সোমবার ২০ সেপ্টেম্বর ২০২১
Online Edition

স্বাস্থ্য ও চিকিৎসা পদে আমলা পুনর্বাসন করে চিকিৎসকদের পিঠে ছুরি মারা হচ্ছে

স্টাফ রিপোর্টার : স্বাস্থ্যমন্ত্রীর সামনে আমলাদের কঠোর সমালোচনা করেছেন চিকিৎসক নেতারা। তাদের অভিযোগ, স্বাস্থ্য ও চিকিৎসা সংশ্লিষ্ট বিভিন্ন পদে আমলাদের পুনর্বাসন করার মাধ্যমে চিকিৎসকদের পিঠে ছুরি মারা হচ্ছে। তারা বলছেন, অবস্থা এমন পর্যায়ে পৌঁছেছে যে, কদিন পর হয় তো চিকিৎসকরা অস্ত্রোপচারের দায়িত্বেও থাকতে পারবেন না।  জবাবে মন্ত্রী বলেন, তার হাত দিয়ে চিকিৎসকদের অসম্মানিত করা হবে না।
করোনাভাইরাস নিয়ে হোটেল ইন্টারকন্টিনেন্টালে সোসাইটি অব সার্জনসের আলোচনা সভায় যোগ দেন স্বাস্থ্যমন্ত্রী ও স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের মহাপরিচালক। আলোচনায় আসছে শীতে মহামারীর প্রকোপ ঠেকাতে বিভিন্ন পরামর্শ উঠে এলেও বেশিরভাগ সময়জুড়েই আমলাদের সমালোচনা করেন চিকিৎকরা।
স্বাচিপ মহাসচিব অধ্যাপক ডা. এম এ আজিজ বলেন,'সার্জন এর পোষ্টে কবে যেন দেখবো যে তারাও একটা পোষ্ট নিতে চলে আসছে। ওটিতে তারাই ছুরি হাতে দাঁড়াবে এবং রোগী মরে গেলে বলবে, এনেস্থেশিয়ার ভুল সিদ্ধান্তের কারণে রোগী মারা গেছে আমার কোন দোষ নেই।'
স্বাস্থ্যসেবার বিভিন্ন দপ্তর ও প্রতিষ্ঠান থেকে একের পর এক চিকিৎসকদের সরিয়ে প্রশাসনের কর্মকর্তাদের পদায়নের কথা তুলে ধরে ক্ষোভে ফেটে পড়েন সরকার সমর্থক চিকিৎসকদের সংগঠন স্বাচিপের শীর্ষনেতারা।
স্বাচিপ সভাপতি অধ্যাপক ডা. ইকবাল আর্সলান বলেন.'আমরা কি রোগী সেবা দিব নাকি আমরা শুধু লড়াই করবো? নিজেদের অস্তিত্ব, মান-সম্মান রক্ষা করবার জন্য?'
অসম্মানিত হতে হতে চিকিৎসকদের দেয়ালে পিঠ থেকে গেছে মন্তব্য করে প্রয়োজনে আন্দোলন গড়ে তোলার হুঁশিয়ারি দেন বিএমএর নেতারা। পাশাপাশি স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের মহাপরিচালকের সঙ্গে স্বাধীনতাবিরোধীদের আঁতাতের অভিযোগও তোলেন তারা।
বিএমএ মহাসচিব অধ্যাপক ডা. এহতেশামুল হক চৌধুরী বলেন,'কোন দিন কোন আপোস হবে না। আমাদের আত্মমর্যাদা নিয়ে যদি কেউ খেলাধুলা করে, অতীতের অভিজ্ঞতা সুখকর নয়।' তদবির করে পদে আসেননি দাবি করে স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের মহাপরিচালক বলেন, প্রধানমন্ত্রী যতদিন দায়িত্বে রাখবেন, ততদিন কাজ করে যাবেন। স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের মহাপরিচালক অধ্যাপক ডা. এবিএম খুরশীদ আলম বলেন,'আমি প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশনা বাস্তবায়ন করার জন্য এসেছি। তিনি যতক্ষণ বলবেন ততক্ষণ করবো। যখন তিনি চলে যেতে বলবেন আমি চলে যাবো।'
পরে স্বাস্থ্যমন্ত্রী জানান, তার মাধ্যমে অসম্মানিত হবেন না চিকিৎসকরা। স্বাস্থ্যমন্ত্রী জাহিদ মালেক বলেন,'ভুল বুঝাবুঝি যেটা হয়েছে। যেটা আপনারা ব্যক্ত করেছেন, সেটার যেন অবসান হয় সে বিষয়ে আমার পূর্ণ চেষ্টা থাকবে। সহযোগিতা আপনারা পাবেন।'
এসময় মন্ত্রী জানান, অনেক চিন্তা-ভাবনা করে করোনার টিকা নির্বাচনের কাজ করছে সরকার। দেশি প্রতিষ্ঠান গ্লোব বায়োটেকের টিকা কার্যকর হলে সরকারের গ্রহণ করতে আপত্তি নেই বলেও জানান তিনি।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ