মঙ্গলবার ২৪ নবেম্বর ২০২০
Online Edition

দেশে করোনায় এ পর্যন্ত মৃত্যু ৫ হাজার ২১৯

স্টাফ রিপোর্টার : দেশে করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে একদিনে আরও ২৬ জনের মৃত্যু হয়েছে, আর নতুন রোগী শনাক্ত হয়েছে ১ হাজার ৪৮৮ জন। সেখানে বলা হয়, সকাল ৮টা পর্যন্ত শনাক্ত ১ হাজার ৪৮৮ জনকে নিয়ে দেশে করোনা ভাইরাসে মোট আক্রান্তের সংখ্যা ৩ লাখ ৬২ হাজার ৪৩ জন হল। আর গত এক দিনে মারা যাওয়া ২৬ জনকে নিয়ে দেশে করোনা ভাইরাসে মোট মৃতের সংখ্যা ৫ হাজার ২১৯ জনে দাঁড়ালো। এদিকে দেশের বিভিন্ন বিভাগের মধ্যে ঢাকা বিভাগেই ৫০ শতাংশ রোগীর মৃত্যু হয়েছে।
গতকাল মঙ্গলবার সংবাদমাধ্যমে বিজ্ঞপ্তি পাঠিয়ে স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের পক্ষ থেকে দেশে করোনাভাইরাস পরিস্থিতির এই সবশেষ তথ্য জানানো হয়। স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের হিসাবে বাসা ও হাসপাতালে চিকিৎসাধীন আরও ১ হাজার ৬২৫ জন রোগী সুস্থ হয়ে উঠেছেন গত এক দিনে। তাতে সুস্থ রোগীর মোট সংখ্যা বেড়ে ২ লাখ ৭৩ হাজার ৬৯৮ জন হয়েছে। বাংলাদেশে করোনা ভাইরাসের প্রথম সংক্রমণ ধরা পড়ে ৮ মার্চ, তা সাড়ে তিন লাখ পেরিয়ে যায় ২১ সেপ্টেম্বর। এর মধ্যে ২ জুলাই ৪ হাজার ১৯ জন কোভিড-১৯ রোগী শনাক্ত হয়, যা এক দিনের সর্বোচ্চ শনাক্ত।
প্রথম রোগী শনাক্তের ১০ দিন পর ১৮ মার্চ দেশে প্রথম মৃত্যুর তথ্য নিশ্চিত করে স্বাস্থ্য অধিদপ্তর। ২২ সেপ্টেম্বর সেই সংখ্যা পাঁচ হাজার ছাড়িয়ে যায়। এর মধ্যে ৩০ জুন এক দিনেই ৬৪ জনের মৃত্যুর খবর জানানো হয়, যা এক দিনের সর্বোচ্চ মৃত্যু। জনস হপকিন্স বিশ্ববিদ্যালয়ের তালিকায় বিশ্বে শনাক্তের দিক থেকে পঞ্চদশ স্থানে আছে বাংলাদেশ, আর মৃতের সংখ্যায় রয়েছে ২৯তম অবস্থানে।
স্বাস্থ্য অধিদপ্তর জানিয়েছে, গত ২৪ ঘণ্টায় সারা দেশে ১০৬টি ল্যাবে ১২ হাজার ৮৬৯টি নমুনা পরীক্ষা করা হয়েছে। এ পর্যন্ত পরীক্ষা হয়েছে ১৯ লাখ ৩৪ হাজার ২৫১টি নমুনা। ২৪ ঘণ্টায় নমুনা পরীক্ষার বিবেচনায় শনাক্তের হার ১১ দশমিক ৫৬ শতাংশ, এ পর্যন্ত মোট শনাক্তের হার ১৮ দশমিক ৭২ শতাংশ। শনাক্ত বিবেচনায় সুস্থতার হার ৭৫ দশমিক ৬০ শতাংশ এবং মৃত্যুর হার ১ দশমিক ৪৪ শতাংশ। গত এক দিনে যারা মারা গেছেন তাদের মধ্যে পুরুষ ২১ জন, নারী ৫ জন। তাদের সবাই হাসপাতালে মারা গেছেন। মৃতদের মধ্যে ১৭ জনের বয়স ছিল ৬০ বছরের বেশি, ৫ জনের বয়স ৫১ থেকে ৬০ বছরের মধ্যে এবং ২ জনের বয়স ৪১ থেকে ৫০ বছরের মধ্যে এবং ১ জন করে মোট ২ জনের বয়স ৩১ থেকে ৪০ ও ২১ থেকে ৩০ বছরের মধ্যে ছিল। ১৬ জন ঢাকা বিভাগের, ৫ জন চট্টগ্রাম বিভাগের, ১ জন রাজশাহী বিভাগের এবং ২ জন করে মোট ৪ জন খুলনা ও সিলেট বিভাগের বাসিন্দা ছিলেন। দেশে এ পর্যন্ত মারা যাওয়া ৫ হাজার ২১৯ জনের মধ্যে ৪ হাজার ৩৯ জনই পুরুষ এবং ১ হাজার ১৮০ জন নারী। তাদের মধ্যে ২ হাজার ৬৫৩ জনের বয়স ছিল ৬০ বছরের বেশি। এছাড়া ১ হাজার ৪০৯ জনের বয়স ৫১ থেকে ৬০ বছরের মধ্যে, ৬৭৫ জনের বয়স ৪১ থেকে ৫০ বছরের মধ্যে, ২৯৭ জনের বয়স ৩১ থেকে ৪০ বছরের মধ্যে, ১১৯ জনের বয়স ২১ থেকে ৩০ বছরের মধ্যে, ৪২ জনের বয়স ১১ থেকে ২০ বছরের মধ্যে এবং ২৪ জনের বয়স ছিল ১০ বছরের কম।
বিভাগওয়ারী পরিসংখ্যানে করোনায় মৃতের সংখ্যা ঢাকা বিভাগে দুই হাজার ৬০৭ (৪৯ দশমিক ৯৫ শতাংশ), চট্টগ্রামে এক হাজার ৭৩ (২০ দশমিক ৫৬ শতাংশ), রাজশাহীতে ৩৪১ (৬ দশমিক ৫৩ শতাংশ), খুলনায় ৪৩৫ (৮ দশমিক ৩৩ শতাংশ), বরিশালে ১৮৭ (৩ দশমিক ৫৮ শতাংশ) সিলেটে ২৩০ (৪ দশমিক ৪১ শতাংশ), রংপুরে ২৩৭ (৪ দশমিক ৫৪ শতাংশ) এবং ময়মনসিংহ বিভাগে ১০৯ জন (২ দশমিক ০৯ শতাংশ)।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ