বুধবার ২১ অক্টোবর ২০২০
Online Edition

তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি ব্যবহারে এগিয়ে চট্টগ্রাম ॥ পিছিয়ে রংপুর

সরদার আবদুর রহমান : বাংলাদশে তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তির সামগ্রিক ব্যবহারের ক্ষেত্রে এগিয়ে রয়েছে চট্টগ্রাম বিভাগ। সেক্ষেত্রে অনেকটাই পিছিয়ে রয়েছেন রংপুর বিভাগের মানুষেরা। অন্যদিকে রাজধানীকেন্দ্রিক ধারণকারী ঢাকা বিভাগ টেলিভিশন ও কম্পিউটারের ব্যবহারে কিছুটা এগিয়ে থাকলেও সার্বিক সূচকে এগিয়ে যেতে পারেনি।
সরকারের পরিকল্পনা মন্ত্রণালয়, পরিসংখ্যান ব্যুরো ও ইউনিসেফ-এর এক যৌথ জরিপের পর ২০১৯ সালে প্রকাশিত এক প্রতিবেদনে এই তথ্য প্রকাশিত হয়। এতে বাংলাদেশে আর্থ-সামাজিক, শিক্ষা ও প্রযুক্তি, মানসিক স্বাস্থ্য প্রভৃতি ক্ষেত্রে অগ্রগতির বিষয় এই জরিপের মাধ্যমে তুলে ধরা হয়। এতে তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি ব্যবহারের বেলায় দেখা যায়, গড় হিসেবে চট্টগ্রাম বিভাগ এক্ষেত্রে এগিয়ে রয়েছে। আর পিছিয়ে রয়েছে উত্তরের জনপদ রংপুর বিভাগ। গৃহে রেডিও, টেলিভিশন, টেলিফোন, মোবাইল, কম্পিউটার ও ইন্টারনেট ব্যবহারের উপর সারা দেশের মোট ৬১ হাজার ২৪২টি গৃহের উপর সমীক্ষা চালানো হয়। এরমধ্যে শহরের গৃহের সংখ্যা ১৩ হাজার ৫৬৪ এবং গ্রামীণ গৃহের সংখ্যা ৪৭ হাজার ৬৭৮টি। এই সংখ্যার পার্থক্য থেকে বুঝা যায়, মূলত গ্রামীণ মানুষের তথ্য-প্রযুক্তি ব্যবহারের বর্তমান পরিস্থিতি যাঁচাইয়ের জন্যই এই সমীক্ষা চালানো হয়।
প্রতিবেদনে দেখা যায়, শহরের ৯৮ ভাগ মানুষ মোবাইল ফোন ব্যবহার করেন। গ্রামও তাতে পিছিয়ে নেই। এর শতকরা হার ৯৫ দশমিক ৩ ভাগ। কম্পিউটারের ব্যবহারে এই ব্যবধান অনেক বেশি। শহরে ১৪ দশমিক ৩ ভাগ আর গ্রামে মাত্র ৩ দশমিক ১ ভাগ। ইন্টারনেট ব্যবহার করে শহরের ৫৩ দশমিক ১ ভাগ মানুষ আর গ্রামের ৩৩ দশমিক ২ ভাগ। এছাড়া ঘরে টেলিভিশন আছে এমন সংখ্যা শহরে ৭৪ দশমিক ২ ভাগ এবং গ্রামে ৪৩ দশমিক ৯ ভাগ। রেডিও আছে শহরে শতকরা ০.৫ ভাগ এবং গ্রামে ০.৬ ভাগ ঘরে।
বিভাগওয়ারি সমীক্ষায় দেখা যায়, মোবাইল ফোন ব্যবহারের ক্ষেত্রে এই হার চট্টগ্রাম বিভাগে শতকরা ৯৭ দশমিক ৬ ভাগ, ঢাকা ৯৭ দশমিক ২ এবং বরিশাল ৯৭ ভাগ। এছাড়া খুলনায় রয়েছে ৯৬ দশমিক ৯ ভাগ, মোমেনশাহী বিভাগে ৯৪ ভাগ, রাজশাহীতে ৯৩ দশমিক ৭, সিলেটে ৯৫ দশমিক ৬ ভাগ এবং রংপুর বিভাগে ৯৩ দশমিক ২ ভাগ। কম্পিউটারের ব্যবহারের বেলায় চট্টগ্রামের চেয়ে রাজশাহী এগিয়ে রয়েছে। এই হার সর্বোচ্চ ঢাকা বিভাগে শতকরা ৯ ভাগ, খুলনায় ৫ দশমিক ৪ ভাগ, সিলেটে ৫ দশমিক ১ ভাগ, রাজশাহীতে ৪ দশমিক ৯ ভাগ, চট্টগ্রামে ৪ দশমিক ৮ ভাগ, বরিশালে ৩ দশমিক ৩ ভাগ, মোমেনশাহীতে ৩ দশমিক ২ এবং রংপুর বিভাগে ৩ দশমিক ১ ভাগ। ইন্টারনেট ব্যবহারে ঢাকার চেয়ে চট্টগাম অগ্রগামী। এই হার চট্টগ্রামে ৪৯ দশমিক ২ ভাগ, ঢাকা বিভাগে ৪৭ ভাগ, সিলেট বিভাগে ৪০ ভাগ, খুলনায় ৩৮ দশমিক ৭ ভাগ, বরিশালে ৩২ দশমিক ২ ভাগ, রাজশাহীতে ২৮ দশমিক ৩ ভাগ, মোমেনশাহী বিবাগে ২৬ দশমিক ২ ভাগ এবং রংপুর বিভাগ ১৮ দশমিক ৩ ভাগ।
গৃহে টেলিভিশন রাখার ক্ষেত্রে দেখা যায়, ঢাকার পরেই রাজশাহী ও খুলনার অবস্থান। এই হার ঢাকা বিভাগে ৬৬ দশমিক ১ ভাগ, রাজশাহী বিভাগে ৫২ দশমিক ৯ ভাগ, খুলনা বিভাগে ৫২ দশমিক ৫ ভাগ, চট্টগ্রাম বিভাগে ৪৯ দশমিক ৬ ভাগ, রংপুর বিভাগে ৪০ দশমিক ৩ ভাগ, সিলেট বিভাগে ৩৭, মোমেনশাহী ৩৫ দশমিক ২ এবং বরিশাল বিভাগে ৩০ দশমিক ৫ ভাগ।
নারীদের মোবাইল ব্যবহার
নারীদের মোবাইল ফোন ব্যবহারের ক্ষেত্রে সমীক্ষায় দেখা যায়, শহরের শতকরা ৮০ দশমিক ৪ ভাগ নারী ব্যক্তিগত মোবাইল সেট ব্যবহার করেন। সে ক্ষেত্রে গ্রামে এই হার ৬৮ দশমিক ৬ ভাগ। বিভাগওয়ারি হিসেবে এই হার ঢাকা বিভাগে ৮০ দশমিক ২ ভাগ, চট্টগ্রাম বিভাগে ৭৬ দশমিক ৩ ভাগ, খুলনা বিভাগে ৬৯ দশমিক ৮ ভাগ, রংপুর বিভাগে ৬৯ দশমিক ৪ ভাগ, বরিশাল বিভাগে ৬৯ ভাগ, মোমেনশাহী বিভাগে ৬৪ দশমিক ৯ ভাগ, রাজশাহী বিভাগে ৬১ দশমিক ৯ ভাগ এবং সিলেট বিভাগে ৫৮ দশমিক ২ ভাগ।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ