ঢাকা, বৃহস্পতিবার 12 August 2020, ২৯ শ্রাবণ ১৪২৭, ২২ জিলহজ্ব ১৪৪১ হিজরী
Online Edition

উদ্ধারকারি জাহাজের ধাক্কায় বুড়িগঙ্গা সেতুতে ফাটল

সংগ্রাম অনলাইন ডেস্ক: ঢাকার সদরঘাটে আজ সকালে ডুবে যাওয়া লঞ্চ উদ্ধারে যাওয়ার সময় উদ্ধারকারী জাহাজের ধাক্কায় সেতুটিতে ফাটল তৈরি হয় বলে সড়ক ও জনপথ বিভাগ (সওজ) জানিয়েছে।

রাজধানীর পোস্তগোলায় বুড়িগঙ্গা নদীর ওপর বাংলাদেশ-চীন মৈত্রী সেতু-১ (প্রথম বুড়িগঙ্গা সেতু) এর চার লেনের একটিতে সোমবার (২৯ জুন) সন্ধ্যা থেকে যানবাহন চলাচল সাময়িকভাবে বন্ধ রাখা হয়েছে।

সওজের অতিরিক্ত প্রধান প্রকৌশলী (ঢাকা অঞ্চল) সবুজ উদ্দিন খান বিষয়টি নিশ্চিত করে বলেন, ‘সেতুর একটি জায়গায় ফাটল দেখা দেওয়ায় যানবাহন চলাচল স্থগিত করেছি। আগামীকাল আমাদের বিশেষজ্ঞরা পরিদর্শন করার পর পরবর্তী ব্যবস্থা নেওয়া হবে।’

সওজের প্রকৌশলী আরো বলেন, ‘পরিদর্শন করে দেখা গেছে, সেতুর গার্ডারের অংশ ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। এ কারণে ঢাকা-মাওয়া রুটে যান চলাচলের একটি লেন বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে। আগামীকাল বিশেষজ্ঞ দল পরিদর্শনের পর, যদি প্রয়োজন হয়, তবে অন্য লেনও বন্ধ করে দেওয়া হবে।’

শ্যামপুর থানার ওসি আবু আনসার সংবাদ মাধ্যমকে জানান, রাত ৮টা থেকে সব প্রকার যান চলাচল বন্ধ রাখা হয়েছে।

সেতুর যান চলাচল বন্ধ থাকায় ঢাকা-মাওয়া সড়কের এক পাশও বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে।

বুড়িগঙ্গা সেতু-১ বন্ধ হলেও বাবুবাজারের সেতু দিয়ে মাওয়া অভিমুখে চলাচল করা যাচ্ছে।

সকাল বড় একটি লঞ্চের ধাক্বায় যাত্রীবাহী ছোট লঞ্চটি ডুবে অন্তত ৩২ যাত্রীর মৃত্যু হয়।

লঞ্চটি ডুবে যাওয়ার পর তা উদ্ধারে নারায়ণগঞ্জ থেকে আসছিল উদ্ধারকারী জাহাজ প্রত্যয়। কিন্তু সেটি সেতুর নিচে দিয়ে আসতে পারেনি।এ সময় সেই জাহাজের ধাক্কায় সেতুতে ফাটল দেখা দেয়।

এ বিষয়ে বিআইডব্লিউটিএর চেয়ারম্যান কমোডর গোলাম সাদেক বলেন, ‘উদ্ধারকারী জাহাজের মাস্টার দ্রুত দুর্ঘটনাস্থলে পৌঁছতে চাইছিলেন। তার ভুলে সেতুতে আঘাত লাগতে পারে।’

তবে, সেতুতে যে ফাটল তৈরি হয়েছে, তা তেমন মারাত্মক নয় বলে তিনি মনে করেন। উদ্ধারকারী জাহাজটি সেতু পার হতে না পারায়, বিকল্প পথ দিয়ে গিয়ে উদ্ধার অভিযান চালিয়েছে বলেও জানান বিআইডব্লিউটিএ চেয়ারম্যান।

ডিএস/এএইচ

 

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ