মঙ্গলবার ২৯ সেপ্টেম্বর ২০২০
Online Edition

ঘরোয়া ক্রিকেটে ফেরার কথা ভাবছে বিসিবি

স্পোর্টস রিপোর্টার: শ্রীলংকার দেয়া কঠিন শর্ত মেনে লংকা সফর করবে না বাংলাদেশ। একথা শ্রীলংকান ক্রিকেট বোর্ডকে জানিয়ে দিয়েছে বিসিবি। বিসিবি সভাপতি সাফ জানিয়ে দিয়েছে যে.এসব কঠিন শর্ত মেনে নিয়ে টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপের মতো গুরুত্বপূর্ণ একটি সিরিজ খেলতে শ্রীলংকায় যাওয়া সম্ভব নয়। তবে লংকা সফর না হলেও তারা চাইছে দ্রুততম সময়ের মধ্যে ঘরোয়া ক্রিকেট লিগ ফেরাতে। তবে সেটা ঢাকা প্রিমিয়ার লিগ (ডিপিএল) নাকি জাতীয় ক্রিকেট লিগ (এনসিএল) তা এখনই বলতে সম্মত হননি বিসিবি বস নাজমুল হাসান পাপন। সবশেষ ক্রিকেটাররা ২২ গজের লড়াইয়ে নেমেছে গত মার্চে ঢাকা প্রিমিয়ার লিগে। দ্রুততম সময়ে মধ্যে ঘরোয়া ক্রিকেট লিগ ফেরাবে বিসিবি। গতকাল বিসিবি'তে সংবাদ মাধ্যমের মুখোমুখি হয়ে বিসিবি সভাপতি নাজমুল হাসান পাপন বলেন, ‘আমরা ক্রিকেট ফিরিয়ে আনবো, বাইরের কারো সঙ্গে হবে কিনা জানি না, আমরা নিজেরা ঘরোয়া ক্রিকেট শুরু করে দিব। কি করবো এটা এখন বলছিনা আপনাদেরকে। কিছু তো একটা করবোই। কিন্তু ক্রিকেট আমরা মাঠে ফিরাবোই। সব ক্লাবকে তো আর ম্যানেজ করতে পারবো না, যাদের ম্যানেজ করতে পারবো তাদের নিয়েই আমরা আয়োজন করবো। খেলা মাঠে গড়াবে ইনশাআল্লাহ।’ লঙ্কান সরকারের স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের সঙ্গে পরামর্শ সাপেক্ষে গতকাল পাঠানো এক চিঠিতে দেশটির ক্রিকেট বোর্ড বিসিবিকে জানিয়েছে, তিন ম্যাচ সিরিজের টেস্ট খেলতে দেশটি সফরে যেতে হলে অবশ্যই সফরকারী বাংলাদেশকে ১৪ দিনের কোয়ারেনটাইনে থাকতে হবে। কোয়ারেনটাইন চলাকালীন ক্রিকেটাররা নিজ নিজ কক্ষ থেকে বের হতে পারবেন না এমনকি অনুশীলনও করতে পারবে না! অথচ আগস্টে ওয়েস্ট ইন্ডিজের ইংল্যান্ড সফর ও তার অব্যবহিত পরে পাকিস্তানের ইংল্যান্ড সফরেও এটা দেখা যায়নি। দুই দেশই কোয়ারেনটাইন চলাকালীন অনুশীলন করেছে। এখানেই শেষ নয়। অনুশীলনে টিম বাংলাদেশকে তারা কোনো নেট বোলার দিবে না এবং বাংলাদেশ থেকেও সঙ্গে নিতে না করে দিয়েছে। আইসিসি'র টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপের মতো এত তাৎপর্যপূর্ণ একটি সিরিজে লঙ্কান ক্রিকেট বোর্ডের এসব শর্তে দেশটি সফরে সম্ভব নয় বলে সাফ না বলে দিয়েছে বাংরাদেশ। তবে স্বাগতিকরা এখন কী জানায় সেজন্য অপেক্ষা করছে। আপাতদৃষ্টিতে তাই ধরেই নেওয়া যায়, সিরিজটি হচ্ছে না। ফলে ঘরোয়া ক্রিকেটে ফেরার কথা ভাবছে বিসিবি।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ