শনিবার ১৫ আগস্ট ২০২০
Online Edition

মানসিকভাবে আমাদের শক্ত থাকাই এখন সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ -------- মুমিনুল

স্পোর্টস রিপোর্টার: করোনা ভাইরাসের কারণে একের পর এক স্থগিত হচ্ছে বাংলাদেশের টেস্ট সিরিজ। ইতোমধ্যে পাঁচ সিরিজের আটটি ম্যাচ স্থগিত হয়েছে টাইগারদের। তার মধ্যে সর্বশেষ হিসাবে স্থগিত হয়েছে শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে তিন ম্যাচের টেস্ট সফরও।

 ক্রিকেটারদের জন্য এটা একটি মাসসিক চাপ। তবে এই দুঃসময়ে মানসিকভাবে শক্ত থাকার প্রতি জোর দিচ্ছেন টেস্ট অধিনায়ক মুমিনুল হক। সিরিজ বাতিল হওয়া নিয়ে টাইগারদের টেস্ট অধিনায়ক কথা বলেছেন ক্রীড়া ভিত্তিক ওয়েবসাইট ইএসপিএন ক্রিকইনফো’র সঙ্গে। মুমিনুল বলেন, ‘অবশ্যই আমি ক্রিকেট মিস করছি, অন্য সবার মতো অবশ্যই তার জন্য খারাপ লাগছে। এ বছরের জন্য আমারও পরিকল্পনা ছিল। কিন্তু আমাদের মনে রাখতে হবে যে, এটা আমাদের নিয়ন্ত্রণে নেই। তাই এই ব্যাপারে আমাদের করার কিছুই নেই। আমাদের অনেক টেস্ট স্থগিত হয়েছে। তবে একমাত্র আশার আলো হচ্ছে, যেহেতু এটা টেস্ট চ্যাম্পিয়নসশিপ, আমরা সেই টেস্টগুলো খেলতে পারবো। আমাদের লক্ষ্য ছোট ছোট পদক্ষেপ নিয়ে উন্নতি করা।’ করোনায় আক্রান্ত হওয়ার ঝুঁকি এড়াতে আপাতত মাঠে যাওয়াও নিষিদ্ধ মুমিনুলদের জন্য। স্বাভাবিক অবস্থা কবে ফিরবে তাও অনিশ্চিত। তবে সময়টাতে তিনি সতীর্থদের সঙ্গে আলোচনা করছেন পরিস্থিতি নিয়ে। 

বিশেষ করে জুনিয়র ক্রিকেটারদের উপদেশ দিচ্ছেন মানসিকভাবে শক্ত থাকার জন্য। মুমিনুল বলেন, ‘একজন পেশাদার খেলোয়াড় হিসেবে, ব্যাট-বলের বিষয়টা আমাদের রক্তেই আছে সবসময়। যখন ২-৩ মাস বাসায় লকডাউনের মধ্যে আছেন, তাই এ সময়ে গুরুত্বপূর্ণ হচ্ছে মানসিকভাবে নিজেকে শক্ত রাখা। আমি মনে করি, ৫-৬ দিন কাজের মাধ্যমে নিজের ফিটনেস ধরে রাখতে পারবেন। তবে মানসিকভাবে শক্ত থাকাই সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ।’ করোনা ভাইরাসের কারণে প্রথমে বন্ধ হলো পাকিস্তান সফর। গত এপ্রিলে এক ওয়ানডে আর এক টেস্ট খেলতে করাচি যাওয়ার কথা ছিল টাইগারদের। তা স্থগিত হলো। 

এটি পুনরায় কবে হবে, তা জানা নেই কারও। গত মাসে জাতীয় দলের যাওয়ার কথা ছিল আয়ারল্যান্ড ও ইংল্যান্ডে। আইরিশ জাতীয় দলের সঙ্গে টি-টোয়েন্টি আর ওয়ানডে সিরিজে অঙ্ক নেয়ার কথা ছিল টাইগারদের। সেটাও হয়নি, স্থগিত হয়েছে অনির্দিষ্টকালীন সময়ের জন্য। তারপর এই চলতি জুনে অস্ট্রেলিয়ার আসার কথা ছিল বাংলাদেশে। করোনার থাবায় তাও স্থগিত। আগস্ট- সেপ্টেম্বরে ছিল নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে হোম সিরিজ। সেটাও করেনার ভয়বহতার কথা চিন্তা করে আপাতত বন্ধ রাখার সিদ্ধান্ত হয়েছে। সবশেষে ঘোষণা এলো টাইগারদের শ্রীলঙ্কা সফর স্থগিতের। জুলাই-আগস্টে শ্রীলঙ্কায় আইসিসি টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপের তিন ম্যাচে অঙ্ক নেয়ার কথা ছিল মুমিনুল, মুশফিকদের। সেটাও স্থগিত করা হয়েছে। সবমিলিয়ে তিনটি বিদেশ সফর আর দুইটি হোম সিরিজসহ মোট পাঁচটি সিরিজ স্থগিত। ফলে ২০২০ সালে আর কোন প্রতিযোগিতামূলক ক্রিকেটে অঙ্ক নেয়ার সুযোগ পাবেন? করোনা সঙ্কট না কাটলে আসলে ক্রিকেটীয় কার্যক্রম চালু করা সম্ভব না। 

এটা শুধু বিসিবির এখতিয়ারও নয়। দেশের করোনা পরিস্থতির ওপর নির্ভর করবে সরকারের চিন্তাভাবনা ও সিদ্ধান্ত। এছাড়া বাংলাদেশে খেলার মত অবস্থা আছে কি-না? সেটা খুঁটিয়ে দেখে তবেই না বাংলাদেশের মাটিতে আন্তর্জাতিক সিরিজ আয়োজনের অনুমতি দেবে আইসিসি। তবে ক্রিকেট ক্যালেন্ডারে এ বছর আরও তিনটি অ্যাসাইনমেন্ট বাকি জাতীয় দলের। সেপ্টেম্বরে এশিয়া কাপ, অক্টোবর-নভেম্বরে টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ এবং এ বছরের শেষভাগে না হয় আগামী বছরের শুরুতে তিনটি একদিনের ম্যাচ খেলতে শ্রীলঙ্কা যাওয়ার কথা রয়েছে বাংলাদেশের। এশিয়া কাপ আর টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ দুটি আসর হওয়ার সম্ভাবনা খুব কম। আর ঐ দুই আসর স্থগিত হলে ২০২০ সালে আর টাইগারদের মাঠে নামা নাও হতে পারে।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ