ঢাকা, শুক্রবার 18 September 2020, ৩ আশ্বিন ১৪২৭, ২৯ মহররম ১৪৪২ হিজরী
Online Edition

পঙ্গপালের ঝাঁকে ছেয়ে গেছে দিল্লির আকাশ

সংগ্রাম অনলাইন ডেস্ক: ভারতের রাজধানী দিল্লির বিভিন্ন এলাকায় ঢুকে পড়েছে লাখ লাখ পঙ্গপাল। দিল্লি ঘেঁষা গুরুগ্রামের ওপর দিয়ে পঙ্গপালের দলটি শনিবার উড়ে যায়।

মাসখানেক আগে পশ্চিম ও মধ্য ভারতে উপদ্রব দেখা দিয়েছিল পঙ্গপালের। এবার ঝাঁকে ঝাঁকে পঙ্গপাল পৌঁছেছে উত্তর ভারতেও। রাজধানী দিল্লি সংলগ্ন গুরুগ্রামের আকাশ ছেয়ে গিয়েছে পঙ্গপালে। হরিয়ানার বিস্তীর্ণ অঞ্চলেও তাদের উপদ্রব বেড়েছে। তাদের হাত থকে বাঁচতে দরজা-জানালা বন্ধ করে এক রকমের গৃহবন্দি হয়ে রয়েছেন স্থানীয় মানুষ।

গুরুগ্রামের সাইবার হাব এলাকায় শুক্রবার বিকেল থেকেই পঙ্গপালের উপদ্রব শুরু হয়। তার জেরে স্থানীয় বাসিন্দাদের দরজা-জানালা বন্ধ রাখার নির্দেশ দেয় জেলা প্রশাসন। থালা-বাসন বাজিয়ে পঙ্গপাল তাড়ানোর পরামর্শও দেওয়া হয়। কিন্তু রাত পেরিয়ে গেলেও মরু পতঙ্গের দল এলাকা ছেড়ে যায়নি। বরং এ দিন সকালে গোটা এলাকা পঙ্গপালে ছেয়ে যায়। আতঙ্কে দরজা-জানালা বন্ধ করে বাড়িতেই বসে থাকেন স্থানীয়রা। এমজি রোড, ইফকো চক, ডিএলএফ ফেজ আই-৪, ভিলেজ চক্করপুর, সিকন্দরপুর, সুখরালির মতো গুরুগ্রামের ব্যস্ত এলাকাতেও এ দিন পঙ্গপাল হানা দেয়।

ভারতের কেন্দ্রীয় কৃষি মন্ত্রণালয়ে পঙ্গপাল সতর্কীকরণ বিভাগের কর্মকর্তা মহেন্দ্র লাল গুজ্জর জানান, শুক্রবার রাজস্থানের ঝুনঝুনুর কাছে পঙ্গপালের একটি ঝাঁককে দেখতে পেয়ে সক্রিয় হয় সেখানকার কন্ট্রোল টিমটি। কীটনাশক ছড়িয়ে বহু পঙ্গপালকে মারাও হয়। বাকি দলটি তখন হরিয়ানার রেওয়ারির দিকে উড়ে যায়। পথে তারা তিনটি অংশে ভাগ হয়ে যায়। একটি যায় গুরুগ্রামের দিকে, একটি হরিয়ানার ফরিদাবাদের দিকে এবং শেষ দলটি যায় দিল্লির দ্বারকা অভিমুখে।

ভারতের মহারাষ্ট্র, উত্তরপ্রদেশ, পঞ্জাব, রাজস্থান, গুজরাট, মধ্যপ্রদেশ ও হরিয়ানায় পঙ্গপালের হানায় ফসল নষ্ট হয়েছে। এ নিয়ে ভারতের রাজধানীতে হাই অ্যালার্ট জারি করা হয়েছে। দমকল বাহিনীদেরকে পঙ্গপালের দমনের জন্য মাঠে নামানো হয়েছে । পঙ্গপাল রাতে গাছে বিশ্রাম করে। তাই রাতেই কীটনাশক ছড়িয়ে পঙ্গপাল মারার কাজ চালানো হবে বলে দিল্লির রাজ্য সরকারের পক্ষ থেকে বলা হয়েছে।

ডিএস/এএইচ

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ