ঢাকা, বৃহস্পতিবার 26 November 2020, ১১ অগ্রহায়ণ ১৪২৭, ১০ রবিউস সানি ১৪৪২ হিজরী
Online Edition

ইরফান ও তার দেহরক্ষী আদালতে

সংগ্রাম অনলাইন ডেস্ক: রাজধানীর কলাবাগানে নৌবাহিনীর এক কর্মকর্তাকে মারধর ও হত্যাচেষ্টা মামলায় ঢাকা-৭ আসনের সংসদ সদস্য (এমপি) হাজী সেলিমের ছেলে ইরফান সেলিম এবং তার দেহরক্ষী জাহিদকে আদালতে হাজির করা হয়েছে।

আজ বুধবার (২৮ অক্টোবর) সকাল ৯টা ৪৫ মিনিটে কেরানীগঞ্জ কেন্দ্রীয় কারাগার থেকে তাদের ঢাকা মহানগর হাকিম আদালতে হাজির করা হয়।

এরপর তাদেরকে আদালতের হাজতখানায় রাখা হয়। বেলা ১১টার দিকে তাদের রিমান্ড শুনানি অনুষ্ঠিত হবে বলে আদালত সুত্রে জানা গেছে।

ভ্রাম্যমাণ আদালতে দণ্ডিত ইরফান ও তার দেহরক্ষীকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য সাত দিনের রিমান্ড চেয়ে গতকাল ২৭ অক্টোবর আদালতে আবেদন করে পুলিশ। সেই রিমান্ড আবেদনের শুনানি আজ হতে পারে বলে জানা গেছে। 

নৌবাহিনীর কর্মকর্তাকে মারধরের ঘটনায় আরেক আসামি এ বি সিদ্দিক ওরফে দীপুকে গ্রেফতারের পর ২৭ অক্টোবর আদালতে হাজির করে পুলিশ। আদালত তার তিন দিনের পুলিশি রিমান্ড মঞ্জুর করেন। এর আগের দিন ইরফানের গাড়ির চালক মিজানুর রহমানকে এক দিনের রিমান্ডে নেওয়ার অনুমতি পায় পুলিশ।

এর আগে, ২৭ অক্টোবর নৌবাহিনী কর্মকর্তাকে মারধর, বিদেশি পিস্তল রাখা, অবৈধ অস্ত্র রাখাসহ বিভিন্ন অপরাধে ইরফানকে সাময়িক বরখাস্ত করে স্থানীয় সরকার, পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় মন্ত্রণালয়।

গত ২৫ অক্টোবর রাতে রাজধানীর কলাবাগান সিগনালে এমপি হাজী মো. সেলিমের 'সংসদ সদস্য' লেখা সরকারি গাড়ি থেকে নেমে নৌবাহিনীর কর্মকর্তা ওয়াসিফ আহমেদ খানকে মারধর করেন ডিএসসিসি ৩০ নম্বর ওয়ার্ড কাউন্সিলর ইরফান সেলিম। এ ঘটনায় সে রাতেই মামলা দায়েরের পর সোমবার পুরান ঢাকায় তার বাসায় অভিযান পরিচালনা করা হয়। অভিযানে ৩৮টি ওয়াকিটকি, বিদেশি মদও অস্ত্র উদ্ধার করে র‌্যাব। ইরফানকে ১৮ মাস ও তার দেহরক্ষী মো. জাহিদকে ছয় মাস কারাদণ্ড দেন র‌্যাবের ভ্রাম্যমাণ আদালত।

ডিএস/এএইচ

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ