মঙ্গলবার ২৯ সেপ্টেম্বর ২০২০
Online Edition

ইসরাইলি দখলদারিত্বের অবসান ছাড়া মধ্যপ্রাচ্যে শান্তি হবে না : মাহমুদ আব্বাস

১৬ সেপ্টেম্বর, প্রেসটিভি, রয়টার্স, ওয়াফা : ফিলিস্তিনি স্বশাসন কর্তৃপক্ষের প্রেসিডেন্ট মাহমুদ আব্বাস হোয়াইট হাউসে ইসরাইলের সাথে সংযুক্ত আরব আমিরাত ও বাহরাইন যে সম্পর্ক প্রতিষ্ঠার চুক্তি করেছে তার কঠোর নিন্দা করেন। তিনি বলেন, ফিলিস্তিন থেকে ইসরাইলের সরে যাওয়া ছাড়া মধ্যপ্রাচ্যে কোনো শান্তি প্রতিষ্ঠিত হবে না।

মাহমুদ আব্বাস বলেন, অধিকৃত ভূখণ্ড ছেড়ে দিলে এবং আল-কুদসকে (জেরুজালেম) রাজধানী করে স্বাধীন ফিলিস্তিন রাষ্ট্র প্রতিষ্ঠা করা হলেই শুধুমাত্র শান্তি প্রতিষ্ঠিত হতে পারে। ফিলিস্তিনের বার্তা সংস্থা ওয়াফা মাহমুদ আব্বাসের এই বক্তব্য প্রকাশ করেছে। হোয়াইট হাউসে মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের উপস্থিতিতে সংযুক্ত আরব আমিরাত, বাহরাইন ও ইসরাইল সম্পর্ক প্রতিষ্ঠার চুক্তিতে সই করার কিছুক্ষণ পরই মাহমুদ আব্বাস এই বিবৃতি দেন।

মাহমুদ আব্বাস বলেন, চুক্তি সই করা দেশগুলোর সঙ্গে মূল সমস্যা জড়িত নয়, বরং মূল সমস্যা ফিলিস্তিনি জনগণের সঙ্গে জড়িত যারা কয়েক যুগ ধরে দুর্দশার মধ্যে রয়েছে। ফিলিস্তিনি প্রেসিডেন্ট স্পষ্ট করে বলেন, আজকে হোয়াইট হাউসে চুক্তি সইয়ের নামে যা ঘটল তার মধ্য দিয়ে মধ্যপ্রাচ্যে শান্তি আসবে না।

‘নতুন মধ্যপ্রাচ্যের ভোরে’ গাজায়

ইসরাইলি বিমান হামলা

উপসাগরীয় দুটি আরব দেশের সঙ্গে ইসরাইলে আনুষ্ঠানিক শান্তিু চুক্তির পরদিন ভোররাতেই ফিলিস্তিনের গাজা ভূখ-ে বিমান হামলা চালিয়েছে ইসরাইল। ওই শান্তি চুক্তিকে ‘নতুন মধ্যপ্রাচ্যের সূর্যোদয়’ বলে প্রশংসা করেছেন যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প।

গাজার কট্টরপন্থিরা ইসরাইলে একটি রকেট ছোড়ার পাল্টা পদক্ষেপ হিসেবে অবরুদ্ধ ফিলিস্তিনি ভূখ-টিতে হামলা চালায় ইসরাইলি জঙ্গি বিমানগুলো।

ইসরাইলের সামরিক বাহিনী জানিয়েছে, গতকাল বুধবার ভোররাতে ফিলিস্তিনের ইসলামপন্থি রাজনৈতিক গোষ্ঠী হামাস নিয়ন্ত্রিত গাজায় তারা প্রায় ১০টি বিমান হামলা চালিয়েছে।

এ সময় গাজা থেকে সীমান্তবর্তী ইসরাইলি বসতিগুলো লক্ষ্য করে ১৫টি রকেট ছোড়া হয় বলে অভিযোগ করেছে তারা।

ভোরের আগে ইসরাইলের এই এলাকাগুলোতে সতর্র্কতা সাইরেনের আওয়াজ শোনা গেছে বলে রয়টার্স জানিয়েছে।

এর আগে মঙ্গলবার যুক্তরাষ্ট্রের রাজধানী ওয়াশিংটন ডিসির হোয়াইট হাউসে ইসরাইলের সঙ্গে সংযুক্ত আরব আমিরাত ও বাহরাইনের আনুষ্ঠানিক শান্তি চুক্তি স্বাক্ষর অনুষ্ঠান চলাকালে ইসরাইলের উপকূলীয় শহর আশদোদে গাজা থেকে ছোড়া একটি রকেট আঘাত হানে, এতে দুই জন আহত হন।

এর পাল্টা পদক্ষেপ হিসেবে পরদিন ভোররাতে গাজায় বিমান হামলা চালায় ইসরাইলি বাহিনী। ভোররাতের এই হামলা-পাল্টা হামলায় কেউ হতাহত হয়েছেন কি না, দুপক্ষের কেউই সে বিষয়ে কিছু জানায়নি।

ইসরাইলি সামরিক বাহিনী বলেছে, গতকাল বুধবার তারা তাদের ক্ষেপণাস্ত্র-বিধ্বংসী সিস্টেম আয়রন ডোম দিয়ে আটটি রকেট প্রতিহত করেছে।

এক বিবৃতিতে তারা জানিয়েছে, গাজার যেসব লক্ষ্যে হামলা চালানো হয়েছে তার মধ্যে একটি অস্ত্র ও বিস্ফোরক তৈরির কারখানা এবং রকেট পরীক্ষা ও প্রশিক্ষণের জন্য হামাসের ব্যবহৃত একটি কম্পাউন্ড রয়েছে। অপরদিকে গাজার ইসলামিক জিহাদ গোষ্ঠী জানিয়েছে, ইসরাইলি বিমান হামলার জবাবে ‘প্রতিরোধ শক্তির’ পক্ষ থেকে ইসরাইলে দিকে একযোগে বহু রকেট নিক্ষেপ করা হয়েছে। 

গাজা ও ইসরাইলে অধিকৃত পশ্চিম তীর নিয়ে ফিলিস্তিনিরা একটি স্বাধীন রাষ্ট্র প্রতিষ্ঠা করতে চায়। কিন্তু যুক্তরাষ্ট্রের মধ্যস্থতায় ইসরাইলের সঙ্গে উপসাগরীয় দুটি আরব দেশ শান্তি চুক্তি স্বাক্ষর করার মধ্য দিয়ে তাদের সঙ্গে বিশ্বাসঘাতকতা করেছে বলে মনে করছে তারা।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ