বুধবার ২১ অক্টোবর ২০২০
Online Edition

করোনা মহামারিতে সবচেয়ে বেশি ক্ষতিগ্রস্ত দেশের শিক্ষাব্যবস্থা

টঙ্গী তা’মীরুল মিল্লাত কামিল মাদরাসার আলিম ১ম বর্ষের ওরিয়েন্টেশন ক্লাসের প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখছেন অধ্যক্ষ মাওলানা যাইনুল আবেদীন

গাজীপুর সংবাদদাতা: তা’মীরুল মিল্লাত ট্রাস্টের সেক্রেটারি অধ্যক্ষ মাওলানা মুহাম্মাদ যাইনুল আবেদীন বলেছেন, চলমান করোনা মহামারি আমাদের জন্য একটি বড় পরীক্ষা। এ সময়ে সবচেয়ে বেশি ক্ষতিগ্রস্ত দেশের শিক্ষাব্যবস্থা। স্বাভাবিক শিক্ষা কার্যক্রম ব্যাহত হওয়ায় সবচেয়ে বেশি হতাশাগ্রস্ত দেশগড়ার আগামী দিনের কাণ্ডারীরা। পরীক্ষামুখী শিক্ষাব্যবস্থায় পরীক্ষাগুলো না হওয়ার কারণে শিক্ষার্থীরা পড়ালেখার প্রতি আগ্রহ হারাচ্ছে। বিকল্প যে ব্যবস্থা করা হচ্ছে তা কোনোভাবেই ভালো বিকল্প নয় এবং এতে চাহিদার সিকিভাগও পুরণ হচ্ছে না। 

দেশের শীর্ষস্থানীয় দ্বীনী শিক্ষা প্রতিষ্ঠান তা’মীরুল মিল্লাত কামিল মাদরাসা টঙ্গী ক্যাম্পাসে গতকাল শনিবার আলিম প্রথম বর্ষের সাধারণ বিভাগের ছাত্রদের ওরিয়েন্টেশন ক্লাসে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন। মাদরাসার ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষ মাওলানা মো. মিজানুর রহমানের সভাপতিত্বে ও সিনিয়র শিক্ষক মাওলানা নূরুল হকের সঞ্চালনায় মাদরাসা মিলনায়তনে অনুষ্ঠিত উক্ত ক্লাসে আরো বক্তব্য রাখেন, মাদরাসার সহকারী অধ্যাপক মাওলানা মাহতাব উদ্দিন, ছাত্র প্রতিনিধি খাইরুল আনাম প্রমুখ। এসময় অন্যান্যের মধ্যে আরো উপস্থিত ছিলেন মুহাদ্দিস ড. মোয়াজ্জেম হুসাইন আল আজহারী, মাওলানা সাইদুল ইসলাম, মাওলানা মুনির আহমাদ খান, মাওলানা আবুল কালাম, সহকারী অধ্যাপক আবুল কালাম আজাদ, ড. মুহাম্মাদ সালমান, মো. ইসহাক আলী, মাওলানা মাসুম বিল্লাহ মাদানী, মাওলানা আব্দুল কাইয়ূমসহ বিভিন্ন বিষয় ভিত্তিক শিক্ষকমণ্ডলী উপস্থিত ছিলেন। 

অনুষ্ঠানে জানানো হয়, চলমান করোনাকালেও টঙ্গী তা’মীরুল মিল্লাত কামিল মাদ্রাসায় সবোর্চ্চ সংখ্যক ছাত্র ভর্তি হয়েছে। এবার ভর্তিকৃত ১৫৭০ জনের মধ্যে সাধারণ বিভাগে ৯৯০ ও বিজ্ঞান বিভাগে ৫৮০ জন ভর্তি হয়েছে। 

এ বিশাল সংখ্যক ছাত্রকে করোনাকালীন সময়ে শিক্ষাকার্যক্রমের বিষয়ে অভিহিত করা, শিক্ষকম-লীর সাথে পরিচিত হওয়া ও রেজিস্ট্রেশন সংক্রান্ত কার্যাবলী নিশ্চিত করার লক্ষ্যে স্বাস্থ্যবিধি মেনে সাধারণ বিভাগের ছাত্রদের নিয়ে এ ওরিয়েন্টেশন ক্লাসের আয়োজন করা হয়। 

অনুষ্ঠানের প্রধান অতিথি মাওলানা মুহাম্মাদ যাইনুল আবেদীন ছাত্র ও শিক্ষকদের প্রতি আহবান জানিয়ে বলেন, আর কোনো ভালো বিকল্প না থাকায় গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেম সরকারের শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের নির্দেশনার আলোকে সেশনের শুরুতেই আমাদেরকে আন্তরিকভাবে অনলাইন কার্যক্রমে সম্পৃক্ত হতে হবে। শিক্ষার্থীরা অবশ্যই পাঠ্য পুস্তক সংগ্রহ করে পাঠে মনোনিবেশ করতে হবে। নৈতিকতার চরম অবক্ষয়ের এ সময়ে প্রযুক্তির অপব্যবহার থেকে নিজেদেরকে বিরত রাখতে হবে। তরুণদের নিয়ে যে হতাশা তৈরি হয়েছে তা দূর করার জন্য তা‘মীরুল মিল্লাতের ছাত্রদের অগ্রনী ভূমিকা পালন করতে হবে।

উল্লেখ্য, বিগত ৬ অক্টোবর তা‘মীরুল মিল্লাত টঙ্গীর বালিকা ক্যাম্পাসে আলিম প্রথম বর্ষের শিক্ষার্থীদের নিয়ে এক ওরিয়েন্টেশন ক্লাস অনুষ্ঠিত হয় এবং আগামী ১৪ অক্টোবর তৃতীয় ধাপে বিজ্ঞানের ছাত্রদের নিয়ে অনুরুপ আয়োজন করা হয়েছে। 

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ