বৃহস্পতিবার ০৩ ডিসেম্বর ২০২০
Online Edition

প্রীতি ম্যাচ খেলতে নবেম্বরে বাংলাদেশে আসছে নেপাল

স্পোর্টস রিপোর্টার : জামাল ভূঁইয়াদের বিপক্ষে ফিফা ফ্রেন্ডলি ম্যাচ খেলতে নবেম্বরে ঢাকায় আসছে নেপাল ফুটবল দল। বাংলাদেশ ফুটবল ফেডারেশনের (বাফুফে) আমন্ত্রনেই আসছে দলটি। করোনা ভাইরাসের কারণে বিশ্বকাপ ও এশিয়ান কাপ ফুটবলের বাছাইপর্বের বাকি ম্যাচগুলো পিছিয়ে ২০২১ সালে চলে যাওয়ায় বাফুফে জাতীয় দলকে ফিফা ফ্রেন্ডলি ম্যাচ খেলানোর উদ্যোগ নিয়েছিল। বাফুফে দক্ষিণ এশিয়ার দুই দেশ নেপাল ও শ্রীলংকাকে প্রস্তাব দিয়েছিল। শেষপর্যন্ত বাংলাদেশের বিরুদ্ধে দুটি ফিফা ফ্রেন্ডলি ম্যাচ খেলতে রাজি হয়েছে নেপাল। এক্ষেত্রে ভিন্ন একটি কারণ ও রয়েছে। বাফুফের সদ্য সমাপ্ত নির্বাচনে ইশতেহারের অনত্যম প্রধান বিষয় ছিল বাংলাদেশের ফিফা র‌্যাংকিং ১৫০-এর আশেপাশে তুলে আনা। নির্বাচনে আবার বিজয়ী হয়ে কাজী সালাউদ্দিনের নেতৃত্বাধীন বাফুফে ইশতেহার অনুযায়ী কাজ শুরু করে দিয়েছে। র‌্যাংকিং বাড়াতে হলে আন্তর্জাতিক প্রতিযোগিতায় ভালো করার পাশাপাশি বেশি বেশি ফিফা প্রীতি ম্যাচ খেলে তাতেও ভালো করতে হবে। আগামী নভেম্বরেই দুটি প্রীতি ম্যাচ খেলতে নেপাল আসছে বাংলাদেশে।নেপালের ফিফা র‌্যাংকিং ১৭০। বাংলাদেশের ১৮৭। এই প্রীতি ম্যাচ দুটিতে ভালো করে র‌্যাংকিংয়ে উন্নতি করা একটা উদ্দেশ্য অবশ্যই। তবে এটাও সত্যি, করোনা ভাইরাসের কারণে সেই মার্র্চ থেকে ঘরোয়া ও আন্তর্জাতিক ফুটবলের বাইরে থাকা বাংলাদেশ জাতীয় দলের খেলোয়াড়দের খেলায় ফিরিয়ে আনাও একটা লক্ষ্য। নেপাল জাতীয় দলকে বাংলাদেশে এসে দুটি প্রীতি ম্যাচ খেলতে আমন্ত্রণ জানানো হয়েছিল বেশ আগে। অল নেপাল ফুটবল অ্যাসোসিয়েশন (আনফা) বাফুফের সেই আমন্ত্রণে সাড়া দিয়ে আগামী ১১-১৯ নবেম্বরের ফিফা উইন্ডোতে বাংলাদেশে এসে খেলতে সম্মতি জানিয়েছে। বাফুফে সাধারণ সম্পাদক আবু নাইম সোহাগ শুক্রবার সংবাদমাধ্যমকে জানিয়েছেন, ‘আগেই নেপালকে প্রীতি ম্যাচ খেলার প্রস্তাব দিয়েছিলাম আমরা। সেই প্রস্তাবে সম্মতি জানিয়ে ওরা নভেম্বরেই খেলতে আসবে বলে জানিয়েছে।’

 নেপালের ফুটবল ওয়েবসাইট গোল নেপাল ডটকমও শুক্রবারের এক প্রতিবেদনে আনফার বরাতে বাংলাদেশের সঙ্গে নেপালের দুটি প্রীতি ম্যাচ খেলার বিষয়টি নিশ্চিত করেছে। গোল নেপাল জানিয়েছে, আগামী ২৬ অক্টোবর নেপালের বৃহত্তম উৎসব দশাইন উৎসবের (বিজয়া দশমী) পরেই নেপাল ফুটবল দল অনুশীলন শুরু করবে। এর আগে আনফা বিশ্বকাপ ও এশিয়ান কাপের বাছাই পর্বের জন্য অনুশীলন শুরু করতে চেয়েছিল আগস্ট মাসে। কিন্তু কোভিড-১৯-এর কারণে নেপাল সরকার অনুশীলনের অনুমতি দেয়নি।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ