বৃহস্পতিবার ০১ অক্টোবর ২০২০
Online Edition

রিমান্ড শেষে কারাগারে ময়ূর-২ লঞ্চের মালিক

স্টাফ রিপোর্টার : বুড়িগঙ্গায় এমএল মর্নিং বার্ড ডুবিতে প্রাণহানির মামলায় ময়ূর-২ লঞ্চের মালিক মোসাদ্দেক হানিফ সোয়াদকে তিন দিনের রিমান্ড শেষে কারাগারে পাঠানোর আদেশ দিয়েছে আদালত।
মামলার তদন্ত কর্মকর্তা সদরঘাট নৌ থানার উপ-পরিদর্শক শহিদুল আলম গতকাল রোববার সোয়াদকে ঢাকার মুখ্য বিচারকি হাকিম আদালতে হাজির করে তাকে তদন্ত শেষ না হওয়া পর্যন্ত কারাগারে আটক রাখার আবেদন করলে বিচারক শাহজাদী তাহমিদা তা মঞ্জুর করেন। এ সময় আসামীর পক্ষে কোনো আইনজীবী আদালতে হাজির ছিলেন না বলে এ আদালতের অতরিক্ত পাবলিক প্রসিকিউটর আনোয়ারুল কবির বাবুল জানিয়েছেন।
এর আগে গত বৃহস্পতিবার এ আদালতের বিচারক মনিকা খান আসামী মোসাদ্দেক হানিফ সোয়াদকে তিন দিনের রিমান্ডে নিয়ে জিজ্ঞাসাবাদের অনুমতি দেন। তার আগের রাতে ঢাকার কলাবাগানের সোবহানবাগ এলাকার একটি অ্যাপার্টমেন্ট থেকে ময়ূর-২ লঞ্চের মালিক সোয়াদকে গ্রেপ্তার করে পুলিশ।
গত ২৯ জুন ঢাকা সদরঘাটের কাছে বুড়িগঙ্গা নদীতে ময়ূর-২ লঞ্চের ধাক্কায় মুন্সীগঞ্জ থেকে যাত্রী নিয়ে আসা মর্নিং বার্ড নামে একটি ছোট লঞ্চ ডুবে অন্তত ৩৪ জনের মৃত্যু হয়। ওই ঘটনায় নৌ-পুলিশে এসআই শামছুল আলম বাদী হয়ে দক্ষিণ কেরানীগঞ্জ থানায় মামলা করেন।
ময়ূর-২ লঞ্চের মালিক মোসাদ্দেক হানিফ সোয়াদ, মাস্টার আবুল বাশার, মাস্টার জাকির হোসেন, স্টাফ শিপন হাওলাদার, শাকিল হোসেন, হৃদয় ও সুকানি নাসির মৃধার নাম উল্লেখ করে অজ্ঞাতপরিচয় আরও পাঁচ থেকে ছয়জনকে সেখানে আসামী করা হয়। প্রাণহানির ঘটনায় তাদের বিরুদ্ধে দন্ডবিধির ২৮০, ৩০৪ (ক), ৩৩৭ ও ৩৪ ধারায় অবহেলাজনিত মৃত্যুসহ কয়েকটি অভিযোগ আনা হয়েছে।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ