বুধবার ৩০ সেপ্টেম্বর ২০২০
Online Edition

বিশ্বজুড়ে করোনায় একদিনে মৃত্যু ৬ হাজার 

স্টাফ রিপোর্টার: বিশ্বজুড়ে নভেল করোনা ভাইরাসের তাণ্ডব কোনোভাবেই ঠেকানো যাচ্ছে না। ভাইরাসটির সংক্রমণ ও এতে আক্রান্ত হয়ে মৃতের সারি দীর্ঘই হচ্ছে। এ ভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে গত ২৪ ঘণ্টায় আবারও ৬ হাজারের বেশি প্রাণ কেড়ে নিলো করোনা ভাইরাস। নতুন করে প্রায় আড়াই লাখ মানুষের শরীরে প্রাণঘাতী এ ভাইরাসটি শনাক্ত হয়েছে। এ নিয়ে এই বৈশ্বিক মহামারিতে মৃতের সংখ্যা ৫ লাখ ৮৭ হাজার ৮৪৬ জন । সরকারি হিসেবে, মোট আক্রান্তের সংখ্যা ১ কোটি সাড়ে ৩৭ লাখ ৩৫ হাজার ৫৬১ জন। সুস্থ হয়েছে ৮১ লাখ ৮৪ হাজার ৬২২ জন। 

পরিসংখ্যানভিত্তিক ওয়েবসাইট ওয়ার্ল্ডোমিটার’র তথ্য মতে, গতকাল বৃহস্পতিবার সন্ধ্যা সাড়ে ৭টা পর্যন্ত সারা পৃথিবীতে করোনা য় আক্রান্ত বেড়ে ১ কোটি ৩৭ লাখ ৩৫ হাজার ৫৬১ জনে দাঁড়িয়েছে। এদের মধ্যে ৫ লাখ ৮৭ হাজার ৮৪৬ জন ইতোমধ্যে মৃত্যুবরণ গেছেন। বিপরীতে সুস্থ হয়ে উঠেছেন ৮১ লাখ ৮৪ হাজার ৬২২ জন। বর্তমানে চিকিৎসাধীন আছেন ৫০ লাখ ৬৭ হাজার ৬৩৬ জন, এদের মধ্যে ৫৯ হাজার ৬১৭ জনের অবস্থা গুরুতর।

মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে সর্বোচ্চ ৩৬ লাখ ১৬ হাজার ৭৪৭ জন করোনা  রোগী শনাক্ত হয়েছেন, যা সারা পৃথিবীতে শনাক্তের প্রায় এক চতুর্থাংশ।  লাতিন আমেরিকার বৃহত্তম দেশ ব্রাজিলে দ্বিতীয় সর্বোচ্চ ১৯ লাখ ৭০ হাজার ৯০৯ জনের শরীরে ভাইরাসটি শনাক্ত হয়েছে। এছাড়া ভারতে ৯ লাখ ৭০ হাজার ১৬৯ জন (তৃতীয়), রাশিয়ায় ৭ লাখ ৪৬ হাজার ৩৬৯ জন (চতুর্থ) ও পেরুতে ৩ লাখ ৩৭ হাজার ৭২৪ জনের (পঞ্চম) শরীরে করোনা  শনাক্ত হয়েছে।

শীর্ষ দশে থাকা অন্য দেশগুলো হলো - চিলি (৩ লাখ ২১ হাজার ২০৫ জন), মেক্সিকো (৩ লাখ ১৭ হাজার ৬৩৫ জন), দক্ষিণ আফ্রিকা (৩ লাখ ১১ হাজার ৪৯ জন), স্পেন (৩ লাখ ৪ হাজার ৫৭৪ জন) ও যুক্তরাজ্য (২ লাখ ৯১ হাজার ৯১১ জন)।

মৃতের হিসেবেও শীর্ষে রয়েছে যুক্তরাষ্ট্র। দেশটিতে করোনা য় মৃতের সংখ্যা বেড়ে ১ লাখ ৪০ হাজার ১৪০ জনে দাঁড়িয়েছে। ব্রাজিলে দ্বিতীয় সর্বোচ্চ ৭৫ হাজার ৫২৩ জনের মৃত্যু হয়েছে। যুক্তরাজ্যে তৃতীয় সর্বোচ্চ ৪৫ হাজার ৫৩ জন, মেক্সিকোতে চতুর্থ সর্বোচ্চ ৩৬ হাজার ৯০৬ জন ও ইতালিতে পঞ্চম সর্বোচ্চ ৩৪ হাজার ৯৯৭ জনের প্রাণহানি হয়েছে। 

এ হিসেবে শীর্ষ দশে রয়েছে - ফ্রান্স (মৃত্যু ৩০ হাজার ১২০ জন), স্পেন (মৃত্যু ২৮ হাজার ৪১৩ জন), ভারত (মৃত্যু ২৪ হাজার ৯২৯ জন), ইরান (মৃত্যু ১৩ হাজার ৪১০ জন) ও পেরু (মৃত্যু ১২ হাজার ৪১০ জন)।

এছাড়া রাশিয়ায় ১১ হাজার ৭৭০ জন, বেলজিয়ামে ৯ হাজার ৭৮৮ জন, জার্মানিতে ৯ হাজার ১৪৮ জন, কানাডায় ৮ হাজার ৮১০ জন, চিলিতে ৭ হাজার ১৮৬ জন, নেদারল্যান্ডসে ৬ হাজার ১৩৫ জন, কলম্বিয়ায় ৫ হাজার ৮১৪ জন, সুইডেনে ৫ হাজার ৫৭১ জন, তুরস্কে ৫ হাজার ৪১৯ জন, পাকিস্তানে ৫ হাজার ৩৮৬ জন, ইকুয়েডরে ৫ হাজার ১৫৮ জন, চীনে ৪ হাজার ৬৩৪ জন, দক্ষিণ আফ্রিকায় ৪ হাজার ৪৫৩ জন, মিসরে ৪ হাজার ৬৭ জন, ইন্দোনেশিয়ায় ৩ হাজার ৭৯৭ জন, ইরাকে ৩ হাজার ৪৩২ জন, বাংলাদেশে ২ হাজার ৪৫৭ জন, সৌদি আরবে ২ হাজার ৩২৫ জন ও আর্জেন্টিনায় ২ হাজার ৫০ জনের মৃত্যু হয়েছে।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ