ঢাকা, শনিবার 15 August 2020, ৩১ শ্রাবণ ১৪২৭, ২৪ জিলহজ্ব ১৪৪১ হিজরী
Online Edition

বিশ্বে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা ১ কোটি ১০ লাখ ছাড়াল

সংগ্রাম অনলাইন ডেস্ক: শুক্রবার বিশ্বজুড়ে মহামারি করোনাভাইরাসে আক্রান্তের সংখ্যা ১ কোটি ১০ লাখ ছাড়িয়েছে। এরমধ্য দিয়ে আরেকটি দুঃখজনক মাইলফলক পার করলো পৃথিবী। এই ভাইরাস গত ছয় মাসের বেশি সময়ের মধ্যে সোয়া ৫ লাখেরও বেশি মানুষের প্রাণ কেড়ে নিয়েছে। খবর বার্তা সংস্থা রয়টার্স।

এদিকে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা (ডব্লিউএইচও) জানিয়েছে, প্রতি বছর মারাত্মক রোগে ইনফ্লুয়েঞ্জার চেয়ে করোনায় আক্রান্তের সংখ্যা এখন দ্বিগুণ। তবে এ সত্ত্বেও ভাইরাসটি ব্যাপকভাবে সংক্রমণ ছড়িয়েছে এমন অনেক দেশ করোনার বিস্তার রোধে জারি করা লকডাউন শিথিল করতে শুরু করেছে।

তবে অর্থনীতির কথা চিন্তা করে বেশিরভাগ দেশই লকডাউন শিথিল করেছে। এরই মধ্যে কিছু দেশে আবার নতুন করে দেখা যাচ্ছে করোনার প্রকোপ। আর এই প্রকোপ ঠেকাতে বাধ্য হয়ে আবারো লকডাউনের দিকে এগোচ্ছে সেখানকার কর্তৃপক্ষ । বিশেষজ্ঞরা বলছেন, ২০২১ সালেও হয়তো এভাবেই সরকারদের চলা লাগতে পারে।

যুক্তরাষ্ট্রে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা আবার বাড়তে শুরু করেছে। বিশ্বে করোনা আক্রান্ত ও মৃত্যুর সংখ্যার দিক দিয়ে যুক্তরাষ্ট্র শীর্ষে অবস্থান করছে। যুক্তরাষ্ট্রে এ পর্যন্ত করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন ২৮ লাখ ৯০ হাজার ৫৮৮ জন। মারা গেছেন ১ লাখ ৩১ হাজার ১০১ জন। বিশ্বের সর্বমোট করোনার মৃত্যুর চার ভাগের এক ভাগই হয়েছে যুক্তরাষ্ট্রে। এছাড়া ল্যাটিন আমেরিকার দেশ ব্রাজিলেও করোনা ভাইরাসে আক্রান্তের সংখ্যা ১৫ লাখ ছাড়িয়েছে। এশিয়ার মধ্যে সবচেয়ে বেশি করোনা আক্রান্ত রোগী পাওয়া গেছে ভারতে। দেশটিতে ৬ লাখ ২৫ হাজারের বেশি করোনা আক্রান্ত রোগী পাওয়া গেছে।

কিছু দেশে করোনা টেস্ট না করাতে পারায় আক্রান্তের সঠিক সংখা জানা যাচ্ছে না। বিশেষজ্ঞরা বলছেন, সরকারি তথ্য করোনা মহামারি পরিস্থিতির পুরো চিত্র তুলে ধরতে পারছে না।

বিশ্বজুড়ে এখন পর্যন্ত ৫ লাখ ২০ হাজারের মতো মানুষ করোনায় আক্রান্ত হয়ে মারা গেছেন। প্রতিবছর ইনফ্লুয়েঞ্জাতেও বিশ্বে এ পরিমাণ মানুষ মারা যান বলে জানায় রয়টার্স। এ বছরের ১০ জানুয়ারি করোনা ভাইরাস নিয়ে চীনের উহান থেকে প্রথম খবর পাওয়া যায়। পরে ভাইরাসটি ইউরোপ, যুক্তরাষ্ট্র এবং রাশিয়ায় ছড়িয়ে পড়ে।

ডিএস/এএইচ

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ