লাখ লোকের জন্য ত্রাণ ও অন্যান্য নিত্যপ্রয়োজনীয় পণ্যসামগ্রীর সরবরাহ বন্ধ হয়ে যেতে পারে। ২০১৫ সালে আরব উপসাগরীয় দেশগুলোর জোট ইয়েমেনে দুই পক্ষের লড়াইয়ে অংশ নেয়।

তবে জাতিসংঘের মধ্যস্থতায় সৌদি আরবের নেতৃত্বাধীন সামরিক জোটের সমর্থনপুষ্ট ইয়েমেন সরকার এবং ইরান সমর্থিত হুথি বিদ্রোহীদের মধ্যে এখনও পর্যন্ত বড় ধরনের লড়াই এড়ানো গেছে। ইউএন মিশন টু সাপোর্ট দ্য হোদেইদাহ অ্যাগ্রিমেন্ট (ইউএনএমএইচএ) সবপক্ষকে শান্তি বজায় রাখার আহ্বান জানিয়েছে। এসময় তারা বলেছে, বেসামরিক নাগরিকদের অবশ্যই হত্যা বন্ধ করতে হবে। মিশনটি জানিয়েছে, ভবনটি ফ্যাক্টরি ছাড়াও ইউএনএমএইচএ-র অফিস হিসেবে ব্যবহার করা হতো।

জাতিসংঘ জানিয়েছে, হেদেইদাহ প্রদেশে বিভিন্ন হামলায় শুধু অক্টোবর মাসেই ৭৪ জন বেসামরিক ব্যক্তি নিহত বা আহত হয়েছে। গত মাসের শেষদিকে প্রদেশটির আল-দুরাইহিমিতে গোলাবর্ষণে পাঁচ শিশুসহ আটজন বেসামরিক ব্যক্তি নিহত হয়। সূত্রঃ এ/পি

ডিএস/এএইচ

 

ডিএস/এএইচ

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ