সোমবার ০৩ আগস্ট ২০২০
Online Edition

হংকংয়ের সঙ্গে বহিঃসমর্পণ চুক্তি বাতিল করলো কানাডা

৪ জুলাই, সাউথ চায়না মর্নিং পোস্ট : চীনের বিশেষ প্রশাসনিক অঞ্চল হংকংয়ে জাতীয় নিরাপত্তা আইন কার্যকর হওয়ার পর একের পর এক পাল্টা পদক্ষেপ গ্রহণ করছে যুক্তরাষ্ট্র, যুক্তরাজ্য, অস্ট্রেলিয়া, জাপান ও কানাডাসহ অন্যান্য পশ্চিমা দেশগুলো। সাউথ চায়না মর্নিং পোস্ট

এক বিবৃতিতে কানাডার পররাষ্ট্রমন্ত্রী ফ্রাঙ্কোইস ফিলিপ শ্যাম্পেন হংকংয়ের আইনসভা, বিচারবিভাগ এবং জনগণের সম্মতি ব্যতিত এবং আন্তর্জাতিক বাধ্যবাধকতা অমান্য করে ‘গোপনভাবে’ হংকংয়ের ওপর নিরাপত্তা আইন কার্যকরের সমালোচনা করেন। তিনি বলেন, এই প্রক্রিয়া হংকংয়ের মৌলিক অধিকারের আইন এবং ‘এক দেশ, দুই নীতি’র আওতায় হংকংয়ের জন্য দেয়া স্বায়ত্বশাসনের সুরক্ষার চূড়ান্ত লঙ্ঘন। এই নীতির ওপর ভিত্তি করেই হংকং বৈশ্বিক হাব হয়ে উঠেছিল। এটি ব্যতিত কানাডা তার অবস্থান পরিবর্তন করবে।’ কানাডার পররাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, ‘চীনে যেভাবে পণ্য রপ্তানি করা হয় ঠিক সেভাবেই হংকংয়ে পণ্য রপ্তানি করা হবে। অটোয়া হংকংয়ে আর সংবেদনশীল সামরিক অস্ত্র রপ্তানি করবে না। সেই সঙ্গে আমরা কানাডা-হংকং বহিঃসমর্পণ চুক্তিও বাতিল করছি।’ প্রধানমন্ত্রী জাস্টিন ট্রুডো আরেক বিবৃতিতে বলেছেন, কানাডা হংকংবাসীর জন্য অভিবাসনের সুযোগ উন্মুক্ত করবে। তবে এ বিষয়ে বিস্তারিত কিছু বলেন নি তিনি। ১৯৯৭ সালে চীনের কাছে প্রত্যপর্ণের পর থেকেই হংকংবাসীদের পছন্দের স্থান কানাডা। এ পর্যন্ত ৩ লাখ হংকংবাসী কানাডার পাসপোর্ট পেয়েছেন। ইতোমধ্যে ব্রিটেন ৩০ লাখ হংকংবাসীর জন্য অভিবাসনের ঘোষণা দিয়েছে। অস্ট্রেলিয়াও একই ধরনের পদক্ষেপ বিবেচনা করছে বলে জানিয়েছে। তাইওয়ান বলেছে তারা হংকংবাসীদের পালাতে সহায়তা করবে।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ