শনিবার ০৪ জুলাই ২০২০
Online Edition

স্ত্রী ও শাশুড়িসহ ৩ জনের বিরুদ্ধে হত্যা মামলা

স্টাফ রিপোর্টার: রাজধানীর বাড্ডার আফতাব নগরের বাসায় অগ্নিদগ্ধ হয়ে দৈনিক যুগান্তরের সিনিয়র ক্রাইম রিপোর্টার মোয়াজ্জেম হোসেন নান্নুর মৃত্যুর ঘটনায় তার স্ত্রীসহ তিনজনের বিরুদ্ধে হত্যামামলা দায়ের করা হয়েছে। মামলায় স্ত্রী সাহিনা হোসেন পল্লবী, শাশুড়ি শান্তা পারভেজ ও ও ইনফিনিটি গ্রুপের একজনকে আসামী করা হয়েছে। গতকাল সোমবার নান্নুর বড় ভাই নজরুল ইসলাম খোকন বাদী হয়ে রাজধানীর বাড্ডা থানায় এ মামলা দায়ের করেন।
মামলার এজাহারে বাদী অভিযোগ করেন, নান্নুর স্ত্রী সাহিনা হোসেন পল্লবী ও শাশুড়ি শান্তা পারভেজসহ অজ্ঞাতনামা আসামীরা পরস্পর যোগসাজশে খুন করার উদ্দেশ্যে ১১ জুন রাত সাড়ে ৩টার দিকে আফতাব নগরের নিজ ফ্ল্যাটে আগুনের ঘটনা ঘটায়। এই ঘটনায় অগ্নিদগ্ধ হয়ে মুমূর্ষু অবস্থায় শেখ হাসিনা জাতীয় বার্ন ও প্লাস্টিক সার্জারি ইনস্টিটিউটের আইসিইউতে চিকিৎসাধীন থাকাকালে ১৩ জুন সকাল ৮ টা ২০ মিনিটে মারা যান নান্নু। ঘটনার বিষয়টি আত্মীয়-স্বজন ও নান্নুর সহকর্মী সাংবাদিকদের সঙ্গে আলোচনা করে থানায় এসে এজাহার দিতে দেরি হয়েছে। বাড্ডা থানার ওসি পারভেজ ইসলাম গতকাল দুপুর ২টা ২০ মিনিটে মামলাটি ৩০২ ও ৩৪ ধারায় হত্যা মামলা হিসেবে নথিভুক্ত করেন।
গত ১২ জুন শুক্রবার ভোররাতে রাজধানীর আফতাবনগরে নিজ ফ্ল্যাটে আগুনে পুড়ে মারাত্মকভাবে দগ্ধ হন মোয়াজ্জেম হোসেন নান্নু। আগুনে তার শরীরের ৬০ শতাংশ পুড়ে যায়। পরদিন (১৩ জুন) সকালে শেখ হাসিনা জাতীয় বার্ন ও প্লাস্টিক সার্জারি ইনস্টিটিউটের আইসিইউতে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তিনি মারা যান। ফ্ল্যাটটির একই কক্ষে গত ২ জানুয়ারিতেও আগুন লেগেছিল। তখন দগ্ধ হয়ে মারা যান মোয়াজ্জেমের একমাত্র ছেলে স্বপ্নিল আহমেদ পিয়াস।
অগ্নিকাণ্ডের পরে সাংবাদিক নান্নুর স্ত্রী পল্লবী হাসপাতালে সাংবাদিকদের বলেন, ‘নান্নু গভীররাতে কাজ থেকে বাসায় ফেরেন। পরে ৩টার দিকে তার ছেলের রুম ঢোকেন। রুমের সুইচ দেওয়ার সঙ্গে সঙ্গে হঠাৎ বিকট শব্দ হয়।’ আগুন লাগার কারণ হিসেবে ফায়ার সার্ভিসের সদর দফতরের ডিউটি অফিসার এরশাদ হোসেন বলেন, ‘ধারণা করা হচ্ছে, বিদ্যুতের স্পার্কের সঙ্গে গ্যাসের যোগ ঘটায় আগুন ধরেছে।’
মোয়াজ্জেম হোসেন দৈনিক যুগান্তরের অপরাধ বিভাগের প্রধান ছিলেন। তিনি ক্রাইম রিপোর্টার্স অ্যাসোসিয়েশন অব বাংলাদেশের (ক্র্যাব) সাবেক সাধারণ সম্পাদক। এ ব্যাপারে বাড্ডা থানার ওসি পারভেজ ইসলাম বলেন, নান্নুর মামলাটি তারা তদন্ত করবেন। এরপরই এই বিষয়ে তিনি মন্তব্য করতে চান।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ