ঢাকা, বৃহস্পতিবার 26 November 2020, ১১ অগ্রহায়ণ ১৪২৭, ১০ রবিউস সানি ১৪৪২ হিজরী
Online Edition

ব্রাজিলে অক্সফোর্ডের টিকা নিয়ে প্রাণ গেল স্বেচ্ছাসেবকের

সংগ্রাম অনলাইন ডেস্ক: এবার অক্সফোর্ড-অ্যাস্ট্রাজেনেকার ভ্যাকসিন নিয়ে ব্রাজিলে এক স্বেচ্ছাসেবকের মৃত্যু হয়েছে। ব্রাজিলের জাতীয় স্বাস্থ্য নজরদারি সংস্থা (আনভিসা) বুধবার এই তথ্য নিশ্চিত করেছে। 

ব্রাজিলের স্বাস্থ্য কর্তৃপক্ষ জানায়, অক্সফোর্ড বিশ্ববিদ্যালয় ও অ্যাস্ট্রাজেনকার কোভিড-নাইনটিন টিকার ক্লিনিকাল পরীক্ষায় অংশ নেয়া এক স্বেচ্ছাসেবকের মৃত্যু হয়েছে। 

ভ্যাকসিন নেয়ার পর ওই ব্যক্তির কী ধরনের পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া দেখা দিয়েছিল তা স্পষ্ট করা হয়নি। বিষয়টি খতিয়ে দেখা হচ্ছে বলে জানানো হয়েছে। তবে কাতারভিত্তিক সংবাদ মাধ্যম আল-জাজিরার খবরে বলা হয়েছে, মৃত্যুর নিয়ে কিছুটা গোপনীয়তা রক্ষা করা হচ্ছে।

এমন উদ্বেগজনক ঘটনায় নড়েচড়ে বসেছে ব্রাজিল সরকার। টিকা ট্রায়ালে স্বেচ্ছাসেবক মৃত্যৃতে কর্তৃপক্ষকে স্বাধীন তদন্তের পরামর্শ দিয়েছে ব্রাজিল।

এ ঘটনায় আবারও বড় ধরনের ধাক্কা খেল অক্সফোর্ডের ভ্যাকসিন। এর আগে একবার ভ্যাকসিন নিয়ে এক স্বেচ্ছাসেবকের স্নায়ু সমস্যা দেখা দেয়। তখন সাময়িক স্থগিত করা হয় ভ্যাকসিনের ট্রায়াল। তবে এবার মৃত্যুর ঘটনায় টিকা ট্রায়াল বন্ধ করা হচ্ছে না বলে জানিয়েছে অক্সফোর্ড কর্তৃপক্ষ।

বিশ্বের প্রায় দুই শতাধিক প্রতিষ্ঠান কোভিড-১৯ এর ভ্যাকসিন আবিষ্কারে চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে। এর মধ্যে চীন, রাশিয়ার টিকা চূড়ান্ত পর্যায়ে রয়েছে বলে জানা গেছে।

এদিকে স্বেচ্ছাসেবীর মৃত্যুর পরেও ব্রাজিলে অক্সফোর্ডের ভ্যাকসিনের ট্রায়াল চালিয়ে যাওয়ার কথা জানিয়েছে আনভিসা। ব্রাজিলে অক্সফোর্ডের ভ্যাকসিনের তৃতীয় পর্যায়ের ট্রায়ালের সমন্বয়ে সাহায্য করছে দ্য ফেডারেল ইউনিভার্সিটি অব সাও পাওলো। বিশ্ববিদ্যালয়টির পক্ষ থেকেও ব্রাজিলিয়ান স্বেচ্ছাসেবী মৃত্যুর কথা নিশ্চিত করা হয়েছে। তবে ওই ব্যক্তি ব্রাজিলের কোথায় বাস করতেন সেই বিষয়ে কিছু বলা হয়নি।

তবে সম্প্রচারমাধ্যম সিএনএন ব্রাজিলের একটি প্রতিবেদনে বলা হয়েছে যে মৃত স্বেচ্ছাসেবী ২৮ বছর বয়সী একজন যুবক এবং সে রিও ডে জেনিরোর বাসিন্দা ছিলেন। করোনায় আক্রান্ত হয়েই ওই যুবক মারা গেছেন।

জানা গেছে , চীনের সিনোভ্যাকের ভ্যাকসিনের পাশাপাশি ব্রিটেনের অক্সফোর্ড ইউনিভার্সিটির ভ্যাকসিনটিতেও অনুমোদন দেওয়ার পরিকল্পনা রয়েছে ব্রাজিল সরকারের।

করোনায় সর্বোচ্চ মৃত্যুর বিশ্ব তালিকায় দ্বিতীয় স্থানে রয়েছে ব্রাজিল। দেশটিতে করোনায় আক্রান্ত হয়ে ১ লাখ ৫৪ হাজারের বেশি মানুষের মৃত্যু হয়েছে। এ তালিকার শীর্ষে রয়েছে যুক্তরাষ্ট্র। এছাড়া সর্বোচ্চ করোনা রোগী শনাক্তের বিশ্ব তালিকায় তৃতীয় স্থানে রয়েছে ব্রাজিল। দেশটিতে এ পর্যন্ত ৫২ লাখের বেশি করোনা রোগী শনাক্ত করা হয়েছে। এই তালিকার শীর্ষে রয়েছে যুক্তরাষ্ট্র এবং দ্বিতীয় ভারত।

ডিএস/এএইচ

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ