ঢাকা, বুধবার 15 July 2020, ৩১ আষাঢ় ১৪২৭, ২৩ জিলক্বদ ১৪৪১ হিজরী
Online Edition

সব কিছু খুলে দেয়ার সিদ্ধান্ত দায়িত্বজ্ঞানহীন, ভুল সিদ্ধান্ত: মির্জা ফখরুল

ফাইল ফটো

সংগ্রাম অনলাইন ডেস্ক: বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদি দল বিএনপি’র মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর অভিযোগ করেছেন, করোনাভাইরাস সংক্রমণ পরিস্থিতিতে বিশেষজ্ঞদের মতামত উপেক্ষা করে সরকারের সব কিছু খুলে দেওয়ার সিদ্ধান্তে দেশের মানুষ আরও বড় বিপদের দিকে ধাবিত হচ্ছে ।

আজ শনিবার সাবেক রাষ্ট্রপতি ও বিএনপির প্রতিষ্ঠাতা  জিয়াউর রহমানের ৩৯তম মৃত্যুবার্ষিকী উপলক্ষে তার মাজারে ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা নিবেদন শেষে সাংবাদিকদের নিকট এমন মন্তব্য করেন মির্জা ফখরুল।

তিনি  বলেন, ‘যে পরিমাণ পরীক্ষা হচ্ছে তাতে দেখা যাচ্ছে প্রতিমুহূর্তে আক্রান্তের সংখ্যা বাড়ছে। মৃত্যুর পরিমাণ বাড়ছে। বিশেষজ্ঞরা বলছেন, এমনকি সরকারের নির্বাচিত এ সংক্রান্ত টেকনিক্যাল কমিটি রয়েছে তারাও পরামর্শ দিয়েছেন একসাথে সব কিছু খুলে দেওয়া ঠিক হবে না।’

তিনি আরও বলেন, ‘সে পরামর্শ না শুনে আগামীকাল থেকে সবকিছু খুলে দিচ্ছে। এসব সিদ্ধান্ত দায়িত্বজ্ঞানহীন, একেবারেই ভুল সিদ্ধান্ত। এতে করে আরও চরম বিপদের দিকে ঠেলে দেওয়া হচ্ছে। সরকারের ভুল সিদ্ধান্তে আরও বড় বিপদের দিকে যাচ্ছি।’

বিএনপির এই নেতা বলেন, ‘আজ সমস্ত জাতিকে বিপদের মধ্যে ফেলে দিয়েছে। তারা বলছে, আগামীকাল থেকে সাধারণ ছুটিও থাকবে না, গণপরিবহনও খুলে দেওয়া হবে। প্রথম থেকেই সরকার ভুল সিদ্ধান্ত নিয়েছে। মনে হয়েছে কোথাও কোনো সমন্বয় নেই। সরকারের সিদ্ধান্তগুলো সম্পূর্ণভাবে অপরিপক্কই নয়, অদূরদর্শী ও প্রজ্ঞাহীনও। ফলে দেশের মানুষ আতঙ্কিত হয়ে পড়েছে।’ এক প্রশ্নের জবাবে মির্জা ফখরুল বলেন, ‘সরকারকে আমরা বহু পরামর্শ দিয়েছি। বিপরীতে তাদের কাছ থেকে শুধু তিরস্কারই পেয়েছি।’

তিনি বলেন, ‘বিএনপির দিক থেকে আমরা যে প্যাকেজ প্রস্তাব দিয়েছিলাম-তা সবচাইতে যুক্তিসঙ্গত ছিল। আমরা দিন আনে দিন খায় মানুষকে মাসে ৫ হাজার টাকা করে তিন মাসে ১৫ হাজার টাকা দেওয়ার প্রস্তাব করেছিলাম। সেটা তারা পারেনি, সরকার ব্যর্থ হয়েছে।’

বিএনপি মহাসচিব বলেন, ‘আজ জিয়াউর রহমানের শাহাদাত বার্ষিকীর দিনে শপথ নিয়েছি, অতীতের মতো জনগণের এই কঠিন মুহূর্তে তাদের পাশে থাকবো, দেশের হারানো গণতন্ত্র ফিরিয়ে আনবো।’ - পার্স টুডে

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ