শনিবার ০৮ আগস্ট ২০২০
Online Edition

শিক্ষানবীশ আইনজীবীদের  মানববন্ধন কর্মসূচী পালিত

গাইবান্ধা সংবাদদাতা ঃ জেলা বার এসোসিয়েশনের সকল শিক্ষানবীশ আইনজীবিদের বার কাউন্সিলে সরাসরি তালিকাভূক্তি করে সনদ প্রদানের দাবিতে গত বুধবার জেলা প্রশাসক কার্যালয়ের সামনে এক মানববন্ধন কর্মসূচী পালিত হয়। মানববন্ধন শেষে শিক্ষানবীশ আইনজীবিরা জেলা প্রশাসক মোঃ আবদুল মতিনের মাধ্যমে প্রধানমন্ত্রী বরাবর একটি স্মারকলিপি প্রদান করেন।

মানববন্ধন চলাকালে বক্তব্য রাখেন শিক্ষানবীশ আইনজীবি আব্দুল জলিল, শাহীন প্রধান, রায়হানুল ইসলাম, আলমগীর হোসেন, নিলুফার ইয়াসমিন শিল্পী প্রমুখ। বক্তারা বলেন, করোনা ভাইরাসের থাবায় পৃথিবী আজ মৃত্যুপুরীতে রূপ নিয়েছে। বিশ্বের সব পেশার মানুষ আজ এই ক্রান্তিলগ্নে সব ধরণের সুযোগ সুবিধা ভোগ করছে। শুধুমাত্র শিক্ষানবীশ আইনজীবি ছাড়া বিশ্বের অন্যান্য দেশগুলোতে আইন নিয়ে পড়াশোনা শেষ করার ৬ মাসের মধ্যে আইনজীবি হিসেবে তালিকাভূক্তির বিধান থাকলেও এদেশে একবার তালিকাভূক্তি হওয়ার পর আরো ৩-৪ বছরেও আরেকটি তালিকা ভূক্তির কার্যক্রম শেষ হয়না। আর এই করোনা ভাইরাসে জর্জরিত বিশ্বের চলমান দূর্যোগকালিন মুহুর্তে পরীক্ষা কখন হবে তালিকাভূক্তি কখন হবে তার কোন নিশ্চয়তা নেই। অবিলম্বে ২০২০ সালের এমসিকিউ পরীক্ষায় উত্তীর্ণ সকল আইনজীবিদের বাংলাদেশ বার কাউন্সিল কর্তৃক সরাসরি আইনজীবি হিসেবে তালিকাভূক্তি করে আদালতে সরাসরি প্রাকটিস করার অনুমতি এবং গেজেটের মাধ্যমে সনদ প্রদানের দাবি জানান। 

প্রবাসী মেয়ে-জামাইকে মাছ খাওয়ানো হলো না বাবার ঃ সদর উপজেলায় আমেরিকা প্রবাসী মেয়ে ও জামাইয়ের জন্য খুব যতœ করে রাখা লক্ষাধিক টাকার মাছ বিষ দিয়ে মেরেছে দুর্বৃত্তরা। সোমবার (৮ জুন) সকালে খোলাহাটি ইউনিয়নের পূর্ব কোমরনই গ্রামে পুকুরে মরা মাছ ভেসে উঠলে বিষয়টি নজরে আসে সবার।সরেজমিনে জানা যায়, বিশিষ্ট ব্যবসায়ী ও বিদ্যুৎ পাম্প মালিক সমিতির সাধারণ সম্পাদক আনাউর রহমান অনু মিয়া এক বিঘা পুকুরে প্রায় চার-পাঁচ বছর ধরে নিজেরা খাওয়ার জন্য মাছ চাষ করেন। এ বছর তার আমেরিকা প্রবাসী মেয়ে ও জামাই আসার কথা। তাই পুকুরে খুব যতœ করে রাখা হয় লক্ষাধিক টাকার রুই, কাতল, মৃগেলসহ বিভিন্ন প্রজাতির মাছ।সোমবার (৮ জুন) সকালে পূর্ব কোমরনই গ্রামের ময়নুল হোসেন পুকুরে মাছগুলো ভেসে থাকতে দেখেন। পরে পুকুর মালিক অনু মিয়াকে জানালে তিনি পুকুর পাড়ে এসে ঘটনাটি দেখে কান্নায় ভেঙে পড়েন। 

দুর্বৃত্তরা পুকুরে বিষ প্রয়োগ করে মাছগুলো মেরেছে বলে ধারণা করা হচ্ছে। এতে প্রায় ১ লাখ টাকার ক্ষতি হয়েছে তার।পুকুরের মালিক বিশিষ্ট ব্যবসায়ী আনাউর রহমান অনু মিয়া বলেন, আমি দীর্ঘ চার-পাঁচ বছরের বেশি সময় যাবত এই মাছগুলো চাষ করছি। এই মাছগুলো আমার আমেরিকা প্রবাসী মেয়ে ও জামাইয়ের জন্য খুব যতেœ সংরক্ষণ করেছি। দীর্ঘ আট বছর থেকে তারা আমেরিকায় বসবাস করছে। সম্প্রতি তাদের আসার কথা রয়েছে। 

এ জন্যই মাছগুলো রেখে দিয়েছি।এ ব্যাপারে গাইবান্ধা সদর উপজেলা মৎস অফিসার সঞ্জয় কুমার জানান, ধারণা করা হচ্ছে বিষ প্রয়োগ বা গ্যাস ট্যাবলেট দিয়ে মাছগুলো হত্যা করা হয়েছে।গাইবান্ধা সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) খান মো. শাহরিয়ার বলেন, ঘটনা শোনা মাত্রই এসআই অনšত কুমারকে ঘটনাস্থলে পাঠিয়েছি। তদšত সাপেক্ষে ঘটনার সঙ্গে জড়িত ব্যক্তিদের বিরুদ্ধে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়া হবে।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ