মঙ্গলবার ০৪ আগস্ট ২০২০
Online Edition

জুনিয়র এশিয়া কাপ হকি আগামী বছর আয়োজনের পরিকল্পনা

স্পোর্টস রিপোর্টার : যতই দিন যাচ্ছে করোনা সংক্রমণের প্রভাব যেনো বেড়েই চলেছে। এমন কঠিন পরিস্থিতিতে স্থবিরতা বিরাজ করছে দেশের ক্রীড়াঙ্গনে। মাঠে হকি নেই দীর্ঘদিন। লকডাউনের পরে শুনশান নিরবতা দেশের হকি অঙ্গনে। যদিও চলতি বছরের জুনে ঢাকায় অনুষ্ঠিত হওয়ার কথা ছিল জুনিয়র এশিয়া কাপ। দেশব্যাপী করোনা মহামারি আকার ধারণ করায় পিছিয়ে গেছে আন্তর্জাতিক এ  টুর্নামেন্টটি। আগামী বছরের ফেব্রুয়ারির শেষে অথবা মার্চের শুরুতে জুনিয়র এশিয়া কাপ আয়োজন করার পরিকল্পনা করছে বাংলাদেশ হকি ফেডারেশন। করোনা পরিস্থিতি বিবেচনায় সহসাই কোন ক্যাম্প শুরু করবেনা ফেডারেশন। পরিস্থিতি বিবেচনা করেই জাতীয় দল, জুনিয়র দল ও নারী দলের ক্যাম্প শুরুর কথা জানালেন ফেডারেশনের সহ সভপাতি সাজেদ এ আদেল। করোনায় খেলোয়াড়রা গৃহবন্দী থাকলেও, নিজেদের ক্যারিয়ারের কথা মাথায় রেখে যাতে ফিটনেসের ওপর গুরুত্ব দেয় এমনটাই পরমার্শ সাবেক এই খেলোয়াড়ের। করোনার কারণে মাঠে হকি না থাকলেও, এশিয়ান হকি ফেডারেশনের সাথে নিয়মিত যোগাযোগ রয়েছে ফেডারেশন কর্তাদের। জুনিয়র এশিয়া কাপের নতুন তারিখ নিয়ে কদিন আগেই ফেডারেশনের কাছে একটি বার্তা পাঠায় এশিয়ান হকি ফেডারেশন। অবশ্য সেই মেইলের উত্তরও দেয় হকি ফেডারেশন। জুনিয়র এশিয়া কাপ আগামী বছরের ফেব্রুয়ারির শেষে অথবা মার্চের শুরুতে আয়োজন করার কথা জানিয়েছেন ফেডারেশন। এদিকে, করোনার মাঝেই আগস্টের প্রথম সপ্তাহে মাঠে ফেরার কথা রয়েছে জাতীয় ফুটবল দলের। সেই সাথে খেলোয়াড়দের কথা মাথায় রেখে মাঠে ফেরার প্রস্তুতি চালাচ্ছে অন্যান্য ফেডারেশনও। তাই পরিস্থিতি বিবেচনায় হকি ফেডারেশনও খেলোয়াড়দের ক্যাম্প নিয়ে চিন্তা ভাবনা করছে বলে জানায় এই কর্তা। করোনায় খেলোয়াড়রা গৃহবন্দী থাকলেও, নিজেদের ক্যারিয়ারের কথা মাথায় রেখে যাতে ফিটনেসের ওপর গুরুত্ব দেয়। এমনটাই পরমার্শ সাজেদ আদেলের করোনার ক্রান্তি কাটিয়ে আবারো মাঠে গড়াবে হকি। এমনটাই প্রত্যাশা সাজেদ আদেলের।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ