ঢাকা, শনিবার 23 January 2021, ৯ মাঘ ১৪২৭, ৯ জমাদিউস সানি ১৪৪২ হিজরী
Online Edition

নেশার টাকার নবজাতককে হত্যা, পিতা আটক

সংগ্রাম অনলাইন ডেস্ক: নেশার টাকা না পেয়ে ফুলবাড়ীতে সুর্য মহন্ত নামের ২২ দিনের এক নবজাতককে বটি দিয়ে নির্মমভাবে কুপিয়ে হত্যা করেছে মাদকাসক্ত পিতা সুভাশ চন্দ্র মহন্ত। বৃহস্পতিবার সকাল ৭টায় দিনাজপুরের ফুলবাড়ী উপজেলার বারাই হাট এলাকার ভোলা পাড়া গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। 

এ ঘটনায় মাদকাসক্ত পিতা সুবাশ মহন্তকে (২৮) আটক করেছে ফুলবাড়ী থানা পুলিশ। আটক সুবাশ মহন্ত ওই গ্রামের সুনিল চন্দ্র মহন্তের ছেলে।

প্রতিবেশী ও পুলিশ জানায়, সুভাষ মহন্তের সাথে অনামিকার দুই বছর আগে পারিবারিক সিদ্ধান্তে বিয়ে হয়। সুবাশ মহন্ত দীর্ঘদিন থেকে মাদকাসক্ত ছিলেন। সে মাঝে মধ্যেই নেশার টাকার জন্য পরিবারের সদস্যদের উপর নির্যাতন চালিয়ে আসছিলো, এ নিয়ে তাদের মধ্যে পারিবারিক অশান্তি ছিলো। এরই এক পর্যায়ে বুধবার সন্ধ্যা থেকে সুবাশ মহন্ত তার স্ত্রী অনামিকা মহন্তের সাথে ঝগড়া-বিবাদ চলে এবং মারধর করে। ঘটনাটি এলাকাবাসী অনামিকার বাবার বাড়িতে খবর দিলে বৃহস্পতিবার এ বিষয়ে দুই পরিবারের মাঝে সমঝোতার বৈঠক হওয়ার কথা ছিল। কিন্তু এরই মধ্যে বৃহস্পতিবার সকাল ৭টায় সুভাষ মহন্তের বাড়ির বন্ধ ঘর থেকে চিৎকার শুনে এলাকাবাসী ছুটে এসে ঘরের চালার টিন খুলে ভিতরে ঢুকে, রক্তাক্ত অবস্থায় ওই নবজাতক শিশুর লাশ পড়ে থাকতে দেখে। লাশ উদ্ধার করে আহত অবস্থায় স্ত্রী অনামিকাকে হাসপাতালে ভর্তি করে স্থানীয়রা এবং স্বামী সুভাষকে আটক করে থানায় খবর দেন। খবর পেয়ে ফুলবাড়ী থানা পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে নবজাতকের লাশ উদ্ধার করে পিতা সুভাষ মহন্তকে আটক করে নিয়ে আসে।

ফুলবাড়ী থানার ওসি মো. ফখরুল ইসলাম বলেন, খবর পেয়ে ঘটনাস্থল থেকে ওই নবজাতকের মরদেহ উদ্ধার এবং সুভাশ চন্দ্র মহন্তকে আটক করা হয়েছে। এ ব্যাপারে ফুলবাড়ী থানায় সুভাশ চন্দ্র মহন্তসহ তার মা-বাবাকে আসামি করে নারী ও শিশু দমন আইনে হত্যা মামলার প্রস্তুতি করা হচ্ছে। আসামি সুভাশ চন্দ্র মহন্তকে জেল হাজতে প্রেরণ করা হয়েছে এবং নবজাতকের লাশটি ময়নাতদন্তের জন্য দিনাজপুর এম আব্দুর রহমান মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে প্রেরণ করা হয়েছে। নবজাতকের মা আহত অনামিকাকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

ডিএস/এএইচ

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ