শনিবার ০৮ আগস্ট ২০২০
Online Edition

করোনায় বিএনপির ৩৭ নেতাকর্মীর মৃত্যু ॥ আক্রান্ত শতাধিক

স্টাফ রিপোর্টার: করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে এ পর্যন্ত বিএনপির অন্তত ৩৭ জন নেতাকর্মীর মৃত্যু হয়েছে। প্রাণঘাতী এ ভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন দলের প্রায় শতাধিক নেতাকর্মী ও সমর্থক। এছাড়া প্রতিদিন আক্রান্তের তথ্য আসছে বলে জানিয়েছে বিএনপির করোনা পর্যবেক্ষণ কেন্দ্রীয় সেল।

গত ৩ মে ভিডিও কনফারেন্সে বিএনপির স্থায়ী কমিটির এক বৈঠকে ড. খন্দকার মোশাররফ হোসেনকে উপদেষ্টা ও ইকবাল হাসান মাহমুদ টুকুকে আহ্বায়ক করে ১৩ সদস্যের জাতীয় করোনা পরিস্থিতি পর্যবেক্ষণ সেল গঠন করা হয়। পরবর্তীতে বিভাগীয় সাংগঠনিক নেতাদের দিয়ে বিভাগীয় সেল গঠন করা হয়। 

ঢাকা বিভাগ: ঢাকা মহানগরীতে বিএনপি চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা অ্যাডভোকেট আব্দুর রেজ্জাক খান আক্রান্ত হয়েছেন। মারা গেছেন ঢাকা মহানগর উত্তর বিএনপির সাধারণ সম্পাদক আহসান উল্লাহ হাসান। অন্য মৃতরা হলেন, কেরানীগঞ্জ জাসাস নেতা নুরুজ্জামান।শহিদুল ইসলাম শিমুল খন্দকার, প্রচার সম্পাদক সাদিপুর ইউপি বিএনপি, সোনারগাঁও।. হাজি আব্দুল করিম, সাধারণ সম্পাদক, ঘোরাকান্ডা ইউপি বিএনপি, রূপগঞ্জ। দুলাল হোসেন, সদস্য কাঞ্চন পৌর বিএনপি, রূপগঞ্জ. নবী হোসেন, ওয়ার্ড সাংগঠনিক সম্পাদক, কায়েসপাড়া ইউপি বিএনপি, রূপগঞ্জ। আনিছুর রহমান বাবুল মাস্টার, বিএনপিকর্মী, রূপগঞ্জ থানা। ম্ক্তুার হোসেন, বিএনপিকর্মী, মদনপুর ইউপি।

রাজশাহী বিভাগে কমপক্ষে আক্রান্ত হয়েছে ১২ জন। এই বিভাগে কেউ মারা যায়নি।

খুলনা বিভাগেও কেউ মারা যায় নি। তবে কয়েকজন করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন।

ফরিদপুর বিভাগে আক্রান্ত হয়ে ছেন অনেকই। মারাও গেছেন। ফরিদপুর জেলায় আক্রান্ত ১জন। রাজবাড়ী জেলায় আক্রান্ত ১১, মৃত ১। গোপালগেঞ্জ ও শরীয়তপুর জেলায় আক্রান্ত ১ জন করে।

কুমিল্লা উত্তরে আক্রান্ত ৮, মৃত ১০ জন।

মৃতরা হলেন, মিজানুর রহমান, মনিরুল হক ভূঁইয়া, খসরুল আলম রিপন খান, মো. বিল্লাল হোসেন, মো. নজরুল ইসলাম, এমদাদ সরকার, শেখ মাওলানা আতিকুল ইসলাম, আব্দুল করিম, মো. ফরিদ মিয়া।

কুমিল্লা দক্ষিণ জেলায় আক্রান্ত ৬ জন। চাঁদপুর জেলায় আক্রান্ত ৩, মৃত ৩ জন। মৃতরা হলেন, আবু তাহের ভূঁইয়া, সাধারণ সম্পাদক, ৮ নম্বর বাগাদী ইউপি, নুরুল ইসলাম মাল, আনোয়ার হোসেন আনু। ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলায় আক্রান্ত ২ জন।

চট্টগ্রাম বিভাগে বেশ কয়েকজন করোনায় আক্রান্ত হয়ে মারা গেছেন।চট্টগ্রাম দক্ষিণ জেলায় আক্রান্ত ৬, মৃত ৩ জন। মৃতরা হলেন, অ্যাডভোকেট কবির চৌধুরী, সদস্য, জেলা বিএনপি। এম এ শুক্কুর ও আব্দুস শুক্কুর। চট্টগ্রাম উত্তরে আক্রান্ত ৩ জন। চট্টগ্রাম মহানগরে আক্রান্ত ৬ মৃত ৩ জন। মৃতরা হলেন, করিম উল্লাহ, ইসকান্দার উল্লাহ, হাবিব উল্লাহ।

নোয়াখালী জেলায় আক্রান্ত ৭, মৃত ৬ জন। মৃতরা হলেন, মাঈনুদ্দিন মানিক, আশরাফ হোসেন আবু, নুর মোহাম্মদ, লাতু । জাবেদ হোসেন, খায়ের মিয়া। ফেনী জেলায় আক্রান্ত ২ জন। লক্ষ্মীপুর জেলায় আক্রান্ত ১ জন।

সিলেট জেলায় আক্রান্ত ১, মৃত ১ জন।আক্রান্ত সিটি মেয়র আরফিুল হক চৌধুরীর স্ত্রী শ্যামা হক চৌধুরী। মৃত হলেন দবিরুল ইসলাম, ওয়ার্ড সভাপতি, দক্ষিণ সুরমা। সুনামগঞ্জ জেলায় আক্রান্ত ৭ জন। মৌলভীবাজারে মৃত ১জন। হলেন আব্দুল আহাদ, কাউন্সিলর ও সাবেক সাধারণ সম্পাদক, শ্রীমঙ্গল উপজেলা বিএনপি।

ময়মনসিংহ মহানগরে মৃত ১ জন হলেন আজমল হোসাইন খান। এদিকে বিএনপি চেয়ারপারসনের প্রেস উইং সদস্য শায়রুল কবীর খান জানান, বিএনপির খুলনা বিভাগীয় সাংগঠনিক সম্পাদক ও মহানগর বিএনপির সভাপতি নজরুল ইসলাম মঞ্জু এবং তার স্ত্রী অ্যাডভোকেট সাবিহা খাতুন, বিএনপির ভাইস-চেয়ারম্যান রাজ্জাক খান ও তার স্ত্রী, নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশন কাউন্সিলর মাসকুদুল আলম খন্দকার খোরশেদ ও স্ত্রী আফরুজা খানম লুনা, অ্যাডভোকেট খন্দকার তৈমুর আলমের মেয়ে মরিয়ম খন্দকার করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন। মারা গেছেন ঢাকা মহানগর উত্তর সাধারণ সম্পাদক আহসানউল্লাহ হাসানের স্ত্রী রিনা আহসান। ফরিদপুর বিভাগীয় সহ-সাংগঠনিক মো. সেলিমুজ্জামান সেলিম জানান, শরিয়তপুর জেলা বিএনপির সাবেক সভাপতি টিএম গিয়াস উদ্দিন করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন।  বিএনপির করোনা পর্যবেক্ষণ সেলের কেন্দ্রীয় আহ্বায়ক ও দলের স্থায়ী কমিটির সদস্য ইকবাল হাসান মাহমুদ টুকু জানান, প্রতিদিনই নতুন তথ্য আসছে। সর্বশেষ তথ্য অনুযায়ী করোনা আক্রান্ত হয়ে ৯২ জনের আক্রান্ত হওয়ার তথ্য পেয়েছি এবং ৩৭ জনের মৃত্যু হয়েছে। সুস্থতার হিসাব আমাদের কাছে নেই।

দলের মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেন, যারা আক্রান্ত হয়েছেন তারা চিকিৎসা নিচ্ছেন। আমরা তাদের খোঁজখবর নিচ্ছি। এখনও পূর্ণাঙ্গ তথ্য আমাদের কাছে এসে পৌঁছায়নি। দু-একদিনের মধ্যে আমরা (এ বিষয়ে বিস্তারিত) বলতে পারব।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ