সোমবার ১০ আগস্ট ২০২০
Online Edition

করোনায় আক্রান্ত ও মৃত্যু

নারায়ণগঞ্জ সংবাদদাতা: নারায়ণগঞ্জ স্বাস্থ্য বিভাগের তথ্য মতে গত ২৪ ঘন্টায় কোন মৃত্যুর তথ্য পাওয়া যায়নি। জেলায় মোট মৃত্যুর সংখ্যা ৯৩। আরও ৬৭ জনের শরীরে করোনাভাইরাস শনাক্ত হয়েছে। এনিয়ে নারায়ণগঞ্জে মোট আক্রান্তের সংখ্যা দাড়াঁলো ৩ হাজার ৮৩৮। বৃহস্পতিবার নারায়ণগঞ্জ সিভিল সার্জন অফিস এ তথ্য নিশ্চিত করেন। স্বাস্থ্য বিভাগের দেয়া তথ্যানুসারে, গত ২৪ ঘন্টায় জেলায় নতুন ভাবে আক্রান্ত হয়েছেন ৬৭জন, মোট আক্রান্ত ৩৮৩৮ জন। নতুন আরও ২৩২জনসহ, মোট সুস্থ ১৩১২ জন। মোট মৃত্যুর সংখ্যাটা ৯৩ জনের। এলাকা ভিত্তিক এ যাবৎ প্রাণ হারিয়েছে – আড়াইহাজার উপজেলায় ২, বন্দর উপজেলায় ৩, সিটি করপোরেশন (এনসিসি) এলাকায় ৫৪, রূপগঞ্জ উপজেলায় ২, সদর উপজেলায়(ফতুল্লা, সিদ্ধিরগঞ্জ ও সদর থানা) ২০, সোনারগাঁও উপজেলায় ১২ জন। পুরো জেলায় ৯৩জন। নতুন তথ্যানুসারে এলাকা ভিত্তিক আক্রান্তের সংখ্যা হলো- আড়াইহাজার উপজেলায় ৩৩৩, বন্দর উপজেলায় ১১৯, সিটি করপোরেশন(এনসিসি) এলাকায় ১৩৯৭, রূপগঞ্জ উপজেলায় ৬৪২, সদর উপজেলায়(ফতুল্লা, সিদ্ধিরগঞ্জ ও সদর থানা) ১০২০ ও সোনারগাঁও উপজেলায় ৩২৭ জন। পুরো জেলায় ৩৮৩৮ জন।

এলাকা ভিত্তিক সুস্থের সংখ্যা হলো- আড়াইহাজার উপজেলায় ১০২, বন্দর উপজেলায় ২১, সিটি করপোরেশন(এনসিসি) এলাকায় ৬০০, রূপগঞ্জ উপজেলায় ১৯২, সদর উপজেলায়(ফতুল্লা, সিদ্ধিরগঞ্জ ও সদর থানা) ৩৬৫ ও সোনারগাঁও উপজেলায় ৩২ জন। পুরো জেলায় ১৩১২ জন।

গোমস্তাপুর (চাঁপাইনবাবগঞ্জ): চাঁপাইনবাবগঞ্জের গোমস্তাপুর উপজেলার ৪ জন স্বাস্থ্যকর্মী, ১ জন সেনা সদস্য ও ১ জন ব্যাংকারসহ ৮ জন নতুন করে করোনা আক্রান্ত হয়েছে। বুধবার সন্ধ্যায় স্বাস্থ্য বিভাগের এক রিপোর্টে এ তথ্য জানা যায়। গত ৩ ও ৪  জুন তাদের নমুনা সংগ্রহ করা হয়। ঢাকার সাভারের পশু সম্পদ অধিদপ্তরের ল্যাবে গত ৮ জুন নমুনাগুলো পরীক্ষা  করা হয়। এর মধ্যে ৮ জনের করোনা পজেটিভ রিপোর্ট এসেছে।

ভোলাহাট (চাঁপাইনবাবগঞ্জ): ভোলাহাট উপজেলায় নতুন করে ৬ জনের করোনা শনাক্ত হয়েছে। ভোলাহাট উপজেলার স্বাস্থ্য ও প: প: কর্মকর্তা ডা. আব্দুল হামিদ জানান, ৮ জুন পাঠানো ৭৩ জনের রিপোর্ট ১০ জুন বুধবার আসে। তার মধ্যে ৬ জনের পজেটিভ রিপোর্ট এসেছে। বাকি ৬৭ জন নেগেটিভ। নতুন পজেটিভ আসা ৬ জন হচ্ছে, ভোলাহাট সদর ইউনিয়নের গোপিনাথপুর গ্রামের উম্মে কুলসুম (২০), গোলাবাড়ি ইউনিয়নের কানারহাট গ্রামের রিনা (৩৫) ও সিফাত (২০) প্রমুখ।

শেরপুর: শেরপুরে আজ নতুন করে আরো পনেরজন করোনা রোগী শনাক্ত হয়েছেন, যা একদিনে সর্বোচ্চ। এর মধ্যে শেরপুর সদর উপজেলায় নয়জন, নকলাতে পাঁচজন ও নালিতাবাড়ী উপজেলায় একজন। এ নিয়ে জেলায় করোনায় আক্রান্ত রোগী সনাক্ত হলেন একশত বিয়াল্লিশজন। শেরপুর সদর উপজেলায় মোট আক্রান্ত ৬৩ জন। আক্রান্তের বাড়ি ও সংস্পর্শে আসা লোকজনকে কোয়ারেন্টিনে রাখা হয়েছে। তাঁরা প্রাতিষ্ঠানিক ও হোম আইসোলেশনে রয়েছেন। সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরেছেন মোট ৭২জন।

জৈন্তাপুর (সিলেট): সিলেটের জৈন্তাপুরে  কোভিড-১৯ করোনা ভাইরাসে আক্রান্তের সংখ্যা বৃদ্ধি পেয়ে ৫০গিয়ে দাঁড়িয়েছে। অপরদিকে ভোগান্তি বাড়ছে নমুনা সংগ্রহের ক্ষেত্রে। ৯দিন পেরিয়ে গেলেও পাওয়া যাচ্ছেনা নমুনা পরীক্ষার ফলাফল। আক্রান্তরা বাজারে ঘুরে বেড়াচ্ছে। আতংঙ্ক ও উৎকন্টায় রয়েছে সচেতন মহল। উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা অধিদপ্তর সূত্রে যানাযায়, এপর্যন্ত উপজেলায় কোভিড-১৯ করোনা ভাইরাসের আক্রান্তের সংখ্যা দিন দিন বৃদ্ধি পাচ্ছে। উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স সহ সিলেট বিভাগের বিভিন্ন স্থান হতে প্রায় সাড়ে ৪শত জনের নমুনা সংগ্রহ করা হয়েছে। তারমধ্যে গত ৯জুন পর্যন্ত আক্রান্তের সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ৫০জনে। আক্রান্তদের মধ্যে হতে ১জন মৃত্যু বরণ করেছে, ২জন সুস্থ্য হয়েছে বাকিরা বিভিন্ন স্থানে চিকিৎসাধিন রয়েছে। গত ২রা জুন হতে জৈন্তাপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স ৯জুন পর্যন্ত প্রায় ৬২জনের নমুনা সংগ্রহ করে ল্যাবে প্রেরণ করা হলেও তাদের ফলাফল এখন পর্যন্ত আমাদের হাতে এসে পৌছানি। এছাড়া ১০জুন বুধবার আরও ২৩টি নমুনা সংগ্রহ করে ল্যাবে প্রেরণ করা হয়েছে।

চৌহালী (সিরাজগঞ্জ): দুই ডাক্তার সহ ৮ জন কোভিট-১৯ আক্রান্ত হওয়ায় সিরাজগঞ্জের চৌহালী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স লকডাউন ঘোষণা করা হয়েছে। বৃহস্পতিবার সকালে এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা. আবদুল কাদের। 

সংশ্লিষ্ট সূত্র জানায়, যমুনা বিধ্বস্ত চৌহালীতে গত ৩ জুন প্রথম করোনা রোগী সনাক্ত হয়। এর মধ্যে স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের প্রধান সহকারী কাম-হিসাব রক্ষক ও সোনালী ব্যাংক খাষকাউলিয়া শাখার এক কর্মকর্তা ছিল। পরে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে কর্মরত স্বাস্থ্যকর্মীদের নমুনা পাঠানো হলে উপসহকারী কমিউনিটি মেডিকেল অফিসার ২ জন, ফার্মাসিষ্ট ২ জন এবং অন্যান্য কর্মকর্তা ও কর্মচারী সহ ৮ জনের করোনা সনাক্ত হয়। এ কারনে চৌহালীতে করোনার হট স্পট হিসেবে হাসপাতাল এলাকাকে ধরা হয়। এজন্য উপজেলা স্বাস্থ্য ও প. প. কর্মকর্তা সাক্ষরিত এক বিজ্ঞপ্তিতে বুধবার (১০জুন) থেকে চৌহালী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স লকডাউন ঘোষনা করা হয়।

যশোর: যশোর ২৫০ শয্যা হাসপাতালের আইসোলেশন ওয়ার্ডে চিকিৎসাধীন রোগীর মৃত্যুর সংখ্যা বৃদ্ধি পাচ্ছে। একই সাথে বৃদ্ধি পাচ্ছে পালিয়ে যাওয়া রোগীর সংখ্যা। গত ৩৬ দিনে এ ওয়ার্ডে ৭ জন রোগীর মৃত্যু হয়েছে। পালিয়ে গেছে ৩০ জন। যথাযথ চিকিৎসা, ওষুধ ও ভালো খাবার না পাওয়ার কারণে এখানে রোগীর মৃত্যু ও পালিয়ে যাওয়ার ঘটনা বৃদ্ধি পাচ্ছে। সূত্র জানিয়েছে, গত ৯ জুন সন্ধ্যায় হাসপাতালের করোনা আইসোলেশন ওয়ার্ডে চিকিৎসাধীন অবস্থায় এক বয়স্ক নারীর মৃত্যু হয়েছে। অপরদিকে, এক কিশোর পালিয়ে গেছে। মৃত জোহরা বেগম (৫৫) যশোরের ঝিকরগাছা উপজেলার বরন্দি গ্রামের হায়াত আলীর স্ত্রী। এদিন বিকেল ৪টা ৩৮ মিনিটে তাকে করোনা আইসোলেশন ওয়ার্ডে ভর্তি করা হয়েছিল। সেখানে প্রায় দেড় ঘন্টা অবস্থান করার পর সন্ধ্যা ৬টায় তার মৃত্যু হয়। ভালো চিকিৎসা না পাওয়ার কারণে তার মৃত্যু হয়েছে বলে স্বজনরা জানিয়েছেন।

সিরাজদীখান (মুন্সীগঞ্জ): মুন্সীগঞ্জের সিরাজদীখান উপজেলায় মাইটিভির জেলা প্রতিনিধি,ইউপি চেয়ারম্যান এবং একই পরিবারের ৭ জনসহ  ২৮ জনের দেহে করোনা ভাইরাস শনাক্ত হয়েছে। ৭ ও ৮ তারিখে পাঠানো নমুনায় এই ২৮ জন করোনায় শনাক্ত হয়। আজ বৃহস্পতিবার বেলা আড়াইটার সময় উপজেলা স্বাস্থ্য কর্মকর্তা ডা: বদিউজ্জামান এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন। তিনি জানান, মুন্সীগঞ্জ জেলা মাইটিভির প্রতিনিধি মোহাম্মদ মোক্তার হোসেন,রশুনিয়া ইউপি চেয়ারম্যান ইকবাল হোসেন চোকদার, উপজেলার রাজানগর ইউনিয়নের একই পরিবারের ৭ জনসহ মোট ২৮ জন করোনা ভাইরাসে  আক্রান্ত হয়েছে ।  এনিয়ে সিরাজদীখানে মোট আক্রান্তের সংখ্যা ২০১ জন এবং  সুস্থ্য হয়েছেন  মোট সুস্থ্য ৬২ জন আর মৃত্যু হয়েছে ৩ জন ।

মাগুরা: মাগুরায় নতুন করে আরো ২ জনের শরীরে করোনা শনাক্ত হয়েছে। ১১ জুন বৃহস্পাতিবার গত২৪ ঘন্টায় খুলনা মেডিকেল কলেজ পিসিআর ল্যাব থেকে আসা নমুনা পরীক্ষায় তাদের করোনা পজিটিভ এসেছে। এ নিয়ে পর্যন্ত জেলায় মোট আক্রান্তের সংখ্যা দাড়ালো ৪৬ জনে।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ