মঙ্গলবার ২৪ নবেম্বর ২০২০
Online Edition

‘বিবেকের কারণে কারাবন্দী’ সংগ্রাম সম্পাদকের অবিলম্বে মুক্তি দাবী অ্যামনেস্টি ইন্টারন্যাশনালের

স্টাফ রিপোর্টার : দৈনিক সংগ্রাম সম্পাদক আবুল আসাদের জামিন স্থগিত করায় অ্যামনেস্টির ইন্টারন্যাশনাল এক বিবৃতি দিয়েছে। আর্ন্তজাতিক মানবাধিকার সংস্থা অ্যামনেস্টি ইন্টারন্যাশনাল দৈনিক সংগ্রাম সম্পাদক আবুল আসাদকে ‘বিবেকের কারণে কারাবন্দী’ উল্লেখ করে অবিলম্বে মুক্তি দাবী করেছে। গতকাল বুধবার অ্যামনেস্টির ইন্টারন্যাশনাল সাউথ এশিয়ার টুইটার একাউন্ট থেকে দেয়া এক বার্তায় এ দাবী জানানো হয়।
বিবৃতিতে অ্যামনেস্টির ইন্টারন্যাশনাল বলেন, দৈনিক সংগ্রাম সম্পাদক আবুল আসাদকে হাই কোর্ট জামিন মঞ্জুর করলেও তাকে মুক্তি দিতে কর্তৃপক্ষ ব্যর্থ হয়েছে। বাংলাদেশী সাংবাদিকদের নির্দ্বিধায় ও নির্ভয়ে তাদের কাজ চালিয়ে যেতে দেওয়া উচিত। এতে আরও বলা হয়, ৭৮ বছর বয়সী দৈনিক সংগ্রাম সম্পাদক আবুল আসাদকে ৯ মাস যাবত বিচারের পূর্বেই আটকে রাখা হয়েছে। তিনি ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনের মতো কঠোর আইনে বন্দী রয়েছেন। অ্যামনেস্টি বলছে, তিনি বিবেকের কারণে বন্দী। তাকে অবশ্যই অবিলম্বে বিনাশর্তে মুক্তি দিতে হবে। টুইটবার্তায় আরও বলা হয়, বাংলাদেশী সাংবাদিকদের বিনা হস্তক্ষেপে মুক্তভাবে কাজ করতে দেয়া উচিত।  
উল্লেখ্য যে, রাষ্ট্রদ্রোহ ও আইসিটি মামলায় দৈনিক সংগ্রাম পত্রিকার সম্পাদক আবুল আসাদকে দেয়া হাইকোর্টের জামিন ৮ সপ্তাহের জন্য স্থগিত করা হয়েছে। রাষ্ট্রপক্ষের এক আবেদনের শুনানি শেষে গত মঙ্গলবার এ আদেশ দেন বিচারপতি মো. নুরুজ্জামানের চেম্বার আদালত। এ মামলায় দীর্ঘ এক বছর কারাগারে থাকার পর গত ২৩ সেপ্টেম্বর আবুল আসাদকে জামিন দিয়েছিলেন হাইকোর্ট। বিচারপতি মো. এমদাদুল হক ও মো. আকরাম হোসেন চৌধুরীর বেঞ্চের সে আদেশ এবার সুপ্রিম কোর্টের চেম্বার আদালতে স্থগিত হলো।
হাইকোর্টের জামিনের বিরুদ্ধে আদালতে রাষ্ট্রপক্ষে অতিরিক্ত অ্যাটর্নি জেনারেল মুরাদ রেজা শুনানি করেন করেন। চেম্বার জজ আদালতে গত মঙ্গলবার আদেশের বিষয়টি তুলে ধরে তিনি বলেন, এর ফলে এ মামলায় আবুল আসাদ মুক্তি পাচ্ছেন না। এর আগে হাইকোর্টে আবুল আসাদের জামিন আবেদনের পক্ষে শুনানি করেন সিনিয়র আইনজীবী খন্দকর মাহবুব হোসেন ও মোহাম্মদ শিশির মনির।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ