শনিবার ১৮ সেপ্টেম্বর ২০২১
Online Edition

বেনাপোল কাস্টমস হাউসের ২ রাজস্ব অফিসারের বিরুদ্ধে হয়রানি ও দুর্নীতির অভিযোগ

শার্শা (যশোর) সংবাদদাতা: যশোরের বেনাপোল কাস্টমস হাউসের শুল্কায়ন গ্রুপ ৩ ও ৪ এর দায়িত্ব প্রাপ্ত রাজস্ব অফিসার স্বপন কুমার দাস ও শহিদুল ইসলাম এর বিরুদ্ধে হয়রানি ও দূর্নীতির অভিযোগে গত ৪ দিন ধরে ৩ ও ৪ নং গ্রুপে শুল্কায়ন বন্ধ করে দিয়েছে বেনাপোল সিএন্ডএফ মালিক ও স্টাফ এসোসিয়েশন। যে কারণে কোটি কোটি টাকার কাজ বন্ধ রয়েছে। অভিযুক্ত ঐ দুই  কর্মকর্তাকে গ্রুপ থেকে অনত্র না সরালে আরও কঠিন কর্মসূচীর হুমকি দিয়েছে সিএন্ডএফ মালিক ও স্টাফ এসোসিয়েশন।
অভিযোগে জানা  গেছে, বেনাপোল কাস্টমস হাউসের ৩ ও ৪ নং গ্রুপে সব থেকে বেশি শুল্কায়ন হয়ে থাকে।৩ ও ৪ নং গ্রুপে মেশিনারীজ, প্লাস্টিকপন্য সহ বিভিন্ন পন্যের শুল্কায়ন হয়ে থাকে। রাজস্বও এ দু-গ্রুপ থেকে বেশি আদায় হয়ে থাকে।  এ দু-গ্রুপে এজন্য বেশি গুরুত্ব বহন করে। এই সুযোগে বেনাপোল কাস্টমস হাউসের শুল্কায়ন গ্রুপ ৩ ও ৪ এর দায়িত্ব প্রাপ্ত রাজস্ব অফিসার স্বপন কুমার দাস ও শহিদুল ইসলাম ব্যবসায়ী ও সিএন্ডএফ প্রতিনিধিদের বিভিন্ন ভাবে হয়রানি করে থাকে।
 এ ব্যাপারে সিএন্ডএফ স্টাফ এসাসিয়েমনের সাধারন সম্পাদক সাজেদুর রহমান বলেন ৩ ও ৪ নং গ্রুপের দুই জন রাজস্ব অফিসারকে বদলী না করলে আরও কর্মসুচি দেওয়া হবে। তিনিও ঐ দুই অফিসারের বিদ্ধে ঘুস, দূর্ণীতি , হয়রানি ও অনিয়মের অভিযোগ করেন।
 এ ব্যাপাওে বেনাপোল সিএন্ডএফ  এসাসিয়েমনের সভাপতি আলহাজ্ব মফিজুর রহমান স্বজন জানান, গ্রুপে অফিসারের সাথে ঝামেলা হয়েছে।  তিনি বলেন বিষয়টি কমিশনারের সাথে বলে খুব দ্রুত মিমাংশা করা হবে।
 এ ব্যাপারে বেনাপোল কাস্টমস কমিশনার আজিজুর রহমান বলেন একটু সমষ্যা হয়েছে যা আজই সমাধান করা হবে। তিনি বলেন একটি মহল অবৈধ্য সুবিধা না পেয়ে ঝামেলা করছে। তিনি বলেন কাস্টম হাউসে যদি কেই অনিয়ম করে তবে তার প্রমাণ পেলে তার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হবে। তিনি আরও বলেন সরকারের নির্দেশনা মোতাবেক বেনাপোল কাস্টমস হাউসে কোন অনিয়ম মেনে নেওয়া হবেনা।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ