বুধবার ১২ আগস্ট ২০২০
Online Edition

বন্যা ও করোনা দুর্যোগে অসহায়দের সাহায্যে এগিয়ে আসুন -মাওলানা আতাউল্লাহ হাফেজ্জী

গতকাল সোমবার কামরাঙ্গীরচরে বাংলাদেশ খেলাফত আন্দোলনের উদ্যোগে দলের মরহুম কেন্দ্রীয় নেতা মাওলানা হেদায়াতুল্লাহ বাশার রহ.-এর স্মরণে দোয়া ও আলোচনা সভার আয়োজন করা হয় -সংগ্রাম

বাংলাদেশ খেলাফত আন্দোলনের আমীরে শরীয়ত মাওলানা আতাউল্লাহ হাফেজ্জী বলেছেন,  দেশের উত্তর পূর্বাংশের জেলা গুলোতে বন্যায় ব্যপক ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছে লক্ষ লক্ষ পানিবন্দি মানুষ। একদিকে করোনা মহামারি অপর দিকে বন্যার কারনে মানুষের জীবন জিবীকা হুমকিতে পড়েছে। এমনিতেই দীর্ঘদিন করোনা মহামারির কারণে সাধারণ মানুষের আয় রোজগার বন্ধ হয়ে যাওয়ায় দরিদ্রসহ মধ্যবিত্ত পরিবারগুলোও অতি কষ্টে দিনাতিপাত করছে। এখনো অনেক অসহায় পরিবারের কাছে সরকারি বেসরকারি কোন সহযোগিতাই পৌঁছেনি। নদী রক্ষাবাধ নির্মাণে দুর্নীতি ও নদী ভাঙ্গন রোধে পরিকল্পিত ব্যবস্থা না থাকার কারণেই বার বার বন্যায় ক্ষতির সম্মুক্ষীণ হচ্ছে দেশের জনগণ।  পরিস্থিতি আরো ভয়াবহ রূপ নেয়ার আগেই সরকারের উচিত অসহায় মানুষের জীবন বাঁচাতে কার্যকর ব্যবস্থা গ্রহণ করা। তিনি এ অবস্থায় অসহায়, দরিদ্র ও ক্ষতিগ্রস্ত মানুষের সহযোগিতায়  এগিয়ে আসতে দেশের বিত্তবানদের প্রতি আহবান জানান।
গতকাল সোমবার কামরাঙ্গীরচরে দলের কেন্দ্রীয় মারকাজে মরহুম মাওলানা হেদায়াতুল্লাহ বাশার রহ. এর স্মরণে অনুষ্ঠিত দোয়া ও আলোচনা সভায়  সভাপতির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন। সভায় উপস্থিত ছিলেন, দলের মহাসচিব মাওলানা হাবিবুল্লাহ মিয়াযী, নায়েবে আমীর মাওলানা শেখ আজিমুদ্দিন, মাওলানা মুজিবুর রহমান হামিদী, যুন্ম মহাসচিব মাওলানা আব্দুল মান্নান, মাওলানা মীর ইদরিস, মাওলানা সাঈদুর রহমান, হাজী জালাল উদ্দিন বকুল, মাওলানা ইউসুফ সাদেক হক্কানী, মাওলানা ফিরোজ আশরাফী, সাংগঠনিক সম্পাদক মুফতি সুলতান মহিউদ্দীন, প্রচার সম্পাদক মাওলানা সাইফুল ইসলাম সুনামগঞ্জী, অর্থ সম্পাদক শাহজাহান, দপ্তর সম্পাদক মাওলানা সানাউল্লাহ, এডভোকেট মুহাম্মদ লিটন চৌধুরী, মাওলানা সাজেদুর রহমান, ডাঃ নিয়ামত আলী ফকির, আব্দুল মালেক চৌধুরী, মুফতি ইলিয়াছ মাদারীপুরী, মাওলানা মাহবুবুর রহমান, মুফতি আফম আকরাম হুসাইন, মাওলানা সালাহউদ্দিন জয়নাল ও হাফেজ আবুল কাশেম রায়পুরী প্রমুখ। 
মাওলানা আতাউল্লাহ আরো বলেন, আল্লাহর জমিনে আল্লাহর খেলাফত প্রতিষ্ঠার জিহাদে মাওলানা হেদায়াতুল্লাহ বাশারের ত্যাগ ও কুরবানী চীর স্মরণীয় হয়ে থাকবে। তিনি আজীবন খেলাফত আন্দোলনের দায়িত্ব পালনে একজন নিবেদিত প্রাণ ছিলেন। প্রেসবিজ্ঞপ্তি।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ