মঙ্গলবার ২৯ সেপ্টেম্বর ২০২০
Online Edition

রাজশাহীতে পেঁয়াজের দাম বেড়েছে কেজিতে ৫০ টাকা

রাজশাহী অফিস : রাজশাহীতে পেঁয়াজের দাম বেড়েছে কেজিতে ৫০ টাকা। গত একদিনের ব্যবধানে দাম বেড়েছে ২৫ থেকে ৩০ টাকা এবং এক সপ্তাহের ব্যবধানে পেঁয়াজের দাম বেড়েছে ৪০ থেকে ৫০ টাকা। রাজশাহীর সাহেব-বাজারের কাঁচাবাজারে গিয়ে দেখা যায়, দেশি পেঁয়াজ ৮০ থেকে ৯০ টাকা এবং ভারতীয় পেঁয়াজ ৭০ থেকে ৮০ টাকা কেজি দরে বিক্রি হচ্ছে।
ব্যবসায়ীরা জানায়, তারা ৭৫ টাকা দরে পেঁয়াজ ক্রয় করেছে। কিন্তু প্রশাসনের পক্ষ থেকে বলা হচ্ছে ৬০ টাকা দরে বিক্রি করতে। কাঁচাবাজারের এক আড়তদার জানান, ‘হাট থেকে ৩৬০০ টাকা মণ পেঁয়াজ কিনেছি। কিন্তু এই পেঁয়াজ আমরা গত হাটে কিনেছিলাম ২০০০ থেকে ২২০০ টাকা মণ। হঠাৎ করেই বাজারে পেঁয়াজের দাম বেড়ে যাওয়ায় আমাদেরকেও বেশি দিয়ে কিনতে হচ্ছে। যার জন্য বিক্রিও করতে হচ্ছে বেশি দাম দিয়েই।’
ব্যবসায়ীরা জানায়, বাজারে যারা পেঁয়াজ কিনতে আসছেন সকলেই গত বছরের মতো দাম বেড়ে যাওয়ার ভয়ে বেশি বেশি পেঁয়াজ কিনে নিয়ে যাচ্ছেন এবং মজুদ করে রাখছে। এক পেঁয়াজ  ক্রেতা জানান, গত বছরের ঠিক এই সময়েই নিত্যপ্রয়োজনীয় পণ্য পেঁয়াজের দাম বেড়ে প্রায় ২৫০ টাকা কেজি হয়ে গেছিলো। ঠিক আবারও এক বছর পর প্রায় একই অবস্থা।  
এদিকে বুধবার সকাল সাড়ে ১০টার দিকে বাজারে পেঁয়াজের দাম নিয়ন্ত্রণে রাখতে অভিযান চালিয়েছে জেলা প্রশাসন। অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট আবু আসলাম ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট নাজমুল হোসাইন বাজারে এ অভিযান পরিচালনা করেন। অভিযানের সময় ব্যবসায়ীরা পেঁয়াজের দাম কমিয়ে দেন কেজিতে ২৫ থেকে ৩০ টাকা। এ সময় বাড়তি দাম না নেয়ার জন্য ব্যবসায়ীদের সতর্ক করা হয়। এরপর দুইজন ম্যাজিস্ট্রেট বাজার থেকে চলে যাওয়ার সাথে সাথেই আবারও দেশি পেঁয়াজ ৮০ থেকে ৯০ টাকা এবং ভারতীয় পেঁয়াজ ৭০ থেকে ৮০ টাকা কেজি দরে বিক্রি করতে দেখা যায়। অথচ ম্যাজিস্ট্রেট থাকার সময় দেশি পেঁয়াজ ৭০ থেকে ৭৫ টাকা ও ভারতীয় পেঁয়াজ ৫৫ থেকে ৬০ টাকা দরে ব্যবসায়ীদের বিক্রি করতে দেখা যায়।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ